alt

নগর-মহানগর

‘আত্মহত্যা’ বলা হলেও ১০ মাস পর জানা গেল, মেয়েটি ধর্ষণের শিকার

নিজস্ব বার্তা প্রতিনিধি : : বৃহস্পতিবার, ২৪ নভেম্বর ২০২২

রাজধানীর রামপুরার পূর্ব হাজীপাড়ায় রাজিন আহম্মেদের বাসায় এক কিশোরী গৃহকর্মীর মৃত্যু হয়েছিল ১০ মাস আগে। তখন রাজিন বলেছিলেন, মেয়েটি গলায় ফাঁস নিয়ে আত্মহত্যা করেছে। এখন ময়নাতদন্তের প্রতিবেদন পেয়ে পুলিশ জানতে পেরেছে, ধর্ষণের শিকার হয়ে ওই কিশোরী গলায় ফাঁস নিয়ে আত্মহত্যা করে। এ বিষয়ে ওই কিশোরীর মা মঙ্গলবার রামপুরা থানায় নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে মামলা করেছেন।

রামপুরা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. রফিকুল ইসলাম ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বুধবার রাতে বলেন, সাড়ে ১১ বছরের মেয়েটিকে কারা ধর্ষণ করেছে, তার কোনো প্রত্যক্ষদর্শী নেই। এখন তদন্তে ধর্ষককে শনাক্ত করে গ্রেপ্তার করা হবে।

কিশোরীর মায়ের করা নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনের মামলায় বলা হয়, তাঁর মেয়ে পূর্ব হাজীপাড়ায় রাজিন আহম্মেদের বাসায় গৃহকর্মীর কাজ করত। চলতি বছরের ২৮ জানুয়ারি মেয়ে তার মাকে ফোন করে জানায়, তার ওপর নির্যাতন করা হচ্ছে, সে আর এই বাসায় কাজ করবে না। পরদিন ২৯ জানুয়ারি বিকেলে রাজিন আহম্মেদ ও তাঁর স্ত্রী রিফাত জাহান মেয়ের মাকে ফোন করে বলেন, আপনার মেয়ের সমস্যা হয়েছে। তাঁরা তাকে স্থানীয় বেসরকারি একটি হাসপাতালে নিয়ে যাচ্ছেন। কিশোরীর স্বজনেরা ওই হাসপাতালে গিয়ে জানতে পারেন, মেয়েটি মারা গেছে। তবে রাজিন আহম্মেদ ও তাঁর স্ত্রী তখন দাবি করেন, কিশোরী গৃহকর্মী গলায় ওড়না পেঁচিয়ে ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা করেছে। পরে লাশ ময়নাতদন্তের জন্য ঢাকা মেডিকেল কলেজের মর্গে পাঠানো হয়।

মামলায় বলা হয়, মেয়ের মৃত্যুর ঘটনায় রামপুরা থানায় একটি অপমৃত্যুর মামলা হয়েছিল। কিন্তু মেয়ের মৃত্যুর ঘটনায় তার মা রাজিন আহম্মেদ ও রিফাত জাহানের বিরুদ্ধে আদালতে নালিশি মামলা করেন। পরে মেয়ের মা অপমৃত্যু মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা রামপুরা থানার উপপরিদর্শক (এসআই) তওফিকা ইয়াসমিনের কাছে জানতে পারেন, তাঁর মেয়ে ফাঁসিতে ঝুলে থাকায় শ্বাসরোধ হয়ে মারা গেছে এবং এর আগে সে ধর্ষণের শিকার হয়েছিল। রাজিন আহম্মেদের বাড়িতে অনেকেই থাকতেন এবং আসতেন। ধারণা করা হচ্ছে, তাঁদের কেউ মেয়েটিকে ধর্ষণ করেছেন। সম্ভ্রমহানির অপমান সইতে না পেরে সে আত্মহত্যা করেছে।

তবে রাতে যোগাযোগ করা হলে মেয়েটির বাবা বলেন, তাঁর মেয়ে কোনোভাবেই আত্মহত্যা করতে পারে না। তাকে ধর্ষণের পর হত্যা করা হয়েছে। এখন এই ঘটনায় জড়িতদের তিনি দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি ও বিচার চান।

ছবি

বিএনপির নয়াপল্টনে সমাবেশ করা নিয়ে যা বললেন আইজিপি

ছবি

ঢাবিতে গাড়ির ধাক্কায় নারীর মৃত্যুর ঘটনায় মামলা

কামরাঙ্গীরচর থানায় হামলার অভিযোগে হাসপাতালের এমডিসহ গ্রেপ্তার ৭

‘চ্যালেঞ্জের মুখে বিমান শিল্প’

ছবি

ঢাবি এলাকায় নারীকে পিষে টেনে নিল সাবেক শিক্ষকের গাড়ি, হাসপাতালে মৃত্যু 

ছবি

আসাদগেটে প্রাইভেটকারে আগুন, দগ্ধ ২

ছবি

থ্যালাসেমিয়া আক্রান্ত শিশুদের পাশে ইনার হুইল ক্লাব

ছবি

বিজয়ের মাসে চালু হচ্ছে সুপার স্পেশালাইজড হাসপাতাল

ছবি

রাজারবাগে সড়ক দুর্ঘটনায় অজ্ঞাত যুবকের মৃত্যু

কেরানীগঞ্জে জোড় ইজতেমায় লাখো মুসল্লির সমাগম 

ছবি

ট্যানারি শ্রমিকদের স্বাস্থ্য সুরক্ষায় দ্রুত হাসপাতাল স্থাপনের দাবি

ছবি

রাজধানীতে মাদকবিরোধী অভিযানে গ্রেপ্তার ৩৮

ছবি

ডিএনসিসি মেয়রের সঙ্গে মার্কিন রাষ্ট্রদূতের সৌজন্য সাক্ষাৎ

ছবি

আকর্ষণীয় পর্যটনকেন্দ্র হিমছড়ি পাহাড়, ঝুঁকিপূর্ণ উঠা-নামার পথ

ছবি

রামপুরায় নির্মাণাধীন ভবন থেকে পড়ে শ্রমিক নিহত

ছবি

বিপিএমসিএ’র নতুন কমিটি: মুবিন খান সভাপতি আনোয়ার খান সাধারণ সম্পাদক

জেন্ডার প্ল্যাটফর্ম ‘যৌন হয়রানি প্রতিরোধ আইন’ দাবি জানিয়েছে

আর্জেন্টিনার পতাকা টাঙাতে গিয়ে বিদ্যুৎস্পৃষ্টে দুই কিশোর দগ্ধ

ছবি

ঢাকাস্থ সাতক্ষীরা জেলা সমিতির কমিটি গঠন

ছবি

স্বাচিপের সম্মেলন ঘিরে উৎসবমুখর সোহরাওয়ার্দী উদ্যান

ছবি

শাহজালাল বিমানবন্দর থেকে প্যাঁচা জব্দ, ১৯ লাখ টাকা জরিমানা আদায়

ছবি

রাজধানীতে মাদকবিরোধী অভিযানে আটক ৭১

ছবি

তাজরীন ট্র্যাজেডি মামলা, ১০ বছরেও শেষ হয়নি বিচার

ঢাকার সৌন্দর্য ফেরাতে তারের জঞ্জালমুক্ত করার আশা মেয়র তাপসের

পরিকল্পনাহীনতাই যেন আমাদের পরিকল্পনা

ঢাকার মিরপুরে বাসের ধাক্কায় মোটরসাইকেল আরোহী কিশোর নিহত

ঢাকার মিরপুরে বাসের ধাক্কায় মোটরসাইকেল আরোহী কিশোর নিহত

ছবি

প্রাথমিকে শূন্যপদে নিয়োগের দাবিতে মানববন্ধন : পুলিশি বাধার অভিযোগ

ছবি

‘ঢাকা অ্যাপে’ উত্তরে নির্দিষ্ট ওয়ার্ডগুলোতে কুইক রেসপন্স টিম

পথশিশুদের বিশ্ব ফুটবলে বাংলাদেশের ১১ শিশু

ছবি

রাজধানীতে পুলিশের অভিযানে গ্রেপ্তার ৪৭

গভীর রাতে খিলগাও ফ্রঅইওভারে ট্রাকচাপায় তিন বন্ধুর মৃত্যু

কদমতলীর বিস্কুট কারখানায় ওভেন বিস্ফোরণে যুবক নিহত

হাজারীবাগে কৃষকের বাজার উদ্বোধন

চাঁদা না পেয়ে মুক্তিযোদ্ধা পরিবারের ওপর হামলা, জড়িতদের গ্রেপ্তার দাবি

ছবি

চকবাজারের বৃদ্ধকে কি ডাকাতেরা মেরে ফেলল, পরিবার ও পুলিশের ভিন্ন কথা

tab

নগর-মহানগর

‘আত্মহত্যা’ বলা হলেও ১০ মাস পর জানা গেল, মেয়েটি ধর্ষণের শিকার

নিজস্ব বার্তা প্রতিনিধি :

বৃহস্পতিবার, ২৪ নভেম্বর ২০২২

রাজধানীর রামপুরার পূর্ব হাজীপাড়ায় রাজিন আহম্মেদের বাসায় এক কিশোরী গৃহকর্মীর মৃত্যু হয়েছিল ১০ মাস আগে। তখন রাজিন বলেছিলেন, মেয়েটি গলায় ফাঁস নিয়ে আত্মহত্যা করেছে। এখন ময়নাতদন্তের প্রতিবেদন পেয়ে পুলিশ জানতে পেরেছে, ধর্ষণের শিকার হয়ে ওই কিশোরী গলায় ফাঁস নিয়ে আত্মহত্যা করে। এ বিষয়ে ওই কিশোরীর মা মঙ্গলবার রামপুরা থানায় নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে মামলা করেছেন।

রামপুরা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. রফিকুল ইসলাম ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বুধবার রাতে বলেন, সাড়ে ১১ বছরের মেয়েটিকে কারা ধর্ষণ করেছে, তার কোনো প্রত্যক্ষদর্শী নেই। এখন তদন্তে ধর্ষককে শনাক্ত করে গ্রেপ্তার করা হবে।

কিশোরীর মায়ের করা নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনের মামলায় বলা হয়, তাঁর মেয়ে পূর্ব হাজীপাড়ায় রাজিন আহম্মেদের বাসায় গৃহকর্মীর কাজ করত। চলতি বছরের ২৮ জানুয়ারি মেয়ে তার মাকে ফোন করে জানায়, তার ওপর নির্যাতন করা হচ্ছে, সে আর এই বাসায় কাজ করবে না। পরদিন ২৯ জানুয়ারি বিকেলে রাজিন আহম্মেদ ও তাঁর স্ত্রী রিফাত জাহান মেয়ের মাকে ফোন করে বলেন, আপনার মেয়ের সমস্যা হয়েছে। তাঁরা তাকে স্থানীয় বেসরকারি একটি হাসপাতালে নিয়ে যাচ্ছেন। কিশোরীর স্বজনেরা ওই হাসপাতালে গিয়ে জানতে পারেন, মেয়েটি মারা গেছে। তবে রাজিন আহম্মেদ ও তাঁর স্ত্রী তখন দাবি করেন, কিশোরী গৃহকর্মী গলায় ওড়না পেঁচিয়ে ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা করেছে। পরে লাশ ময়নাতদন্তের জন্য ঢাকা মেডিকেল কলেজের মর্গে পাঠানো হয়।

মামলায় বলা হয়, মেয়ের মৃত্যুর ঘটনায় রামপুরা থানায় একটি অপমৃত্যুর মামলা হয়েছিল। কিন্তু মেয়ের মৃত্যুর ঘটনায় তার মা রাজিন আহম্মেদ ও রিফাত জাহানের বিরুদ্ধে আদালতে নালিশি মামলা করেন। পরে মেয়ের মা অপমৃত্যু মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা রামপুরা থানার উপপরিদর্শক (এসআই) তওফিকা ইয়াসমিনের কাছে জানতে পারেন, তাঁর মেয়ে ফাঁসিতে ঝুলে থাকায় শ্বাসরোধ হয়ে মারা গেছে এবং এর আগে সে ধর্ষণের শিকার হয়েছিল। রাজিন আহম্মেদের বাড়িতে অনেকেই থাকতেন এবং আসতেন। ধারণা করা হচ্ছে, তাঁদের কেউ মেয়েটিকে ধর্ষণ করেছেন। সম্ভ্রমহানির অপমান সইতে না পেরে সে আত্মহত্যা করেছে।

তবে রাতে যোগাযোগ করা হলে মেয়েটির বাবা বলেন, তাঁর মেয়ে কোনোভাবেই আত্মহত্যা করতে পারে না। তাকে ধর্ষণের পর হত্যা করা হয়েছে। এখন এই ঘটনায় জড়িতদের তিনি দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি ও বিচার চান।

back to top