alt

সংস্কৃতি

নজরুল সংগীত উৎসবে মুগ্ধতা ছড়ালেন দুই দেশের শিল্পীরা

বিনোদন বার্তা পরিবেশক : রোববার, ১৩ মার্চ ২০২২

https://sangbad.net.bd/images/2022/March/13Mar22/news/nazrul02.jpg

দুই দিনব্যাপী জাতীয় নজরুল সংগীত উৎসব শেষ হয়েছে। শনিবার (১২ মার্চ) গুলশান লেক পার্কে দুই দেশের প্রখ্যাত শিল্পীদের পরিবেশনার মধ্য দিয়ে রাত ১০টায় এ উৎসব শেষ হয়। গত শুক্রবার বিকেলে এই উৎসবের উদ্বোধন করেন সংস্কৃতি প্রতিমন্ত্রী কেএম খালিদ। এদিন আলাচনায় অংশ নেন সাবেক প্রধান নির্বাচন কমিশনার এটিএম শামসুল হুদা ও কবির নাতনি খিলখিল কাজী। স্বাগত বক্তব্য রাখেন নজরুল সংগীত সংস্থার সাধারণ সম্পাদক খায়রুল আনাম শাকিল। এএইচএসবিসি ব্যাংকের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা (সিইও) মাহবুবুর রহমানের পক্ষে বক্তব্য দেন আহমেদ সাইফুল ইসলাম। গুলশান সোসাইটির সহযোগিতায় আয়োজনের পৃষ্ঠপোষকতার ভূমিকা পালন করে এইচএসবিসি ব্যাংক।

https://sangbad.net.bd/images/2022/March/13Mar22/news/nazrul03.jpg

শনিবার দুই দেশের প্রখ্যাত শিল্পীদের মধ্যে সংগীত পরিবেশনা করেন অন্তরা ভট্টাচার্য, অরুপ বিশ্বাস, আফরোজা খান মিতা, আরিফা নিশাত, ইয়াকুব আরী খান, ইলা চৌধুরী, ঐশী হালদার, করিম হাসান খান, খন্দকার আনিকা ইসলাম, গোলজার হোসেইন উজ্বল, ছন্দা চক্রবর্তী, জয়িতা অর্পা, নন্দিতা দিশা, নাশিদ কামাল, নাসিমা শাহীন ফ্যান্সি, পরিতোষ ম-ল, প্রিয়াংকা গোপ, ফারহ্ দিবা খান লাবণ্য, ফেরদৌস আড়া, বিজন মিস্ত্রী, বিপুল কুমার, মাহমুদুল হাসান, মৃদুলা সমদ্দার, মুহিত খান, রূম্পা চৌধুরী, শ্রান্তী ধর, শ্রীকান্ত আচার্য, সঞ্জয় হালদার, সামিয়া সাদাফ, সিরাজুম মনিরা, সুজাতা বড়ুয়া, সুনীল সূত্রধর, সুস্মিতা গোস্বামী।

https://sangbad.net.bd/images/2022/March/13Mar22/news/nazrul04.jpg

বাংলাদেশ ও ভারতের খ্যাতিমান শিল্পীদের সঙ্গে ছিল উভয় দেশের উদীয়মান শিল্পীদের পরিবেশনা। তারা গান ও কবিতায় মুগ্ধতা ছড়ান। জাতীয় অধ্যাপক রফিকুল ইসলামকে উৎসর্গকৃত এ উৎসবে সম্পৃক্ত হন দুই দেশের শতাধিক শিল্পী। স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী উপলক্ষে নজরুল চর্চাকে ছড়িয়ে দেয়ার প্রয়াসে যৌথভাবে এ উৎসবের আয়োজন করে বাংলাদেশ নজরুল সংগীত সংস্থা ও অরুণরঞ্জনী।

শুক্রবার আলোচনার পর্বে রফিকুল ইসলামের স্মৃতিচারণ করেন তার সহধর্মিণী জাহানারা ইসলাম। তিনি বলেন, মানুষটি তার সারা জীবন নজরুলের জন্য নিবেদন করে গেছেন। সে সুবাদে নজরুলের এ উৎসবের সঙ্গে মিশে থাকবে তার সেই মননশীল প্রয়াস। খিলখিল কাজী বলেন, নজরুলের গান-কবিতাকে সঙ্গী করে সমাজ থেকে দূর করতে হবে অনাচার। অমানবিকতাকে রুখে দিয়ে গাইতে হবে মানবতার জয়গান।

সাম্প্রদায়িকতার বিভাজন সরিয়ে গড়তে হবে সম্প্রীতির বাংলাদেশ।

খায়রুল আনাম শাকিল বলেন, ‘এ উৎসবের মাধ্যমে আমরা একইসঙ্গে নজরুলের গান এবং জীবনদর্শনকে সারাদেশে ছড়িয়ে দিতে চাই। জাতীয় কবিকে আমরা জাতীয়ভাবেই মূল্যায়ন করতে চাই। তৃণমূলে ছড়িয়ে দিতে চাই নজরুলচর্চা। পাশাপাশি এ আয়োজনের মাধ্যমে নতুন প্রজন্মের নজরুল সংগীত শিল্পীদের জন্য একটি প্লাটফর্ম গড়ার প্রয়াস নেয়া হয়েছে।’

https://sangbad.net.bd/images/2022/March/13Mar22/news/nazurl01.jpg

পরিবেশনা পর্বের শুরুতে ‘দাও শৌর্য দাও ধৈর্য হে উদার নাথ’ গানের সুরে শর্মিলা বন্দোপাধ্যায়ের পরিচালনায় পরিবেশিত হয় সমবেত নৃত্য। নাচের পর তমা সরকার শুনিয়েছেন ‘তুমি আরেকটি দিন থাকো’। তাহরিমা বতুল রিভা গেয়েছেন ‘হেমন্তিকা এসো এসো’। সুদীপ্ত দাশ শুভ পরিবেশন করেন ‘জাগো হে রুদ্র’। বর্ণালী সরকার গেয়েছেন ‘কে নিবি মালিকা’। পরের পরিবেশনায় কবিতা নিয়ে মঞ্চে আসেন সুমনা বিশ্বাস। ঐশ্বর্য সমদ্দার পরিবেশন করেন ‘ভরিয়া পরাণ শুনিতেছি গান’। সানজিদা বীথিকা শুনিয়েছেন ‘কার বাঁশরি বাজে’। রেজাউল করিমের গাওয়া গানের শিরোনাম ছিল ‘আমি যদি আরব হতাম মদিনার পথ’। ‘এল ফুলের মরসুম’ শীর্ষক সংগীত পরিবেশন করেন সাওদা সাইরা প্রাচী। সালেক হোসেনের কণ্ঠে গীত হয় ‘ওই নন্দন নন্দিনী দয়িতা’। সম্মেলক কণ্ঠে পরিবেশিত ‘তোরা সব জয়ধ্বনি কর’ গানের সুরে নৃত্য পরিবেশন করেন সামিনা হোসেন প্রেমা। সালাউদ্দিন আহমেদ পরিবেশন করেন ‘আনো সাকী সিরাজী আনো’। খিলখিল কাজীর কণ্ঠে গীত হয় ‘তোমার এ চোখ ইশারায়’। যাবিন তাসনিম রাফা গেয়েছেন ‘ফাগুন রাতের ফুলের নেশায়’। লুবাবা ইসলাম শুনিয়েছেন ‘ভীরু এ মনের কলি’। এছড়া একক কণ্ঠে সংগীত পরিবেশন করেন ভারতের শিল্পী শ্রীরাধা বন্দ্যোপাধ্যায় শুনিয়েছেন ‘নয়নে নিদ নাহি’। ইয়াসমিন মুশতারী শুনিয়েছেন ‘গহীন রাতে’।

উদীচী জবি সংসদের সভাপতি বিপু,সম্পাদক মুক্ত

ছবি

ছায়ানটের ‘ভাষা-সংস্কৃতির আলাপ’-এ অংশগ্রহনের আহবান

ছবি

বেদনাবিধুর ইতিহাসের ‘অভিশপ্ত আগস্ট’ মঞ্চায়ন

চাঁদপুর জেলা উদীচীর সভাপতি কৃষ্ণা সাহা;সম্পাদক জহির উদ্দিন বাবর

ছবি

নিউইয়র্কে অনুষ্ঠিত হলো ‘মুজিব আমার পিতা’র ওয়ার্ল্ড প্রিমিয়ার

ছবি

বিশিষ্ট গীতিকার, কলামিষ্ট কেজি মোস্তফা মারা গেছেন।

ছবি

প্রয়াত বাচিকশিল্পী পার্থ ঘোষ, আবৃত্তি জগতে বিষাদের ছায়া

ছবি

রাখাইনদের জলকেলি উৎসব: অশুভ বিদায়ের প্রত্যাশা

নববর্ষের কবিতা

ছবি

স্মৃতির দরজা খুলে

ছবি

দুঃসময় কাটিয়ে উৎসবে বরণ বাংলা নববর্ষ

ছবি

কক্সবাজারে রাখাইনদের জলকেলি উৎসবের আনুষ্ঠানিকতা চলছে

ছবি

রক্তের আলো

ছবি

উৎসব ও চেতনায় পহেলা বৈশাখ

ছবি

পহেলা বৈশাখের স্মৃতি

ছবি

নববর্ষ ও বাঙালির আত্মপরিচয়

ছবি

দুই বছর পর একটুকরো চমৎকার সকাল

ছবি

ছায়ানটের বর্ষবরণ অনুষ্ঠানের প্রতিপাদ্য বিষয় ‘নব আনন্দে জাগো’

ছবি

আগরতলায় বাংলাদেশের অন্যপ্রকাশ

ছবি

প্রকৃতিমুগ্ধতা, প্রথাহীনতায় ‘শালুক’-এর সাহিত্যআড্ডা

ছবি

দুই বছর পর ঢাবিতে মঙ্গল শোভাযাত্রা

জবিতে ‘জীবন রসায়নে বঙ্গবন্ধু’ গ্রন্থের মোড়ক উন্মোচন

নওগাঁয় নাটক পালপাড়ার রক্তাক্ত প্লাবন মঞ্চায়িত

অস্কার আসরে ইউক্রেনের জন্য নীরবতা পালন

ছবি

স্বাধীনতা পুরস্কার সাহিত্যে, প্রয়াত মুক্তিযোদ্ধা আমির হামজা আলোচনায়

ছবি

ওবায়েদ আকাশের নতুন কাব্যগ্রন্থ ‘কাগুজে দিন, কাগুজে রাত’

ছবি

শুক্লা গঙ্গোপাধ্যায়ের ‘সহস্রার মূলাধার’

ছবি

ঢাবির মঞ্চে ‘ওয়েটিং ফর গডো’

ছবি

পার্থ সনজয়ের কান ডায়েরি

ছবি

ঢাকা থেকে পুরস্কৃত হলো একমাত্র ‘শালুক’

ছবি

চাঁদপুরে ঐতিহ্যবাহী ‘সংবাদ’ এর আয়োজনে সাহিত্য আড্ডা ও মতবিনিময়

ছবি

বাংলাদেশ-ভারত সাংস্কৃতিক মেলা রাজশাহীতে

ছবি

নারায়ণগঞ্জে পাঠাগারে সাংস্কৃতিক উৎসব ও গুণীজন সম্মাননা

ছবি

রাজশাহীতে বাংলাদেশ-ভারত সাংস্কৃতিক মিলনমেলা

ছবি

কলকাতা বইমেলা শুরু সোমবার, থিমকান্ট্রি বাংলাদেশ

ছবি

ফেইসবুকে সাময়িক নিষিদ্ধ তসলিমা নাসরিন

tab

সংস্কৃতি

নজরুল সংগীত উৎসবে মুগ্ধতা ছড়ালেন দুই দেশের শিল্পীরা

বিনোদন বার্তা পরিবেশক

রোববার, ১৩ মার্চ ২০২২

https://sangbad.net.bd/images/2022/March/13Mar22/news/nazrul02.jpg

দুই দিনব্যাপী জাতীয় নজরুল সংগীত উৎসব শেষ হয়েছে। শনিবার (১২ মার্চ) গুলশান লেক পার্কে দুই দেশের প্রখ্যাত শিল্পীদের পরিবেশনার মধ্য দিয়ে রাত ১০টায় এ উৎসব শেষ হয়। গত শুক্রবার বিকেলে এই উৎসবের উদ্বোধন করেন সংস্কৃতি প্রতিমন্ত্রী কেএম খালিদ। এদিন আলাচনায় অংশ নেন সাবেক প্রধান নির্বাচন কমিশনার এটিএম শামসুল হুদা ও কবির নাতনি খিলখিল কাজী। স্বাগত বক্তব্য রাখেন নজরুল সংগীত সংস্থার সাধারণ সম্পাদক খায়রুল আনাম শাকিল। এএইচএসবিসি ব্যাংকের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা (সিইও) মাহবুবুর রহমানের পক্ষে বক্তব্য দেন আহমেদ সাইফুল ইসলাম। গুলশান সোসাইটির সহযোগিতায় আয়োজনের পৃষ্ঠপোষকতার ভূমিকা পালন করে এইচএসবিসি ব্যাংক।

https://sangbad.net.bd/images/2022/March/13Mar22/news/nazrul03.jpg

শনিবার দুই দেশের প্রখ্যাত শিল্পীদের মধ্যে সংগীত পরিবেশনা করেন অন্তরা ভট্টাচার্য, অরুপ বিশ্বাস, আফরোজা খান মিতা, আরিফা নিশাত, ইয়াকুব আরী খান, ইলা চৌধুরী, ঐশী হালদার, করিম হাসান খান, খন্দকার আনিকা ইসলাম, গোলজার হোসেইন উজ্বল, ছন্দা চক্রবর্তী, জয়িতা অর্পা, নন্দিতা দিশা, নাশিদ কামাল, নাসিমা শাহীন ফ্যান্সি, পরিতোষ ম-ল, প্রিয়াংকা গোপ, ফারহ্ দিবা খান লাবণ্য, ফেরদৌস আড়া, বিজন মিস্ত্রী, বিপুল কুমার, মাহমুদুল হাসান, মৃদুলা সমদ্দার, মুহিত খান, রূম্পা চৌধুরী, শ্রান্তী ধর, শ্রীকান্ত আচার্য, সঞ্জয় হালদার, সামিয়া সাদাফ, সিরাজুম মনিরা, সুজাতা বড়ুয়া, সুনীল সূত্রধর, সুস্মিতা গোস্বামী।

https://sangbad.net.bd/images/2022/March/13Mar22/news/nazrul04.jpg

বাংলাদেশ ও ভারতের খ্যাতিমান শিল্পীদের সঙ্গে ছিল উভয় দেশের উদীয়মান শিল্পীদের পরিবেশনা। তারা গান ও কবিতায় মুগ্ধতা ছড়ান। জাতীয় অধ্যাপক রফিকুল ইসলামকে উৎসর্গকৃত এ উৎসবে সম্পৃক্ত হন দুই দেশের শতাধিক শিল্পী। স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী উপলক্ষে নজরুল চর্চাকে ছড়িয়ে দেয়ার প্রয়াসে যৌথভাবে এ উৎসবের আয়োজন করে বাংলাদেশ নজরুল সংগীত সংস্থা ও অরুণরঞ্জনী।

শুক্রবার আলোচনার পর্বে রফিকুল ইসলামের স্মৃতিচারণ করেন তার সহধর্মিণী জাহানারা ইসলাম। তিনি বলেন, মানুষটি তার সারা জীবন নজরুলের জন্য নিবেদন করে গেছেন। সে সুবাদে নজরুলের এ উৎসবের সঙ্গে মিশে থাকবে তার সেই মননশীল প্রয়াস। খিলখিল কাজী বলেন, নজরুলের গান-কবিতাকে সঙ্গী করে সমাজ থেকে দূর করতে হবে অনাচার। অমানবিকতাকে রুখে দিয়ে গাইতে হবে মানবতার জয়গান।

সাম্প্রদায়িকতার বিভাজন সরিয়ে গড়তে হবে সম্প্রীতির বাংলাদেশ।

খায়রুল আনাম শাকিল বলেন, ‘এ উৎসবের মাধ্যমে আমরা একইসঙ্গে নজরুলের গান এবং জীবনদর্শনকে সারাদেশে ছড়িয়ে দিতে চাই। জাতীয় কবিকে আমরা জাতীয়ভাবেই মূল্যায়ন করতে চাই। তৃণমূলে ছড়িয়ে দিতে চাই নজরুলচর্চা। পাশাপাশি এ আয়োজনের মাধ্যমে নতুন প্রজন্মের নজরুল সংগীত শিল্পীদের জন্য একটি প্লাটফর্ম গড়ার প্রয়াস নেয়া হয়েছে।’

https://sangbad.net.bd/images/2022/March/13Mar22/news/nazurl01.jpg

পরিবেশনা পর্বের শুরুতে ‘দাও শৌর্য দাও ধৈর্য হে উদার নাথ’ গানের সুরে শর্মিলা বন্দোপাধ্যায়ের পরিচালনায় পরিবেশিত হয় সমবেত নৃত্য। নাচের পর তমা সরকার শুনিয়েছেন ‘তুমি আরেকটি দিন থাকো’। তাহরিমা বতুল রিভা গেয়েছেন ‘হেমন্তিকা এসো এসো’। সুদীপ্ত দাশ শুভ পরিবেশন করেন ‘জাগো হে রুদ্র’। বর্ণালী সরকার গেয়েছেন ‘কে নিবি মালিকা’। পরের পরিবেশনায় কবিতা নিয়ে মঞ্চে আসেন সুমনা বিশ্বাস। ঐশ্বর্য সমদ্দার পরিবেশন করেন ‘ভরিয়া পরাণ শুনিতেছি গান’। সানজিদা বীথিকা শুনিয়েছেন ‘কার বাঁশরি বাজে’। রেজাউল করিমের গাওয়া গানের শিরোনাম ছিল ‘আমি যদি আরব হতাম মদিনার পথ’। ‘এল ফুলের মরসুম’ শীর্ষক সংগীত পরিবেশন করেন সাওদা সাইরা প্রাচী। সালেক হোসেনের কণ্ঠে গীত হয় ‘ওই নন্দন নন্দিনী দয়িতা’। সম্মেলক কণ্ঠে পরিবেশিত ‘তোরা সব জয়ধ্বনি কর’ গানের সুরে নৃত্য পরিবেশন করেন সামিনা হোসেন প্রেমা। সালাউদ্দিন আহমেদ পরিবেশন করেন ‘আনো সাকী সিরাজী আনো’। খিলখিল কাজীর কণ্ঠে গীত হয় ‘তোমার এ চোখ ইশারায়’। যাবিন তাসনিম রাফা গেয়েছেন ‘ফাগুন রাতের ফুলের নেশায়’। লুবাবা ইসলাম শুনিয়েছেন ‘ভীরু এ মনের কলি’। এছড়া একক কণ্ঠে সংগীত পরিবেশন করেন ভারতের শিল্পী শ্রীরাধা বন্দ্যোপাধ্যায় শুনিয়েছেন ‘নয়নে নিদ নাহি’। ইয়াসমিন মুশতারী শুনিয়েছেন ‘গহীন রাতে’।

back to top