alt

অপরাধ ও দুর্নীতি

পিকে হালদার সংযোগঃ পশ্চিমবঙ্গে মাছের ব্যবসার আড়ালে বেআইনী অর্থের লেনদেন

সুকুমারের সাথে পিকের যোগের তথ্য পয়েছে ইডি

দীপক মুখার্জী, কলকাতা : শনিবার, ১৪ মে ২০২২

বাংলাদেশের এনারবি ব্যাংকের সাবেক ব্যবস্থাপক প্রশান্ত কুমার হালদার ওরফে পিকে হালদার ও তার সহযগী সুকুমার মৃধার কলকাতা ও সংলগ্ন জেলায় বড় ধরণের অর্থপাচার, বেআইনি আর্থিক লেনদেন সহ

একাধিক ব্যাংক অ্যাকাউন্টের হদিশ মিলেছে।

পলাতক এই অর্থ পাচারকারীর অবৈধ অর্থ ও সম্পত্তির খোঁজ অপরাধীদের নাগালে পেতে

শুক্রবার ভোরে কলকাতা ও অশোকনগর, দমদম, বাইপাস লাগোয়া মোট নয়টি স্থানে বিভিন্ন দলে ভাগ হয়ে তল্লাশি চালায় ভারতীয় এনফোর্সমেন্ট ডিরেক্টরেট(ইডি)।

ইডি সূত্রে জানা গেছে, কলকাতা ও হাওড়ার বড়বাজার দিয়ে বাংলাদেশের টাকা হাওলার মাধ্যমে

রাজ্যের বিভিন্ন জায়গায় লেনদেন করা হচ্ছে এবং কোটি কোটি আর্থিক তছরুপের অভিযোগ রয়েছে। অশোকনগরে তিনটি জায়গায় একসঙ্গে অভিযান চালান ইডি কর্তারা। স্থানীয় সূত্রে জানা গিয়েছে, অশোকনগরের মাছ ব্যবসায়ী সুকুমার মৃধা মূলত বাংলাদেশ থাকেন। বাংলাদেশ থেকে প্রায় ১০ হাজার কোটি টাকা আত্মসাতের অভিযোগ রয়েছে তার বিরুদ্ধে। সাতটি ভুয়ো সংস্থার নামে টাকা তোলা হত। ব্যাংক থেকে ৩০০ কোটি টাকা বেআইনি লেনদেন হয় বলে খবর।

ইডির সূত্রে খবর, সুকুমার মৃধা মাছ ব্যবসার আড়ালে হাওয়ালার মাধ্যমে বাংলাদেশ থেকে টাকা এনে এদেশে বিভিন্ন জায়গায় জমিজায়গা কেনে। অশোকনগরে একাধিক বাড়ি ও দোকান রয়েছে এই সুকুমার মৃধার। এর সঙ্গে যে নাম উঠে আসছে প্রশান্ত হালদার তার মারফত এদেশে টাকা নিয়ে আসে সুকুমার মৃধা। এদিন অশোকনগরে সুকুমার মৃধার সহ প্রণব হালদার ও স্বপন মিশ্রর বাড়িতে একযোগে হানা দেন ইডির আধিকারিকরা।

সুকুমার মৃধার সঙ্গে বেশ কয়েকজন রাজনৈতিক ব্যক্তিত্বের ঘনিষ্ট যোগাযোগ রয়েছে বলে খবর। বাংলাদেশ থেকে হাওয়ালার যে টাকা আসত এদেশে, তা খাটানো হত একাধিক ব্যবসায়। আর এভাবেই পিকের অবৈধ টাকায় এদেশেও জাঁকিয়ে ব্যবসা শুরু করেছে পিকের বিশ্বস্ত সঙ্গী সুকুমার মৃধা। ইডির স্ক্যানারে ধরা পড়েছে সুকুমার ও ঘনিষ্ঠ রাজনৈতিক ব্যক্তিদের নানা কার্যকলাপ। জানা গেছে, অশোকনগরে সুকুমারের বাড়িতে তল্লাশি চালিয়ে বেশ কিছু নথি হাতে পেয়েছেন ইডি আধিকারিকরা।তাতে পিকের যোগের তথ্য রয়েছে। পিকে সহ বাংলাদেশী হাওলার গোটা চক্রের হদিশ পেতে তত্পর কেন্দ্রীয় তদন্তকারী সংস্থা ইডি।মাছের ব্যবসার আড়ালে কোটি কোটি বেআইনী অর্থের লেনদেন, সুকুমারের সাথে পিকের যোগের তথ্য পয়েছে ইডি

দীপক মুখার্জী, কলকাতা

বাংলাদেশের এনারবি ব্যাংকের সাবেক ব্যবস্থাপক প্রশান্ত কুমার হালদার ওরফে পিকে হালদার ও তার সহযগী সুকুমার মৃধার কলকাতা ও সংলগ্ন জেলায় বড় ধরণের অর্থপাচার, বেআইনি আর্থিক লেনদেন সহ

একাধিক ব্যাংক অ্যাকাউন্টের হদিশ মিলেছে।

পলাতক এই অর্থ পাচারকারীর অবৈধ অর্থ ও সম্পত্তির খোঁজ অপরাধীদের নাগালে পেতে

শুক্রবার ভোরে কলকাতা ও অশোকনগর, দমদম, বাইপাস লাগোয়া মোট নয়টি স্থানে বিভিন্ন দলে ভাগ হয়ে তল্লাশি চালায় ভারতীয় এনফোর্সমেন্ট ডিরেক্টরেট(ইডি)।

ইডি সূত্রে জানা গেছে, কলকাতা ও হাওড়ার বড়বাজার দিয়ে বাংলাদেশের টাকা হাওলার মাধ্যমে

রাজ্যের বিভিন্ন জায়গায় লেনদেন করা হচ্ছে এবং কোটি কোটি আর্থিক তছরুপের অভিযোগ রয়েছে। অশোকনগরে তিনটি জায়গায় একসঙ্গে অভিযান চালান ইডি কর্তারা। স্থানীয় সূত্রে জানা গিয়েছে, অশোকনগরের মাছ ব্যবসায়ী সুকুমার মৃধা মূলত বাংলাদেশ থাকেন। বাংলাদেশ থেকে প্রায় ১০ হাজার কোটি টাকা আত্মসাতের অভিযোগ রয়েছে তার বিরুদ্ধে। সাতটি ভুয়ো সংস্থার নামে টাকা তোলা হত। ব্যাংক থেকে ৩০০ কোটি টাকা বেআইনি লেনদেন হয় বলে খবর।

ইডির সূত্রে খবর, সুকুমার মৃধা মাছ ব্যবসার আড়ালে হাওয়ালার মাধ্যমে বাংলাদেশ থেকে টাকা এনে এদেশে বিভিন্ন জায়গায় জমিজায়গা কেনে। অশোকনগরে একাধিক বাড়ি ও দোকান রয়েছে এই সুকুমার মৃধার। এর সঙ্গে যে নাম উঠে আসছে প্রশান্ত হালদার তার মারফত এদেশে টাকা নিয়ে আসে সুকুমার মৃধা। এদিন অশোকনগরে সুকুমার মৃধার সহ প্রণব হালদার ও স্বপন মিশ্রর বাড়িতে একযোগে হানা দেন ইডির আধিকারিকরা।

সুকুমার মৃধার সঙ্গে বেশ কয়েকজন রাজনৈতিক ব্যক্তিত্বের ঘনিষ্ট যোগাযোগ রয়েছে বলে খবর। বাংলাদেশ থেকে হাওয়ালার যে টাকা আসত এদেশে, তা খাটানো হত একাধিক ব্যবসায়। আর এভাবেই পিকের অবৈধ টাকায় এদেশেও জাঁকিয়ে ব্যবসা শুরু করেছে পিকের বিশ্বস্ত সঙ্গী সুকুমার মৃধা। ইডির স্ক্যানারে ধরা পড়েছে সুকুমার ও ঘনিষ্ঠ রাজনৈতিক ব্যক্তিদের নানা কার্যকলাপ। জানা গেছে, অশোকনগরে সুকুমারের বাড়িতে তল্লাশি চালিয়ে বেশ কিছু নথি হাতে পেয়েছেন ইডি আধিকারিকরা।তাতে পিকের যোগের তথ্য রয়েছে। পিকে সহ বাংলাদেশী হাওলার গোটা চক্রের হদিশ পেতে তত্পর কেন্দ্রীয় তদন্তকারী সংস্থা ইডি।

গোপনে গোসলের ভিডিও ধারণ, হুমিক দিয়ে ধর্ষণ, অভিযুক্ত ছাত্রলীগ নেতা গ্রেপ্তার

মৃত্যুদন্ডপ্রাপ্ত জঙ্গি নেতা আবদুল হাই গ্রেপ্তার

ছবি

ইন্টারকন্টিনেন্টাল প্রকৌশলীর মৃত্যু ঘটনায় ২ জনের বিরুদ্ধে মামলা

ছবি

জঙ্গি নেতা আব্দুল হাই: জিজ্ঞাসাবাদে প্রশিক্ষণসহ বোমা হামলার নানা তথ্য স্বীকার করেছে

নোয়াখালীতে ধর্ষণ মামলার বাদীকে প্রাণনাশের হুমকি

ছবি

রমনা বটমূলসহ ২ মামলার ফাঁসির আসামি হুজির সাবেক আমির গ্রেপ্তার

ছবি

সোনালী ব্যাংকের সাবেক এমডিসহ ৯ জনের কারাদণ্ড

ছবি

দুদকের মামলায় সিনহার বিরুদ্ধে প্রতিবেদন পেছাল

ছবি

মিটফোর্ডে নকল ওষুধ মজুদ ও বিক্রি, ভান্ডারি মার্কেটের নাজিমুল গ্রেফতার

ছবি

হাতিরঝিলে বাণিজ্যিক স্থাপনা-ওয়াটার ট্যাক্সি নয়: হাইকোর্ট

ছবি

সম্রাটের জামিন নামঞ্জুর, কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ

ছবি

আত্মসমর্পণ করে জামিন চাইলেন সম্রাট

ছবি

কুমিল্লার নাশকতার মামলায় খালেদা জিয়ার স্থায়ী জামিন

ছবি

খালাস চেয়ে হাজী সেলিমের আপিল, জামিন আবেদন

১২ কাউন্সিলর প্রার্থীর বিরুদ্ধে হত্যাসহ ১১৭ মামলা

ছবি

ই-কমার্স কেলেঙ্কারি: জড়িতদের খুঁজে বের করার নির্দেশ

ছবি

মাস্ক কেনায় কেলেংকারি: ডেল্টার সাবেক প্রশাসক কারাগারে

ছবি

পি কে হালদারকে দেশে ফেরানোর চেষ্টা চলছে: আইজিপি

ছবি

নর্থ সাউথের ৪ ট্রাস্টিকে জেলগেটে জিজ্ঞাসাবাদের নির্দেশ

ছবি

আত্মসমর্পণের পর কারাগারে প্রদীপের স্ত্রী চুমকি

সখীপুরে অর্থ আত্মসাৎ মামলায় অধ্যক্ষ কারাগারে

ঘুমন্ত অবস্থায় পিটিয়ে স্ত্রী ও দুই সন্তানকে হত্যা

খুলনায় ২ জঙ্গির ২০ বছর কারাদন্ড

নোয়াখালীতে ব্যাংক কর্মকর্তার ৩০ বছরের কারাদণ্ড

চৌমুহনীতে ব্যবসায়ী হত্যাঃ ৩ কিশোরের স্বীকারোক্তি, লাশ দাফন

ছবি

জামিন নয়, নর্থ সাউথের ৪ ট্রাস্টিকে পুলিশে দিলো হাইকোর্ট

ইয়াবা নিয়ে সারা দেশে ছড়িয়ে পড়ছে রোহিঙ্গারা

বরিশালে শিক্ষক নিয়োগ পরীক্ষায় গ্রেপ্তার তিন

ছবি

শরীয়তপুরে একসাথে ৪টি বাড়ীতে দুর্বিত্তদের আগুন, বৃদ্ধা নিহত

ছবি

হাজি সেলিমের আত্মসমর্পণ, যেতে হল কারাগারে

ছবি

বদির আবেদন খারিজ, এক বছরের মধ্যে মামলা নিষ্পত্তির নির্দেশ

ছবি

জেএমবির দুই সদস্যের ২০ বছর কারাদণ্ড

থানায় অভিযোগ করায় জেল থেকে বেরিয়ে তরুণকে খুন

ছবি

হাজী সেলিম আজ আদালতে আত্মসমপর্ণ করবেন

ছবি

টেন্ডার ছিনতাইয়ের অভিযোগ ঠিকাদারদের

ছবি

পাচার হওয়া অর্থ দেশে ফেরাতে দুদককে সহযোগিতার প্রস্তাব এফবিআইয়ের

tab

অপরাধ ও দুর্নীতি

পিকে হালদার সংযোগঃ পশ্চিমবঙ্গে মাছের ব্যবসার আড়ালে বেআইনী অর্থের লেনদেন

সুকুমারের সাথে পিকের যোগের তথ্য পয়েছে ইডি

দীপক মুখার্জী, কলকাতা

শনিবার, ১৪ মে ২০২২

বাংলাদেশের এনারবি ব্যাংকের সাবেক ব্যবস্থাপক প্রশান্ত কুমার হালদার ওরফে পিকে হালদার ও তার সহযগী সুকুমার মৃধার কলকাতা ও সংলগ্ন জেলায় বড় ধরণের অর্থপাচার, বেআইনি আর্থিক লেনদেন সহ

একাধিক ব্যাংক অ্যাকাউন্টের হদিশ মিলেছে।

পলাতক এই অর্থ পাচারকারীর অবৈধ অর্থ ও সম্পত্তির খোঁজ অপরাধীদের নাগালে পেতে

শুক্রবার ভোরে কলকাতা ও অশোকনগর, দমদম, বাইপাস লাগোয়া মোট নয়টি স্থানে বিভিন্ন দলে ভাগ হয়ে তল্লাশি চালায় ভারতীয় এনফোর্সমেন্ট ডিরেক্টরেট(ইডি)।

ইডি সূত্রে জানা গেছে, কলকাতা ও হাওড়ার বড়বাজার দিয়ে বাংলাদেশের টাকা হাওলার মাধ্যমে

রাজ্যের বিভিন্ন জায়গায় লেনদেন করা হচ্ছে এবং কোটি কোটি আর্থিক তছরুপের অভিযোগ রয়েছে। অশোকনগরে তিনটি জায়গায় একসঙ্গে অভিযান চালান ইডি কর্তারা। স্থানীয় সূত্রে জানা গিয়েছে, অশোকনগরের মাছ ব্যবসায়ী সুকুমার মৃধা মূলত বাংলাদেশ থাকেন। বাংলাদেশ থেকে প্রায় ১০ হাজার কোটি টাকা আত্মসাতের অভিযোগ রয়েছে তার বিরুদ্ধে। সাতটি ভুয়ো সংস্থার নামে টাকা তোলা হত। ব্যাংক থেকে ৩০০ কোটি টাকা বেআইনি লেনদেন হয় বলে খবর।

ইডির সূত্রে খবর, সুকুমার মৃধা মাছ ব্যবসার আড়ালে হাওয়ালার মাধ্যমে বাংলাদেশ থেকে টাকা এনে এদেশে বিভিন্ন জায়গায় জমিজায়গা কেনে। অশোকনগরে একাধিক বাড়ি ও দোকান রয়েছে এই সুকুমার মৃধার। এর সঙ্গে যে নাম উঠে আসছে প্রশান্ত হালদার তার মারফত এদেশে টাকা নিয়ে আসে সুকুমার মৃধা। এদিন অশোকনগরে সুকুমার মৃধার সহ প্রণব হালদার ও স্বপন মিশ্রর বাড়িতে একযোগে হানা দেন ইডির আধিকারিকরা।

সুকুমার মৃধার সঙ্গে বেশ কয়েকজন রাজনৈতিক ব্যক্তিত্বের ঘনিষ্ট যোগাযোগ রয়েছে বলে খবর। বাংলাদেশ থেকে হাওয়ালার যে টাকা আসত এদেশে, তা খাটানো হত একাধিক ব্যবসায়। আর এভাবেই পিকের অবৈধ টাকায় এদেশেও জাঁকিয়ে ব্যবসা শুরু করেছে পিকের বিশ্বস্ত সঙ্গী সুকুমার মৃধা। ইডির স্ক্যানারে ধরা পড়েছে সুকুমার ও ঘনিষ্ঠ রাজনৈতিক ব্যক্তিদের নানা কার্যকলাপ। জানা গেছে, অশোকনগরে সুকুমারের বাড়িতে তল্লাশি চালিয়ে বেশ কিছু নথি হাতে পেয়েছেন ইডি আধিকারিকরা।তাতে পিকের যোগের তথ্য রয়েছে। পিকে সহ বাংলাদেশী হাওলার গোটা চক্রের হদিশ পেতে তত্পর কেন্দ্রীয় তদন্তকারী সংস্থা ইডি।মাছের ব্যবসার আড়ালে কোটি কোটি বেআইনী অর্থের লেনদেন, সুকুমারের সাথে পিকের যোগের তথ্য পয়েছে ইডি

দীপক মুখার্জী, কলকাতা

বাংলাদেশের এনারবি ব্যাংকের সাবেক ব্যবস্থাপক প্রশান্ত কুমার হালদার ওরফে পিকে হালদার ও তার সহযগী সুকুমার মৃধার কলকাতা ও সংলগ্ন জেলায় বড় ধরণের অর্থপাচার, বেআইনি আর্থিক লেনদেন সহ

একাধিক ব্যাংক অ্যাকাউন্টের হদিশ মিলেছে।

পলাতক এই অর্থ পাচারকারীর অবৈধ অর্থ ও সম্পত্তির খোঁজ অপরাধীদের নাগালে পেতে

শুক্রবার ভোরে কলকাতা ও অশোকনগর, দমদম, বাইপাস লাগোয়া মোট নয়টি স্থানে বিভিন্ন দলে ভাগ হয়ে তল্লাশি চালায় ভারতীয় এনফোর্সমেন্ট ডিরেক্টরেট(ইডি)।

ইডি সূত্রে জানা গেছে, কলকাতা ও হাওড়ার বড়বাজার দিয়ে বাংলাদেশের টাকা হাওলার মাধ্যমে

রাজ্যের বিভিন্ন জায়গায় লেনদেন করা হচ্ছে এবং কোটি কোটি আর্থিক তছরুপের অভিযোগ রয়েছে। অশোকনগরে তিনটি জায়গায় একসঙ্গে অভিযান চালান ইডি কর্তারা। স্থানীয় সূত্রে জানা গিয়েছে, অশোকনগরের মাছ ব্যবসায়ী সুকুমার মৃধা মূলত বাংলাদেশ থাকেন। বাংলাদেশ থেকে প্রায় ১০ হাজার কোটি টাকা আত্মসাতের অভিযোগ রয়েছে তার বিরুদ্ধে। সাতটি ভুয়ো সংস্থার নামে টাকা তোলা হত। ব্যাংক থেকে ৩০০ কোটি টাকা বেআইনি লেনদেন হয় বলে খবর।

ইডির সূত্রে খবর, সুকুমার মৃধা মাছ ব্যবসার আড়ালে হাওয়ালার মাধ্যমে বাংলাদেশ থেকে টাকা এনে এদেশে বিভিন্ন জায়গায় জমিজায়গা কেনে। অশোকনগরে একাধিক বাড়ি ও দোকান রয়েছে এই সুকুমার মৃধার। এর সঙ্গে যে নাম উঠে আসছে প্রশান্ত হালদার তার মারফত এদেশে টাকা নিয়ে আসে সুকুমার মৃধা। এদিন অশোকনগরে সুকুমার মৃধার সহ প্রণব হালদার ও স্বপন মিশ্রর বাড়িতে একযোগে হানা দেন ইডির আধিকারিকরা।

সুকুমার মৃধার সঙ্গে বেশ কয়েকজন রাজনৈতিক ব্যক্তিত্বের ঘনিষ্ট যোগাযোগ রয়েছে বলে খবর। বাংলাদেশ থেকে হাওয়ালার যে টাকা আসত এদেশে, তা খাটানো হত একাধিক ব্যবসায়। আর এভাবেই পিকের অবৈধ টাকায় এদেশেও জাঁকিয়ে ব্যবসা শুরু করেছে পিকের বিশ্বস্ত সঙ্গী সুকুমার মৃধা। ইডির স্ক্যানারে ধরা পড়েছে সুকুমার ও ঘনিষ্ঠ রাজনৈতিক ব্যক্তিদের নানা কার্যকলাপ। জানা গেছে, অশোকনগরে সুকুমারের বাড়িতে তল্লাশি চালিয়ে বেশ কিছু নথি হাতে পেয়েছেন ইডি আধিকারিকরা।তাতে পিকের যোগের তথ্য রয়েছে। পিকে সহ বাংলাদেশী হাওলার গোটা চক্রের হদিশ পেতে তত্পর কেন্দ্রীয় তদন্তকারী সংস্থা ইডি।

back to top