alt

রাজনীতি

কুমিল্লায় ফিরে ‘বিদ্রোহী’ ইমরান বললেন ‘ভিন্ন কথা’

সংবাদ অনলাইন রিপোর্ট : বুধবার, ২৫ মে ২০২২

কুমিল্লা সিটি করপোরেশন (কুসিক) নির্বাচনে মেয়র পদে আওয়ামী লীগের ‘বিদ্রোহী’ মাসুদ পারভেজ খান ইমরানের সঙ্গে বৈঠকের পর কেন্দ্রীয় নেতৃত্ব ‘বসে যাওয়ার’ কথা জানালেও প্রার্থী নিজে বলছেন ‘ভিন্ন কথা’।

তিনি বলেন, আমি এখনও কোনো সিদ্ধান্তে পৌঁছাতে পারিনি। আমি বিষয়টি ভেবে দেখছি। আর এখনও আমার আগের (নির্বাচনের) সিদ্ধান্তেই আছি।

আগামী ১৫ জুন কুমিল্লা সিটি করপোরেশন (কুসিক) নির্বাচন। নির্বাচনে আওয়ামী লীগের প্রার্থী হয়েছেন কুমিল্লা মহানগরের সাধারণ সম্পাদক আরফানুল হক রিফাত। এতে ‘বিদ্রোহী’ হয়ে স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে মনোনয়নপত্র দাখিল করেন আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় তথ্য ও গবেষণা উপকমিটির সদস্য মাসুদ পারভেজ খান।

তাই তাকে ভোটের মাঠ থেকে সরাতে মঙ্গলবার ঢাকায় ডেকে আনা হয়। সন্ধ্যায় ধানমণ্ডিতে আওয়ামী লীগ সভানেত্রীর রাজনৈতিক কার্যালয়ে তার সঙ্গে বৈঠকে বসেন আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আ ফ বাহাউদ্দিন নাছিম ও দপ্তর সম্পাদক বিপ্লব বড়ুয়া।

কুমিল্লার প্রভাবশালী আওয়ামী লীগ নেতা প্রয়াত আফজল খানের ছেলে ইমরানের সঙ্গে এই বৈঠকে তার বোন সংরক্ষিত আসনের সংসদ সদস্য আঞ্জুম সুলতানা সীমাও অংশ নেন।

গতকালকের বৈঠক শেষে আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের বলেন, আমাদের বৈঠক ফলপ্রসূ হয়েছে, ইমরান বসে যাবে।

তখন ইমরান সাংবাদিকদের সঙ্গে কোনো কথা বলেননি। এদিকে আজ (বুধবার) সকালে ইমরান বলেন, আওয়ামী লীগ সভাপতির ধানমন্ডির রাজনৈতিক কার্যালয়ে দলের সাধারণ সম্পাদক সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের, আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আ ফ ম বাহাউদ্দিন নাছিম ও দলের দপ্তর সম্পাদক ব্যারিস্টার বিপ্লব বড়ুয়া আমাদের দুজনের সঙ্গে দীর্ঘক্ষণ কথা বলেন। তারা আমাকে নির্বাচন থেকে সরে দাঁড়াতে বলেন। জবাবে আমিও তাদেরকে আমার অবস্থান জানিয়েছি।

তিনি বলেন, সর্বশেষ আমি এখনও কোনো সিদ্ধান্তে পৌঁছাতে পারিনি। আমি বিষয়টি ভেবে দেখছি। আর এখনও আমার আগের (নির্বাচনের) সিদ্ধান্তেই আছি। বাকিটা আগামীকাল বৃহস্পতিবার মনোনয়ন প্রত্যাহারের শেষ দিনে দেখা যাবে।

কুমিল্লায় আওয়ামী লীগের রাজনীতি দীর্ঘদিন ধরেই দুটি বলয়ে বিভক্ত; এক অংশের নেতৃত্ব দিয়ে আসছিলেন আফজল খান, অন্যপক্ষে কুমিল্লা মহানগর আওয়ামী লীগের সভাপতি আ ক ম বাহাউদ্দিন বাহার, যিনি এখন কুমিল্লার সদরের সংসদ সদস্য।

২০১২ সালে কুমিল্লার প্রথম সিটি নির্বাচনে মেয়র পদে লড়েছিলেন আফজল খান নিজে। সেবার তিনি বিএনপি নেতা মনিরুল হক সাক্কুর কাছে হেরে যান। সাক্কু ৬৫ হাজার ৫৭৭ ভোট পেয়ে জয়লাভ করেন। আফজল খান পান ৩৬ হাজার ৪৭১ ভোট।

এরপর ২০১৭ সালে মেয়র পদে প্রার্থী হন আফজল খানের মেয়ে কুমিল্লা দক্ষিণ জেলা আওয়ামী লীগের সহসভাপতি আঞ্জুম সুলতানা সীমা। সে নির্বাচনেও সাক্কু ধানের শীষ প্রতীকে ৬৮ হাজার ৯৪৮ ভোট পেয়ে বিজয়ী হন। নৌকা প্রতীক নিয়ে সীমা পান ৫৭ হাজার ৮৬৩ ভোট।

এবার আফজল পরিবারকে বাদ দিয়ে বাহারের অনুগত হিসেবে পরিচিত রিফাতকে আওয়ামী লীগ প্রার্থী করলে বেঁকে বসেন কুমিল্লার ব্যবসায়ী নেতা ইমরান। মনোনয়নপত্র জমার শেষ দিনে তিনি মনোনয়নপত্র জমা দিলে ভোটের সমীকরণ জটিল হয়ে পড়ে।

তাই ইমরানকে বসাতে উদ্যোগী হয় কেন্দ্রীয় আওয়ামী লীগ।

কুমিল্লার বিদায়ী মেয়র সাক্কু এবারও প্রার্থী হয়েছেন। তবে এবার তিনি বিএনপির বদলে স্বতন্ত্র প্রার্থী হয়ে লড়ছেন।

এ ছাড়া ভোটের মাঠে মেয়র পদপ্রার্থী হিসেবে রয়েছেন- স্বতন্ত্র প্রার্থী বিএনপির ‘নেতা’ নিজাম উদ্দিন কায়সার, ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশের রাশেদুল ইসলাম এবং রিয়েল এস্টেট ব্যবসায়ী ও কুমিল্লা নাগরিক ফোরামের সভাপতি কামরুল আহসান।

কুমিল্লা সিটি করপোরেশন নির্বাচনে এবার মেয়র পদে ছয়জন প্রার্থী। ১৫ জুন ইলেকট্রনিক ভোটিং মেশিনের (ইভিএম) মাধ্যমে ১০৫ কেন্দ্রের ৬৪০টি বুথে ভোটগ্রহণ হবে।

ছবি

পদ্মা সেতুর বিরোধিতাকারীদের মুখে চুনকালি পড়েছে: রওশন

ছবি

স্বেচ্ছাসেবক লীগ সভাপতি নির্মল রঞ্জন গুহ আর নেই

ইভিএম জনপ্রিয় ও সহজ করায় জোর আওয়ামী লীগের

ছবি

ওবায়দুল কাদেরের নেতৃত্বে আ. লীগের প্রতিনিধি দল ইসিতে

ছবি

স্পিড গান-সিসিটিভি বসানোর পর পদ্মা সেতুতে বাইক চলাচলে সিদ্ধান্ত

ছবি

পদ্মার গহীন অতলে নিমজ্জিত বিএনপির রাজনীতি: কাদের

ছবি

৮ মাস পর দেশে ফিরলেন রওশন এরশাদ

ছবি

ভালো আছেন খালেদা জিয়া ও মির্জা ফখরুল

ছবি

বিকালে বসছে আ’লীগের স্থানীয় সরকার মনোনয়ন বোর্ড

ছবি

পদ্মা সেতুর উদ্বোধনে ফিরলেন আবুল হোসেন

ছবি

পদ্মা সেতুর উদ্বোধনে এসে নিজেকে ‘সৌভাগ্যবান’ মনে করছেন জাফরুল্লাহ

ছবি

হাসপাতাল থেকে বাসায় ফিরেছেন খালেদা জিয়া

ছবি

বিএনপি দুর্গতদের নিয়ে রাজনীতি করে, পাশে দাঁড়ায় না

ছবি

সন্ধ্যায় বাসায় ফিরবেন খালেদা জিয়া

রাজশাহীতে আওয়ামী লীগের এক নেতার বিরুদ্ধে দলের আরেক নেতাকে মারধরের অভিযোগ

ছবি

বাঙালি জাতির সব অর্জন আওয়ামী লীগের হাত ধরে: তথ্যমন্ত্রী

ছবি

আওয়ামী লীগের প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী: বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে প্রধানমন্ত্রীর শ্রদ্ধা

ছবি

পদ্মা সেতুর উদ্বোধন অনুষ্ঠানে যাবে না বিএনপি

ছবি

অভিযোগ পাওয়ায় চাঁদপুরে ছাত্রলীগের সদ্য ঘোষিত তিন কমিটি স্থগিত

ছবি

পদ্মা সেতুর উদ্বোধনে আমন্ত্রণ পেলেন বিএনপির ৭ নেতা

ছবি

সরকারের তামাকমুক্ত দেশ গড়ার রোডম্যাপ নেই : হারুন

ছবি

মির্জা ফখরুলসহ ৫১ জনের বিরুদ্ধে অভিযোগ গঠন ২৮ আগস্ট

বাহার প্রসঙ্গ : সিইসির ‘ভিন্ন সুর’

ছবি

যেখানে আর্তমানবতা সেখানেই আওয়ামীলীগ-মতিয়া চৌধুরী

ছবি

প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশ: বৃক্ষরোপণ কর্মসূচিতে যুবলীগ

ছবি

চলতি মাসেই দেশে ফিরতে পারেন রওশন এরশাদ

ছবি

নির্বাচন কমিশনের ব্যাখ্যা প্রত্যাখ্যান করলেন মনিরুল হক

ছবি

বিকেলে বিএনপির ত্রাণ কমিটির যৌথসভা

ছবি

সরকারের ব্যর্থতায় বন্যা পরিস্থিতির অবনতি ঘটেছে : রিজভী

ছবি

সুনামগঞ্জে বন্যার্তদের জন্য ৬০০ আশ্রয় কেন্দ্র খোলা হয়েছে: ওবায়দুল কাদের

বিদেশে আমাদের কোন প্রভু নেই : আমু

আ’লীগ-বিএনপি কোন জোটে যাবে না বাম গণতান্ত্রিক জোট : কমরেড শাহ আলম

ছবি

জনগণের কষ্টের সময় সরকার উৎসব নিয়ে ব্যস্ত: ফখরুল

কুমিল্লা নির্বাচনের ফল কি হবে আগেই জানতাম : ফখরুল

ফল নিয়ে বিতর্ক এবং ভোটের সমীকরণ

মনোহরদীর ৩ ইউপিতেই নৌকার ভরাডুবি বিদ্রোহীদের জয় জয়কার

tab

রাজনীতি

কুমিল্লায় ফিরে ‘বিদ্রোহী’ ইমরান বললেন ‘ভিন্ন কথা’

সংবাদ অনলাইন রিপোর্ট

বুধবার, ২৫ মে ২০২২

কুমিল্লা সিটি করপোরেশন (কুসিক) নির্বাচনে মেয়র পদে আওয়ামী লীগের ‘বিদ্রোহী’ মাসুদ পারভেজ খান ইমরানের সঙ্গে বৈঠকের পর কেন্দ্রীয় নেতৃত্ব ‘বসে যাওয়ার’ কথা জানালেও প্রার্থী নিজে বলছেন ‘ভিন্ন কথা’।

তিনি বলেন, আমি এখনও কোনো সিদ্ধান্তে পৌঁছাতে পারিনি। আমি বিষয়টি ভেবে দেখছি। আর এখনও আমার আগের (নির্বাচনের) সিদ্ধান্তেই আছি।

আগামী ১৫ জুন কুমিল্লা সিটি করপোরেশন (কুসিক) নির্বাচন। নির্বাচনে আওয়ামী লীগের প্রার্থী হয়েছেন কুমিল্লা মহানগরের সাধারণ সম্পাদক আরফানুল হক রিফাত। এতে ‘বিদ্রোহী’ হয়ে স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে মনোনয়নপত্র দাখিল করেন আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় তথ্য ও গবেষণা উপকমিটির সদস্য মাসুদ পারভেজ খান।

তাই তাকে ভোটের মাঠ থেকে সরাতে মঙ্গলবার ঢাকায় ডেকে আনা হয়। সন্ধ্যায় ধানমণ্ডিতে আওয়ামী লীগ সভানেত্রীর রাজনৈতিক কার্যালয়ে তার সঙ্গে বৈঠকে বসেন আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আ ফ বাহাউদ্দিন নাছিম ও দপ্তর সম্পাদক বিপ্লব বড়ুয়া।

কুমিল্লার প্রভাবশালী আওয়ামী লীগ নেতা প্রয়াত আফজল খানের ছেলে ইমরানের সঙ্গে এই বৈঠকে তার বোন সংরক্ষিত আসনের সংসদ সদস্য আঞ্জুম সুলতানা সীমাও অংশ নেন।

গতকালকের বৈঠক শেষে আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের বলেন, আমাদের বৈঠক ফলপ্রসূ হয়েছে, ইমরান বসে যাবে।

তখন ইমরান সাংবাদিকদের সঙ্গে কোনো কথা বলেননি। এদিকে আজ (বুধবার) সকালে ইমরান বলেন, আওয়ামী লীগ সভাপতির ধানমন্ডির রাজনৈতিক কার্যালয়ে দলের সাধারণ সম্পাদক সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের, আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আ ফ ম বাহাউদ্দিন নাছিম ও দলের দপ্তর সম্পাদক ব্যারিস্টার বিপ্লব বড়ুয়া আমাদের দুজনের সঙ্গে দীর্ঘক্ষণ কথা বলেন। তারা আমাকে নির্বাচন থেকে সরে দাঁড়াতে বলেন। জবাবে আমিও তাদেরকে আমার অবস্থান জানিয়েছি।

তিনি বলেন, সর্বশেষ আমি এখনও কোনো সিদ্ধান্তে পৌঁছাতে পারিনি। আমি বিষয়টি ভেবে দেখছি। আর এখনও আমার আগের (নির্বাচনের) সিদ্ধান্তেই আছি। বাকিটা আগামীকাল বৃহস্পতিবার মনোনয়ন প্রত্যাহারের শেষ দিনে দেখা যাবে।

কুমিল্লায় আওয়ামী লীগের রাজনীতি দীর্ঘদিন ধরেই দুটি বলয়ে বিভক্ত; এক অংশের নেতৃত্ব দিয়ে আসছিলেন আফজল খান, অন্যপক্ষে কুমিল্লা মহানগর আওয়ামী লীগের সভাপতি আ ক ম বাহাউদ্দিন বাহার, যিনি এখন কুমিল্লার সদরের সংসদ সদস্য।

২০১২ সালে কুমিল্লার প্রথম সিটি নির্বাচনে মেয়র পদে লড়েছিলেন আফজল খান নিজে। সেবার তিনি বিএনপি নেতা মনিরুল হক সাক্কুর কাছে হেরে যান। সাক্কু ৬৫ হাজার ৫৭৭ ভোট পেয়ে জয়লাভ করেন। আফজল খান পান ৩৬ হাজার ৪৭১ ভোট।

এরপর ২০১৭ সালে মেয়র পদে প্রার্থী হন আফজল খানের মেয়ে কুমিল্লা দক্ষিণ জেলা আওয়ামী লীগের সহসভাপতি আঞ্জুম সুলতানা সীমা। সে নির্বাচনেও সাক্কু ধানের শীষ প্রতীকে ৬৮ হাজার ৯৪৮ ভোট পেয়ে বিজয়ী হন। নৌকা প্রতীক নিয়ে সীমা পান ৫৭ হাজার ৮৬৩ ভোট।

এবার আফজল পরিবারকে বাদ দিয়ে বাহারের অনুগত হিসেবে পরিচিত রিফাতকে আওয়ামী লীগ প্রার্থী করলে বেঁকে বসেন কুমিল্লার ব্যবসায়ী নেতা ইমরান। মনোনয়নপত্র জমার শেষ দিনে তিনি মনোনয়নপত্র জমা দিলে ভোটের সমীকরণ জটিল হয়ে পড়ে।

তাই ইমরানকে বসাতে উদ্যোগী হয় কেন্দ্রীয় আওয়ামী লীগ।

কুমিল্লার বিদায়ী মেয়র সাক্কু এবারও প্রার্থী হয়েছেন। তবে এবার তিনি বিএনপির বদলে স্বতন্ত্র প্রার্থী হয়ে লড়ছেন।

এ ছাড়া ভোটের মাঠে মেয়র পদপ্রার্থী হিসেবে রয়েছেন- স্বতন্ত্র প্রার্থী বিএনপির ‘নেতা’ নিজাম উদ্দিন কায়সার, ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশের রাশেদুল ইসলাম এবং রিয়েল এস্টেট ব্যবসায়ী ও কুমিল্লা নাগরিক ফোরামের সভাপতি কামরুল আহসান।

কুমিল্লা সিটি করপোরেশন নির্বাচনে এবার মেয়র পদে ছয়জন প্রার্থী। ১৫ জুন ইলেকট্রনিক ভোটিং মেশিনের (ইভিএম) মাধ্যমে ১০৫ কেন্দ্রের ৬৪০টি বুথে ভোটগ্রহণ হবে।

back to top