alt

আন্তর্জাতিক

মায়ানমার-থাই সীমান্তে আবারও বিদ্রোহীদের হামলা

থাইল্যান্ডে পালাচ্ছে মানুষ

সংবাদ অনলাইন রিপোর্ট : শনিবার, ২০ এপ্রিল ২০২৪

আটকে থাকা জান্তা সেনাদের লক্ষ্য করে এবার মায়ানমার-থাই সীমান্তে যুদ্ধে লিপ্ত হয়েছে বিদ্রোহীরা। শনিবার সকালে থাইল্যান্ডের সঙ্গে মায়ানমারের পূর্ব সীমান্তে সংঘর্ষের খবর পাওয়া গেছে। সংঘর্ষের ভয়ে প্রাণ নিয়ে সীমান্ত পেরিয়ে থাইল্যান্ডে পালিয়েছেন ২০০ বেসামরিক। প্রত্যক্ষদর্শী, মিডিয়া এবং থাই সরকারের বরাতে রয়টার্স এই খবর জানিয়েছে।

১১ এপ্রিল সীমান্তবর্তী প্রধান বাণিজ্য শহর মায়াবতী দখল করে প্রতিরোধ যোদ্ধা এবং জাতিগত সংখ্যালঘু বিদ্রোহীরা। ঘটনাটি সামরিক জান্তার জন্য একটি বড় ধরনের ধাক্কা ছিল। এই ঘটনার পর থাই-মায়ানমার সীমান্তবর্তী একটি ক্রসিং সেতুতে আশ্রয় নেন প্রায় ২০০ জান্তা সেনা। তাদের লক্ষ্য করেই শনিবারের এই হামলার পরিচালনা করে বিদ্রোহীরা।

থাই এবং মায়ানমারের সীমান্তবর্তী অঞ্চলের তিন প্রত্যক্ষদর্শী বলেছেন, শুক্রবার গভীর রাত থেকে একটি কৌশলগত সেতুর কাছে বিস্ফোরণ এবং ভারী মেশিনগানের গোলাগুলির শব্দ শুনেছেন তারা। এই শব্দ শনিবার ভোর পর্যন্ত অব্যাহত ছিল। বেশ কয়েকটি থাই মিডিয়া জানিয়েছে, তাৎক্ষণিক আশ্রয়ের আশায় সীমান্ত পেরিয়ে থাইল্যান্ডে গেছেন প্রায় ২০০ মানুষ।

থাই সম্প্রচারকারী এনবিটি সোশ্যাল মিডিয়া প্ল্যাটফর্ম এক্স-এ করা একটি পোস্টে বলেছে, জান্তা সেনাদের লক্ষ্য করে প্রতিরোধ বাহিনী ৪০ মিলিমিটার মেশিনগান ব্যবহার করেছে এবং ড্রোন ব্যবহার করে ২০টি বোমা ফেলেছে। তাদের লক্ষ্যবস্তু হওয়া জান্তা সেনারা ৫ এপ্রিলে থেকে মায়াবতী এবং সেনা পোস্টে সম্মিলিত বিদ্রোহী হামলা থেকে বাচতে সীমান্তবর্তী একটি সেতু ক্রসিংয়ে আশ্রয় নিয়েছিল। সেখানে আনুমানিক ২০০ জান্তা সেনা আশ্রয় নিয়েছেন।

অবিলম্বে এই তথ্যগুলো যাচাই করতে পারেনি রয়টার্স। এ বিষয়ে মন্তব্যের জন্য মায়ানমার জান্তার মুখপাত্রের সঙ্গে তাৎক্ষণিকভাবে কোনও যোগাযোগ করতে পারেনি বার্তা সংস্থাটি। সীমান্তের এই অস্থিরতা নিবিড়ভাবে পর্যবেক্ষণ করার কথা বলেছেন থাই প্রধানমন্ত্রী স্রেথা থাভিসিন। প্রয়োজনে তার দেশ মানবিক সহায়তা দিতে প্রস্তুত রয়েছে বলেও জানিয়েছেন।

সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম এক্সে তিনি বলেন, ‘এই ধরনের কোনও সংঘর্ষ থাইল্যান্ডের আঞ্চলিক অখ-তার ওপর কোন প্রভাব ফেলুক তা আমরা দেখতে চাই না। আমাদের সীমানা এবং জনসাধারণের নিরাপত্তা রক্ষায় আমরা প্রস্তুত।’ তবে ওই পোস্টে উদ্বাস্তুদের বিষয়ে কিছু উল্লেখ করেননি তিনি।

ছবি

ইসরায়েলের আরও ৩ জিম্মির মরদেহ উদ্ধার

ছবি

জর্জিয়ার ওপর ভিসা নিষেধাজ্ঞা দিচ্ছে যুক্তরাষ্ট্র

ছবি

ভিয়েতনামে বহুতল ভবনে অগ্নিকাণ্ডে নিহত ১৪

ছবি

তীর্থে যাওয়ার পথে সড়ক দুর্ঘটনায় একই পরিবারের নিহত ৭

ছবি

মায়ানমারের রাখাইনে নতুন সংঘাত, উদ্বাস্তু হাজারো মানুষ

ছবি

সিঙ্গাপুর এয়ারলাইন্সের সেই ফ্লাইটের ২০ আরোহী আইসিইউতে

ছবি

আমেরিকার কাছে সিরিজ হারের পর যা বললেন সাকিব

ছবি

গাজাজুড়ে ইসরায়েলের ভয়াবহ হামলা, নিহত অন্তত ৫০

ছবি

তাইওয়ানের চারপাশে চীনের সামরিক মহড়া ‘উদ্বেগজনক’ : যুক্তরাষ্ট্র

ছবি

প্যালেস্টাইন রাষ্ট্রকে ‘একতরফা স্বীকৃতি’ দেয়ার বিরোধিতা হোয়াইট হাউসের

ছবি

মেক্সিকোয় নির্বাচনী প্রচারণার মঞ্চ ভেঙে নিহত ৯

ছবি

গাজা যুদ্ধ : মধ্যস্থতাকারীর ভূমিকা থেকে সরে যাওয়ার হুমকি মিসরের

ছবি

গাজায় আরও হামলা চালানোর হুমকি ইসরায়েলের

ছবি

আগাম নির্বাচনের ঘোষণা যুক্তরাজ্যে

ছবি

দুবাই মেট্রো রেড লাইন পরিষেবা ২ ঘন্টা পর পুনরায় চালু

ছবি

ফিলিস্তিনকে আজই রাষ্ট্রের স্বীকৃতি দেবে আয়ারল্যান্ড: রয়টার্স

ছবি

নাইজেরিয়ায় বন্দুকধারীদের গুলিতে নিহত ৪০

ছবি

অনলাইনে প্রয়াত প্রেসিডেন্টকে ‘অপমানকারীদের’ গ্রেপ্তারের নির্দেশ

ছবি

ভারতের উত্তরে তীব্র তাপপ্রবাহ, দক্ষিণে ভারী বৃষ্টির পূর্বাভাস

ছবি

হেলিকপ্টার বিধ্বস্তে রাইসির মৃত্যু, যুক্তরাষ্ট্রের সহায়তা পায়নি ইরান

ছবি

ইসরায়েলি বাহিনী গাজায় গণহত্যা চালাচ্ছে না : বাইডেন

ছবি

রাইসির মৃত্যুতে ইরানে পাঁচ দিনের শোক

ছবি

রাইসির মৃত্যুতে বিশ্বনেতাদের শোক

ছবি

ইরানে হেলিকপ্টার বিধ্বস্ত, প্রেসিডেন্ট রাইসির লাশ উদ্ধার

ছবি

ইরানের অন্তর্বর্তীকালীন প্রেসিডেন্ট হচ্ছেন মোহাম্মদ মোখবার

ছবি

হেলিকপ্টার বিধ্বস্ত : ইরানের রাষ্ট্রপতি, পররাষ্ট্রমন্ত্রীর মারা গেছেন

ছবি

রাইসিকে বহনকারী হেলিকপ্টারের ধ্বংসাবশেষের ছবি-ভিডিও প্রকাশ্যে

ছবি

ভারতে লোকসভা নির্বাচনের ৫ম দফার ভোটগ্রহণ শুরু

ছবি

দূঘর্টনায় পড়া ইরানের প্রেসিডেন্টকে উদ্ধারে চলছে অনুসন্ধান

ছবি

বাড়ির উঠানে পাওয়া গ্রেনেড নিয়ে খেলছিলো শিশুরা, খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে বোমা ডিসপোজাল ইউনিট

ছবি

ইরানের প্রেসিডেন্টকে বহনকারী হেলিকপ্টার বিধ্বস্ত

ছবি

দুর্ঘটনার কবলে ইরানের প্রেসিডেন্টকে বহনকারী হেলিকপ্টার

ছবি

যুদ্ধোত্তর পরিকল্পনা না করলে পদত্যাগের হুমকি ইসরায়েলি মন্ত্রীর

ছবি

২৪ ঘণ্টায় অন্তত ১২১ ফিলিস্তিনিকে হত্যা করেছে ইসরায়েল

ছবি

ট্রাম্পের মস্তিষ্ক বিকৃত, গণতন্ত্রের জন্য হুমকি বাইডেন

ছবি

ইসরায়েলকে লক্ষ্য করে ৭৫টি রকেট ছুড়ল হিজবুল্লাহ

tab

আন্তর্জাতিক

মায়ানমার-থাই সীমান্তে আবারও বিদ্রোহীদের হামলা

থাইল্যান্ডে পালাচ্ছে মানুষ

সংবাদ অনলাইন রিপোর্ট

শনিবার, ২০ এপ্রিল ২০২৪

আটকে থাকা জান্তা সেনাদের লক্ষ্য করে এবার মায়ানমার-থাই সীমান্তে যুদ্ধে লিপ্ত হয়েছে বিদ্রোহীরা। শনিবার সকালে থাইল্যান্ডের সঙ্গে মায়ানমারের পূর্ব সীমান্তে সংঘর্ষের খবর পাওয়া গেছে। সংঘর্ষের ভয়ে প্রাণ নিয়ে সীমান্ত পেরিয়ে থাইল্যান্ডে পালিয়েছেন ২০০ বেসামরিক। প্রত্যক্ষদর্শী, মিডিয়া এবং থাই সরকারের বরাতে রয়টার্স এই খবর জানিয়েছে।

১১ এপ্রিল সীমান্তবর্তী প্রধান বাণিজ্য শহর মায়াবতী দখল করে প্রতিরোধ যোদ্ধা এবং জাতিগত সংখ্যালঘু বিদ্রোহীরা। ঘটনাটি সামরিক জান্তার জন্য একটি বড় ধরনের ধাক্কা ছিল। এই ঘটনার পর থাই-মায়ানমার সীমান্তবর্তী একটি ক্রসিং সেতুতে আশ্রয় নেন প্রায় ২০০ জান্তা সেনা। তাদের লক্ষ্য করেই শনিবারের এই হামলার পরিচালনা করে বিদ্রোহীরা।

থাই এবং মায়ানমারের সীমান্তবর্তী অঞ্চলের তিন প্রত্যক্ষদর্শী বলেছেন, শুক্রবার গভীর রাত থেকে একটি কৌশলগত সেতুর কাছে বিস্ফোরণ এবং ভারী মেশিনগানের গোলাগুলির শব্দ শুনেছেন তারা। এই শব্দ শনিবার ভোর পর্যন্ত অব্যাহত ছিল। বেশ কয়েকটি থাই মিডিয়া জানিয়েছে, তাৎক্ষণিক আশ্রয়ের আশায় সীমান্ত পেরিয়ে থাইল্যান্ডে গেছেন প্রায় ২০০ মানুষ।

থাই সম্প্রচারকারী এনবিটি সোশ্যাল মিডিয়া প্ল্যাটফর্ম এক্স-এ করা একটি পোস্টে বলেছে, জান্তা সেনাদের লক্ষ্য করে প্রতিরোধ বাহিনী ৪০ মিলিমিটার মেশিনগান ব্যবহার করেছে এবং ড্রোন ব্যবহার করে ২০টি বোমা ফেলেছে। তাদের লক্ষ্যবস্তু হওয়া জান্তা সেনারা ৫ এপ্রিলে থেকে মায়াবতী এবং সেনা পোস্টে সম্মিলিত বিদ্রোহী হামলা থেকে বাচতে সীমান্তবর্তী একটি সেতু ক্রসিংয়ে আশ্রয় নিয়েছিল। সেখানে আনুমানিক ২০০ জান্তা সেনা আশ্রয় নিয়েছেন।

অবিলম্বে এই তথ্যগুলো যাচাই করতে পারেনি রয়টার্স। এ বিষয়ে মন্তব্যের জন্য মায়ানমার জান্তার মুখপাত্রের সঙ্গে তাৎক্ষণিকভাবে কোনও যোগাযোগ করতে পারেনি বার্তা সংস্থাটি। সীমান্তের এই অস্থিরতা নিবিড়ভাবে পর্যবেক্ষণ করার কথা বলেছেন থাই প্রধানমন্ত্রী স্রেথা থাভিসিন। প্রয়োজনে তার দেশ মানবিক সহায়তা দিতে প্রস্তুত রয়েছে বলেও জানিয়েছেন।

সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম এক্সে তিনি বলেন, ‘এই ধরনের কোনও সংঘর্ষ থাইল্যান্ডের আঞ্চলিক অখ-তার ওপর কোন প্রভাব ফেলুক তা আমরা দেখতে চাই না। আমাদের সীমানা এবং জনসাধারণের নিরাপত্তা রক্ষায় আমরা প্রস্তুত।’ তবে ওই পোস্টে উদ্বাস্তুদের বিষয়ে কিছু উল্লেখ করেননি তিনি।

back to top