alt

অপরাধ ও দুর্নীতি

কার্টুনিস্ট কিশোরকে নির্যাতন: পিবিআই প্রতিবেদনের বিরুদ্ধে নারাজি

সংবাদ অনলাইন রিপোর্ট : বুধবার, ২৪ নভেম্বর ২০২১

আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর হেফাজতে শারীরিক নির্যাতনের অভিযোগে করা মামলায় পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশনের (পিবিআই) দেওয়া তদন্ত প্রতিবেদনের বিরুদ্ধে নারাজি আবেদন করেছেন কার্টুনিস্ট আহমেদ কবির কিশোর। আবেদনের ওপর আগামী ২৩ ফেব্রুয়ারি শুনানি অনুষ্ঠিত হবে।

বুধবার (২৪ নভেম্বর) ঢাকা মহানগর দায়রা জজ কে এম ইমরুল কায়েশের আদালতে এ আবেদন করেন কার্টুনিস্ট কিশোর। আদালতের অতিরিক্ত পাবলিক প্রসিকিউটর তাপস কুমার পাল এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

এর আগে, গত ১৭ অক্টোবর ঢাকা মহানগর দায়রা জজ আদালতে মামলার তদন্ত কর্মকর্তা পিবিআইয়ের পুলিশ সুপার মোহাম্মদ মিজানুর রহমান কিশোরের ওপর নির্যাতনের কোনো সুনির্দিষ্ট প্রমাণ পাওয়া যায়নি বলে একটি প্রতিবেদন দাখিল করেন।

প্রতিবেদনে মামলার তদন্ত কর্মকর্তা উল্লেখ করেন, সাদা পোশাকে অজ্ঞাতনামা ১৬-১৭ জনের বিরুদ্ধে শারীরিক নির্যাতনের অভিযোগ প্রাথমিকভাবে প্রমাণিত হয়নি।

গত ২০ মার্চ কিশোরের শারীরিক অবস্থা পরীক্ষা-নিরীক্ষা করে ঢাকা মেডিকেল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতালের ৩ সদস্যের মেডিকেল বোর্ড।

তারা কিশোরের শরীরে আঘাতের চিহ্ন না পাওয়ার কথা জানায়।

ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনের মামলায় গ্রেফতার হওয়ার পর জামিনে মুক্তি পান কার্টুনিস্ট আহমেদ কবির কিশোর। পরে পুলিশি হেফাজতে নির্যাতনের অভিযোগ তুলে গত ১০ মার্চ কার্টুনিস্ট কিশোর আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর অজ্ঞাত সদস্যদের বিরুদ্ধে ঢাকা মহানগর দায়রা জজ আদালতে মামলা দায়ের করেন।

এরপর গত ১৪ মার্চ ঢাকা মহানগর দায়রা জজ আদালতের বিচারক কে এম ইমরুল কায়েশ কিশোরকে নির্যাতন করা হয়েওছ কি না তা দেখতে তিন সদস্যের একটি কমিটি গঠন করতে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের পরিচালককে নির্দেশ দেন। এছাড়া মামলাটি পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশনকে (পিবিআই) তদন্তের নির্দেশ দেন তিনি।

কিশোর তার মামলায় অভিযোগ করেন, গত বছরের ২ মে বিকেল সাড়ে ৫টার দিকে কলিং বেলের শব্দে আমার ঘুম ভাঙে। দরজা খুললে অপরিচিত একজন আমাকে বলে, দরজা খোলেন না কেন? পরনের লুঙ্গি খুলে প্যান্ট পরে আসেন। সঙ্গে একটি ভালো শার্ট পরেন। আমি তাদের পরিচয় জানতে চাইলে তারা আমাকে পরিচয় দেয়নি। তাদের আলাপ-আলোচনায় একজনকে জসিম বলে ডাকতে শুনি। সবাই ঘরে ঢুকে তল্লাশি শুরু করেন। তারা আমাকে কোনো গ্রেফতারি পরোয়ানা দেখাতে পারেননি। বাসা থেকে আমার মোবাইল, সিপিইউ ও যত ধরনের ডিজিটাল ডিভাইস ছিল তা অবৈধভাবে নিয়ে যায়।

আমাকে যখন হাতকড়া পরিয়ে বাসার নিচে নামানো হয়, তখন বাসার সামনে ৬/৭টি গাড়ি অপেক্ষা করছিল। আমার বাসার সামনে অনেক লোকজন জড়ো হয় এবং একটি গাড়িতে আমাকে ওঠানো হয়। আমি তখন জোরে জোরে চিৎকার করতে থাকি। কিন্তু গাড়িতে তারা অনেক জোরে শব্দ করে গান বাজাচ্ছিল। হয়তো এজন্য আমার চিৎকার বাইরে শোনা যাচ্ছিল না।

তিনি আরও উল্লেখ করেন, পরে বুঝতে পারলাম আমাকে পুরনো একটি স্যাঁতস্যাঁতে ঘরে নিয়ে আসা হয়েছে। এরপর প্রজেক্টরের মাধ্যমে একটির পর একটি কার্টুন দেখানো হচ্ছিল। সেগুলোর মর্মার্থ জানতে চাওয়া হয়। করোনা নিয়ে আমার কিছু কার্টুন দেখিয়ে সেগুলো আঁকার কারণ জানতে চাওয়া হয়। একপর্যায়ে আমার কানে প্রচণ্ড জোরে আঘাত করা হয়। এরপর আমি বোধশক্তি হারিয়ে ফেলি। বুঝতে পারছিলাম আমার কান দিয়ে রক্ত গড়িয়ে পড়ছে। তারপর স্টিলের পাতের লাঠি দিয়ে আমার হাঁটুতে আঘাত করা হয়। যন্ত্রণা ও ব্যথায় সংজ্ঞাহীন হয়ে পড়ি আমি। এভাবে ২ মে থেকে ৪ মে পর্যন্ত আমাকে শারীরিক ও মানসিকভাবে নির্যাতন করা হয়।

ছবি

নীলফামারীতে জেএমবির সামরিক কমান্ডারসহ ৫ জঙ্গি গ্রেপ্তার

হাকিমপুর ইউপি নির্বাচন নিয়ে সংঘর্ষে আহত ২০

২৯ ব্যক্তি ও ১৪ প্রতিষ্ঠানের নামের তালিকা হাইকোর্টে জমা দিচ্ছে দুদক

সিদ্ধিরগঞ্জে মাদকসহ ধৃত ৩

সিংগাইরে শ্বাসরোধ করে যুবককে হত্যা

মুন্সীগঞ্জে সন্ত্রাসী হামলায় সাংবাদিক আহত

গাড়ি কেনার টাকা চুরির সময় ধরা পড়ে প্রবাসীকে খুন করে চাচাত ভাই

দিনাজপুরে ধর্ষণের শিকার ৮ বছরের শিশু লাইফ সাপোর্টে, ধর্ষক আটক

ছবি

রামপুরায় শিক্ষার্থীর মৃত্যু: সুপারভাইজার-হেলপারের স্বীকারোক্তি

ছবি

শত্রুতার বিষে মরল খামারের আড়াইশ’ হাঁস

মির্জাগঞ্জে চোরের চেতনানাশকে ৪ শিশুসহ ৭ জন হাসপাতালে

টঙ্গীতে শিশুসহ অপহরণকারী গ্রেপ্তার

মঠবাড়িয়ায় পরীক্ষায় প্রক্সি আটক ৬ : মামলায় অধ্যক্ষ আসামি

দুই কোটি হাতিয়ে লাপাত্তা হায় হায় কোম্পানি-জুয়েলারি

ছবি

ঢাবির সেই প্রভোস্টকে সহযোগী অধ্যাপক পদে পুনর্বহালের নির্দেশ

জগন্নাথপুরে আধিপত্য নিয়ে গোলাগুলি : আহত ৫০

বরিশালে স্বামী হত্যা স্ত্রী ও প্রেমিকের যাবজ্জীবন

ছবি

জাহাঙ্গীর আলমের বিরুদ্ধে এবার নওগাঁয় মামলা

ছবি

কর্মকর্তাদের ‘কাল্পনিক’ বিদেশ ভ্রমণ বন্ধে হাই কোর্টের তিন নির্দেশনা

ছবি

আমিনবাজারে ৬ শিক্ষার্থী হত্যা : ১৩ জনের মৃত্যুদণ্ড

ছবি

উপকূলীয় অঞ্চলে জলদস্যুদের হানা, জেলেদের জিম্মি করে মুক্তিপণ আদায়

ছবি

রাজারবাগ পীরের সম্পদের অনুসন্ধানে ব্যাংকসহ ১২২ প্রতিষ্ঠানে দুদকের চিঠি

ছবি

মোরেলগঞ্জে ৩০৯ স্কুলে বায়োমেট্রিক হাজিরা ডিভাইস ক্রয়ে হরিলুট!

ছবি

সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি বিনষ্টের মামলা ৯০ দিনে নিষ্পত্তির নির্দেশ

ছবি

৩ কর্তৃপক্ষের অনুমতি ছাড়া কর্মকর্তাদের বিদেশ ভ্রমণ নয়

ছবি

৩৪২ ধারায় ৮ আসামির বক্তব্য গ্রহণ: পরবর্তি ধার্য্য দিন ৬ ডিসেম্বর

ছবি

কাউন্সিলর সোহেল হত্যা: ব্যবহৃত অস্ত্র উদ্ধার

ছবি

কয়লাখনি দুর্নীতি: খালেদার বিরুদ্ধে অভিযোগ গঠন ২০ জানুয়ারি

হাসপাতালে একমাসে ৫ বার চুরি!

কুড়িগ্রামের ভুয়া সিআইডি আটক

ছবি

রামপুরায় বাসে আগুন ও ভাঙচুরের ঘটনায় মামলা, আসামি ৮০০

ছবি

বিমানে অসন্তোষ : চাকরিচ্যুত পাইলট অ্যাসোসিয়েশনের সভাপতি

ছবি

সব আসামির নাম না আসায় আপত্তি পরীমনির

ছবি

মাইনুদ্দিনের মৃত্যুতে মায়ের মামলা, বাসে আগুনের আরেক মামলা

ছবি

অবৈধ সম্পদ অর্জন: পাপিয়া দম্পতির বিচার শুরু

ছবি

কেরোসিন-ডিজেলের দাম নির্ধারণে হাইকোর্টের রুল

tab

অপরাধ ও দুর্নীতি

কার্টুনিস্ট কিশোরকে নির্যাতন: পিবিআই প্রতিবেদনের বিরুদ্ধে নারাজি

সংবাদ অনলাইন রিপোর্ট

বুধবার, ২৪ নভেম্বর ২০২১

আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর হেফাজতে শারীরিক নির্যাতনের অভিযোগে করা মামলায় পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশনের (পিবিআই) দেওয়া তদন্ত প্রতিবেদনের বিরুদ্ধে নারাজি আবেদন করেছেন কার্টুনিস্ট আহমেদ কবির কিশোর। আবেদনের ওপর আগামী ২৩ ফেব্রুয়ারি শুনানি অনুষ্ঠিত হবে।

বুধবার (২৪ নভেম্বর) ঢাকা মহানগর দায়রা জজ কে এম ইমরুল কায়েশের আদালতে এ আবেদন করেন কার্টুনিস্ট কিশোর। আদালতের অতিরিক্ত পাবলিক প্রসিকিউটর তাপস কুমার পাল এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

এর আগে, গত ১৭ অক্টোবর ঢাকা মহানগর দায়রা জজ আদালতে মামলার তদন্ত কর্মকর্তা পিবিআইয়ের পুলিশ সুপার মোহাম্মদ মিজানুর রহমান কিশোরের ওপর নির্যাতনের কোনো সুনির্দিষ্ট প্রমাণ পাওয়া যায়নি বলে একটি প্রতিবেদন দাখিল করেন।

প্রতিবেদনে মামলার তদন্ত কর্মকর্তা উল্লেখ করেন, সাদা পোশাকে অজ্ঞাতনামা ১৬-১৭ জনের বিরুদ্ধে শারীরিক নির্যাতনের অভিযোগ প্রাথমিকভাবে প্রমাণিত হয়নি।

গত ২০ মার্চ কিশোরের শারীরিক অবস্থা পরীক্ষা-নিরীক্ষা করে ঢাকা মেডিকেল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতালের ৩ সদস্যের মেডিকেল বোর্ড।

তারা কিশোরের শরীরে আঘাতের চিহ্ন না পাওয়ার কথা জানায়।

ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনের মামলায় গ্রেফতার হওয়ার পর জামিনে মুক্তি পান কার্টুনিস্ট আহমেদ কবির কিশোর। পরে পুলিশি হেফাজতে নির্যাতনের অভিযোগ তুলে গত ১০ মার্চ কার্টুনিস্ট কিশোর আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর অজ্ঞাত সদস্যদের বিরুদ্ধে ঢাকা মহানগর দায়রা জজ আদালতে মামলা দায়ের করেন।

এরপর গত ১৪ মার্চ ঢাকা মহানগর দায়রা জজ আদালতের বিচারক কে এম ইমরুল কায়েশ কিশোরকে নির্যাতন করা হয়েওছ কি না তা দেখতে তিন সদস্যের একটি কমিটি গঠন করতে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের পরিচালককে নির্দেশ দেন। এছাড়া মামলাটি পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশনকে (পিবিআই) তদন্তের নির্দেশ দেন তিনি।

কিশোর তার মামলায় অভিযোগ করেন, গত বছরের ২ মে বিকেল সাড়ে ৫টার দিকে কলিং বেলের শব্দে আমার ঘুম ভাঙে। দরজা খুললে অপরিচিত একজন আমাকে বলে, দরজা খোলেন না কেন? পরনের লুঙ্গি খুলে প্যান্ট পরে আসেন। সঙ্গে একটি ভালো শার্ট পরেন। আমি তাদের পরিচয় জানতে চাইলে তারা আমাকে পরিচয় দেয়নি। তাদের আলাপ-আলোচনায় একজনকে জসিম বলে ডাকতে শুনি। সবাই ঘরে ঢুকে তল্লাশি শুরু করেন। তারা আমাকে কোনো গ্রেফতারি পরোয়ানা দেখাতে পারেননি। বাসা থেকে আমার মোবাইল, সিপিইউ ও যত ধরনের ডিজিটাল ডিভাইস ছিল তা অবৈধভাবে নিয়ে যায়।

আমাকে যখন হাতকড়া পরিয়ে বাসার নিচে নামানো হয়, তখন বাসার সামনে ৬/৭টি গাড়ি অপেক্ষা করছিল। আমার বাসার সামনে অনেক লোকজন জড়ো হয় এবং একটি গাড়িতে আমাকে ওঠানো হয়। আমি তখন জোরে জোরে চিৎকার করতে থাকি। কিন্তু গাড়িতে তারা অনেক জোরে শব্দ করে গান বাজাচ্ছিল। হয়তো এজন্য আমার চিৎকার বাইরে শোনা যাচ্ছিল না।

তিনি আরও উল্লেখ করেন, পরে বুঝতে পারলাম আমাকে পুরনো একটি স্যাঁতস্যাঁতে ঘরে নিয়ে আসা হয়েছে। এরপর প্রজেক্টরের মাধ্যমে একটির পর একটি কার্টুন দেখানো হচ্ছিল। সেগুলোর মর্মার্থ জানতে চাওয়া হয়। করোনা নিয়ে আমার কিছু কার্টুন দেখিয়ে সেগুলো আঁকার কারণ জানতে চাওয়া হয়। একপর্যায়ে আমার কানে প্রচণ্ড জোরে আঘাত করা হয়। এরপর আমি বোধশক্তি হারিয়ে ফেলি। বুঝতে পারছিলাম আমার কান দিয়ে রক্ত গড়িয়ে পড়ছে। তারপর স্টিলের পাতের লাঠি দিয়ে আমার হাঁটুতে আঘাত করা হয়। যন্ত্রণা ও ব্যথায় সংজ্ঞাহীন হয়ে পড়ি আমি। এভাবে ২ মে থেকে ৪ মে পর্যন্ত আমাকে শারীরিক ও মানসিকভাবে নির্যাতন করা হয়।

back to top