alt

রাজনীতি

সরকার দেশকে পুলিশি রাষ্ট্রে পরিণত করেছে: মির্জা ফখরুল

# ৭২ থেকে ৭৫ সালে যেভাবে বাংলাদেশেকে ভিক্ষুকের দেশে পরিণত করা হয়েছিল, সরকার আজকে দেশকে সে অবস্থায় নিয়ে যেতে চাচ্ছেন

নিজস্ব বার্তা পরিবেশক : মঙ্গলবার, ০২ এপ্রিল ২০২৪

পবিত্র রমজান মাসেও আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর অমানবিকতা ও নিষ্ঠুরতায় বিরোধী দলের নেতাকর্মীরা গভীর আতঙ্কের মধ্যে দিনযাপন করছে বলে অভিযোগ করেছেন বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। গত ৭ জানুয়ারি ‘ডামি’ নির্বাচনের মাধ্যমে রাষ্ট্রক্ষমতা দখলকারী আওয়ামী গণবিচ্ছিন্ন সরকার দেশকে পুলিশি রাষ্ট্রে পরিণত করেছে বলেও মন্তব্য করেন তিনি।

মঙ্গলবার এক বিবৃতিতে এ মন্তব্য করেন তিনি। সোমবার গভীর রাতে ঢাকা মহানগর দক্ষিণ বিএনপির যুগ্ম আহŸায়ক হারুন উর রশীদ হারুনকে তার বাসভবন থেকে গোয়েন্দা পুলিশ কতৃর্ক গ্রেপ্তারের ঘটনায় উদ্বেগ প্রকাশ করে নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়ে এ বিবৃতি দেন ফখরুল। বিবৃতিতে তিনি জানান, ‘মিথ্যা ও বানোয়াট মামলায় ফরমায়েশী রায়ে দুই বছরের সাজা প্রাপ্ত হওয়ার কারণে হারুন উর রশীদ হারুনকে গ্রেফতার করা হয়।’

ফখরুল বলেন, ‘দখলদার আওয়ামী শাসকগোষ্ঠী তাদের অবৈধ ক্ষমতা ধরে রাখতে দেশব্যাপী প্রতিদিনই বিএনপিসহ বিরোধী দলের নেতাকর্মীদের ওপর নানা কায়দায় অবর্ণনীয় জুলুম চালিয়ে যাচ্ছে। বিরামহীনভাবে বানোয়াট ও ভিত্তিহীন মামলা করে গ্রেপ্তার, ফরমায়েশী সাজা প্রদান ও কারান্তরীণ করে বিএনপিসহ বিরোধী নেতাকর্মীদের নাজেহাল করা হচ্ছে। আর সেটিরই অংশ হিসেবে হারুন উর রশীদ হারুনকে ডিবি পুলিশ গ্রেপ্তার করেছে। হারুনের বিরুদ্ধে দায়েরকৃত বানোয়াট ও রাজনৈতিক প্রতিহিংসামূলক মামলা প্রত্যাহার এবং সাজা বাতিলসহ অবিলম্বে নি:শর্ত মুক্তির জোর আহŸান জানান বিএনপি মহাসচিব।

ফখরুল বলেন, ‘এধরণের অপকর্মের মাধ্যমে দখলদার, ফ্যাসিস্ট ও কর্তৃত্ববাদী আওয়ামী অবৈধ সরকার দেশে নব্য বাকশালী শাসন প্রতিষ্ঠিত করতে চাইছে। কিন্তু সরকারের শত জুলুম-নির্যাতনের মাঝেও বিএনপি জনগণকে সঙ্গে নিয়ে আওয়ামী দুঃশাসনের বিরুদ্ধে আন্দোলন-সংগ্রাম অব্যাহত রেখেছে। জনগণের আন্দোলন কখনো বিফল হয় না, জনগণের বিজয় হবেই ইনআশাল্লাহ।’

গতকাল নয়াপল্টন বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে গরীব ও দু:স্থদের মাঝে ঈদ উপহার সামগ্রী বিতরণ অনুষ্ঠানে দলের সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী হুশিয়ারী দিয়ে বলেন, ‘দেশকে কারও তাঁবেদারি রাষ্ট্র বানানো চলবে না, জনগণ তা হতে দেবে না। আমরা বাংলাদেশকে আরেকটি কাশ্মীর হতে দেব না।’ জিয়া প্রজন্ম দলের উদ্যোগে এই ঈদ উপহার সামগ্রী বিতরণ করা হয়।

রিজভী বলেন, ‘আওয়ামী লীগ সরকারের ২০১৪ ও ২০১৮ কিংবা ২০২৪ সালের নির্বাচকে সারা বিশ্ব স্বীকৃতি দেয়নি, কিন্তু আমাদের প্রতিবেশী দেশ যারা নিজেকে গণতান্ত্রিক দেশ বলে দাবি করে, তারা একটি দলের হয়ে সারা বিশ্বে ওকালতি করছে, অবৈধ নির্বাচনকে জায়েজ করতে চেষ্টা করছে।’

রিজভী বলেন, প্রতিবেশী দেশ বাংলাদেশের জনগণকে সম্মান করে না। স্বাধীনতা ও সার্বভৌমত্বে বিশ্বাস করে না। দেশে অবাধ সুষ্ঠু নির্বাচন হোক তারা চায় না। শুধু চায় বাংলাদেশে একটি দল আজীবন ক্ষমতায় থাকুক আর তাদের তাঁবেদারি করুক। সেজন্যই জনগণ প্রতিবাদ করছে, তাদের পণ্য বর্জন করছে।’

দুর্ভিক্ষের শুধু পদধ্বনি নয়, দেশে দুর্ভিক্ষ চলছে দাবি করে রিজভী বলেন, ‘চারদিকে ভিক্ষার আওয়াজ, ভাত চাওয়ার আওয়াজ শোনা যায়। রাস্তায় এত ভিক্ষুক আমরা কখনও দেখিনি। চারদিকে শুধু আহাজারি আর কান্না দেখতে পাই। ৭২ থেকে ৭৫ সালে যেভাবে বাংলাদেশেকে ভিক্ষুকের দেশে পরিণত করা হয়েছিল, সরকার আজকে দেশকে সে অবস্থায় নিয়ে যেতে চাচ্ছেন। রাস্তাঘাটে বেড়েছে ভিক্ষুকের সংখ্যা।

তিনি বলেন, ‘প্রধানমন্ত্রী বলেছেন, বাংলাদেশ নাকি কানাডা ইউরোপের মতো উন্নত হয়েছে। আসলে আওয়ামী নেতাদের অর্থবিত্ত কানাডা ইউরোপের মতো উন্নত হয়েছে। তাদের অর্থবিত্ত সিঙ্গাপুরকেও ছাড়িয়ে গেছে। শেখ হাসিনার ঘনিষ্ঠজনরা ধনী হয়েছে। জনগণকে অনাহারে রেখে কিছু মানুষ আঙ্গুল ফুলে কলাগাছ হয়েছে। আর দেশকে ভিক্ষুকের দেশে পরিণত করার চেষ্টা করছে।’

কসবায় নির্বাচন থেকে সরছেন না মন্ত্রীর আত্মীয় ছাইদুর

ছবি

স্বাস্থ্য সুরক্ষা আইন করে প্রাইভেট হাসপাতালের রোগ নির্ণয় পরীক্ষার ফি নির্ধারণ: স্বাস্থ্য মন্ত্রী

ছবি

রাজনৈতিকভাবে টালমাটাল অবস্থায় বিএনপি : ওবায়দুল কাদের

ছবি

১০ দিনে ৫ লাখ বৃক্ষ রোপণ করবে ছাত্রলীগ

ছবি

সন্ত্রাসী অপরাধে গ্রেপ্তারদেরও নিজেদের কর্মী দাবী করছে বিএনপি : পররাষ্ট্রমন্ত্রী

ছবি

আমরা সবাই মিলে প্রধানমন্ত্রীর উন্নয়নের রাজনীতি করতে চাই-- অর্থ প্রতিমন্ত্রী ওয়াসিকা আয়শা খান এমপি

ছবি

স্থানীয় নির্বাচনে রাজনৈতিক পরিচয়ের প্রয়োজন নেই: ইসি আলমগীর

ছবি

সরকার চোরাবালিতে দাঁড়িয়ে, যেকোনো সময় ডুবে যাবে: রিজভী

ছবি

ইরাকে ইরানপন্থি বাহিনীর ঘাঁটিতে বিমান হামলায় হতাহত ৭

ছবি

আবদুল আউয়াল মিন্টু হাসপাতালে ভর্তি

ছবি

আ.লীগের সব রকম কমিটি গঠন ও সম্মেলন বন্ধ থাকবে : কাদের

ছবি

আমি লজ্জিত-দুঃখিত এবং ক্ষমাপ্রার্থী, দোষীদের কপালে দুঃখ আছে : পলক

ছবি

যারা নুন-ভাতের কথাও ভাবতে পারত না, এখন তারা মাছ-মাংসের চিন্তা করে : শেখ হাসিনা

মন্ত্রী-এমপিদের আত্মীয়দের সরে দাঁড়ানোর নির্দেশ আ’লীগের

ছবি

মুজিবনগর সরকারের ৪০০ টাকা বেতনের কর্মচারী ছিলেন জিয়া : পররাষ্ট্রমন্ত্রী

ছবি

খালেদা জিয়া ডাল-ভাত খাওয়াতেও ব্যর্থ হয়েছিলেন : শেখ হাসিনা

ছবি

বিএনপিসহ স্বাধীনতা বিরোধী অপশক্তিকে প্রতিহত করতে হবে : ওবায়দুল কাদের

ছবি

মুজিবনগর দিবসে বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে প্রধানমন্ত্রীর শ্রদ্ধা

ছবি

মনোনয়নে বিএনপি-জামায়াতের নেতারা, তবে দল দু’টির বর্জনের ঘোষণা

ছবি

আনুষ্ঠানিকভাবে উপজেলা নির্বাচন বর্জনের ঘোষণা বিএনপির

ছবি

হিটলারের চেয়েও ভয়ঙ্কর নেতানিয়াহু : ওবায়দুল কাদের

ছবি

এমপি-মন্ত্রীদের হস্তক্ষেপ না করার নির্দেশ দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী

ছবি

ফখরুলকে চ্যালেঞ্জ ছুড়ে দিলেন ওবায়দুল কাদের

সকল ষড়যন্ত্র ব্যর্থ হওয়ায় বিএনপি এখন মনগড়া তথ্য দিয়ে মিথ্যাচার করছে : ওবায়দুল কাদের

আওয়ামী লীগ রাষ্ট্রকে সত্যিকার অর্থে পুলিশি রাষ্ট্রে পরিণত করেছে : মির্জা ফখরুল

ছবি

দেশের অর্থনৈতিক অবস্থা ভালো না, গ্রামের মানুষ কষ্টে দিন কাটাচ্ছে

ছবি

এবারের ঈদ বাংলাদেশের মানুষের জন্য দুঃখ-কষ্ট নিয়ে এসেছে : মির্জা ফখরুল

ছবি

ঈদে মধ্যবিত্তরা মুখ লুকিয়ে কাঁদছে: রিজভী

রংপুরে পুনঃ গননা, জাতীয় পার্টির মনোনীত ইউপি চেয়ারম্যান প্রার্থী মাহফুজার রহমানকে ৩শ ৩ ভোটে বিজয়ী ঘোষনা

ছবি

বিএনপি গণতন্ত্রের শত্রু ও আন্তর্জাতিকভাবে চিহ্নিত একটি সন্ত্রাসী দল : ওবায়দুল কাদের

ছবি

বিএনপিই এ দেশে গণতান্ত্রিক আদর্শ বাস্তবায়নের প্রধান প্রতিবন্ধক : ওবায়দুল কাদের

ছবি

রমজানে দ্রব্যমূল্যে উর্ধ্বগতি সরকারের দোষ নয় , এটা আমাদের রক্তে সমস্যা : এমপি রুমা চক্রবর্তী

ছবি

পাহাড়ে কেএনএফের সশস্ত্র তৎপরতা বিচ্ছিন্ন ঘটনা: ওবায়দুল কাদের

ছবি

সরকার নিজেই দস্যুদের মতো আচরণ করছে: রিজভী

ছবি

সকলের অংশগ্রহণে অন্তর্ভুক্তিমূলক উন্নয়ন নিশ্চিত করাই প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার লক্ষ্য- অর্থ প্রতিমন্ত্রী ওয়াসিকা আয়শা খান

ছবি

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অবগত থাকলেও তাদের সম্পর্কে খোঁজখবর রাখেননি: পাহাড় নিয়ে রিজভী

tab

রাজনীতি

সরকার দেশকে পুলিশি রাষ্ট্রে পরিণত করেছে: মির্জা ফখরুল

# ৭২ থেকে ৭৫ সালে যেভাবে বাংলাদেশেকে ভিক্ষুকের দেশে পরিণত করা হয়েছিল, সরকার আজকে দেশকে সে অবস্থায় নিয়ে যেতে চাচ্ছেন

নিজস্ব বার্তা পরিবেশক

মঙ্গলবার, ০২ এপ্রিল ২০২৪

পবিত্র রমজান মাসেও আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর অমানবিকতা ও নিষ্ঠুরতায় বিরোধী দলের নেতাকর্মীরা গভীর আতঙ্কের মধ্যে দিনযাপন করছে বলে অভিযোগ করেছেন বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। গত ৭ জানুয়ারি ‘ডামি’ নির্বাচনের মাধ্যমে রাষ্ট্রক্ষমতা দখলকারী আওয়ামী গণবিচ্ছিন্ন সরকার দেশকে পুলিশি রাষ্ট্রে পরিণত করেছে বলেও মন্তব্য করেন তিনি।

মঙ্গলবার এক বিবৃতিতে এ মন্তব্য করেন তিনি। সোমবার গভীর রাতে ঢাকা মহানগর দক্ষিণ বিএনপির যুগ্ম আহŸায়ক হারুন উর রশীদ হারুনকে তার বাসভবন থেকে গোয়েন্দা পুলিশ কতৃর্ক গ্রেপ্তারের ঘটনায় উদ্বেগ প্রকাশ করে নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়ে এ বিবৃতি দেন ফখরুল। বিবৃতিতে তিনি জানান, ‘মিথ্যা ও বানোয়াট মামলায় ফরমায়েশী রায়ে দুই বছরের সাজা প্রাপ্ত হওয়ার কারণে হারুন উর রশীদ হারুনকে গ্রেফতার করা হয়।’

ফখরুল বলেন, ‘দখলদার আওয়ামী শাসকগোষ্ঠী তাদের অবৈধ ক্ষমতা ধরে রাখতে দেশব্যাপী প্রতিদিনই বিএনপিসহ বিরোধী দলের নেতাকর্মীদের ওপর নানা কায়দায় অবর্ণনীয় জুলুম চালিয়ে যাচ্ছে। বিরামহীনভাবে বানোয়াট ও ভিত্তিহীন মামলা করে গ্রেপ্তার, ফরমায়েশী সাজা প্রদান ও কারান্তরীণ করে বিএনপিসহ বিরোধী নেতাকর্মীদের নাজেহাল করা হচ্ছে। আর সেটিরই অংশ হিসেবে হারুন উর রশীদ হারুনকে ডিবি পুলিশ গ্রেপ্তার করেছে। হারুনের বিরুদ্ধে দায়েরকৃত বানোয়াট ও রাজনৈতিক প্রতিহিংসামূলক মামলা প্রত্যাহার এবং সাজা বাতিলসহ অবিলম্বে নি:শর্ত মুক্তির জোর আহŸান জানান বিএনপি মহাসচিব।

ফখরুল বলেন, ‘এধরণের অপকর্মের মাধ্যমে দখলদার, ফ্যাসিস্ট ও কর্তৃত্ববাদী আওয়ামী অবৈধ সরকার দেশে নব্য বাকশালী শাসন প্রতিষ্ঠিত করতে চাইছে। কিন্তু সরকারের শত জুলুম-নির্যাতনের মাঝেও বিএনপি জনগণকে সঙ্গে নিয়ে আওয়ামী দুঃশাসনের বিরুদ্ধে আন্দোলন-সংগ্রাম অব্যাহত রেখেছে। জনগণের আন্দোলন কখনো বিফল হয় না, জনগণের বিজয় হবেই ইনআশাল্লাহ।’

গতকাল নয়াপল্টন বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে গরীব ও দু:স্থদের মাঝে ঈদ উপহার সামগ্রী বিতরণ অনুষ্ঠানে দলের সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী হুশিয়ারী দিয়ে বলেন, ‘দেশকে কারও তাঁবেদারি রাষ্ট্র বানানো চলবে না, জনগণ তা হতে দেবে না। আমরা বাংলাদেশকে আরেকটি কাশ্মীর হতে দেব না।’ জিয়া প্রজন্ম দলের উদ্যোগে এই ঈদ উপহার সামগ্রী বিতরণ করা হয়।

রিজভী বলেন, ‘আওয়ামী লীগ সরকারের ২০১৪ ও ২০১৮ কিংবা ২০২৪ সালের নির্বাচকে সারা বিশ্ব স্বীকৃতি দেয়নি, কিন্তু আমাদের প্রতিবেশী দেশ যারা নিজেকে গণতান্ত্রিক দেশ বলে দাবি করে, তারা একটি দলের হয়ে সারা বিশ্বে ওকালতি করছে, অবৈধ নির্বাচনকে জায়েজ করতে চেষ্টা করছে।’

রিজভী বলেন, প্রতিবেশী দেশ বাংলাদেশের জনগণকে সম্মান করে না। স্বাধীনতা ও সার্বভৌমত্বে বিশ্বাস করে না। দেশে অবাধ সুষ্ঠু নির্বাচন হোক তারা চায় না। শুধু চায় বাংলাদেশে একটি দল আজীবন ক্ষমতায় থাকুক আর তাদের তাঁবেদারি করুক। সেজন্যই জনগণ প্রতিবাদ করছে, তাদের পণ্য বর্জন করছে।’

দুর্ভিক্ষের শুধু পদধ্বনি নয়, দেশে দুর্ভিক্ষ চলছে দাবি করে রিজভী বলেন, ‘চারদিকে ভিক্ষার আওয়াজ, ভাত চাওয়ার আওয়াজ শোনা যায়। রাস্তায় এত ভিক্ষুক আমরা কখনও দেখিনি। চারদিকে শুধু আহাজারি আর কান্না দেখতে পাই। ৭২ থেকে ৭৫ সালে যেভাবে বাংলাদেশেকে ভিক্ষুকের দেশে পরিণত করা হয়েছিল, সরকার আজকে দেশকে সে অবস্থায় নিয়ে যেতে চাচ্ছেন। রাস্তাঘাটে বেড়েছে ভিক্ষুকের সংখ্যা।

তিনি বলেন, ‘প্রধানমন্ত্রী বলেছেন, বাংলাদেশ নাকি কানাডা ইউরোপের মতো উন্নত হয়েছে। আসলে আওয়ামী নেতাদের অর্থবিত্ত কানাডা ইউরোপের মতো উন্নত হয়েছে। তাদের অর্থবিত্ত সিঙ্গাপুরকেও ছাড়িয়ে গেছে। শেখ হাসিনার ঘনিষ্ঠজনরা ধনী হয়েছে। জনগণকে অনাহারে রেখে কিছু মানুষ আঙ্গুল ফুলে কলাগাছ হয়েছে। আর দেশকে ভিক্ষুকের দেশে পরিণত করার চেষ্টা করছে।’

back to top