alt

জাতীয়

২০৩০ সাল পর্যন্ত বনের গাছ কাটায় নিষেধাজ্ঞার গেজেট প্রকাশ

সংবাদ অনলাইন রিপোর্ট : সোমবার, ২০ মার্চ ২০২৩

২০৩০ সাল পর্যন্ত জীববৈচিত্র্য রক্ষায় দেশের সংরক্ষিত ও প্রাকৃতিক বনাঞ্চলের গাছ কাটার ওপর আগেই নিষেধাজ্ঞা আরোপ করা হয়েছিল। এ সিদ্ধান্ত এখন গেজেট আকারে প্রকাশ করা হয়েছে। মঙ্গলবার আন্তর্জাতিক বন দিবসের আগে রোববার এ গেজেট প্রকাশ করা হয়।

পরিবেশ, বন ও জলবায়ু পরিবর্তন মন্ত্রণালয়ের এ প্রজ্ঞাপনে বলা হয়েছে, দেশের জীববৈচিত্র্য রক্ষার উদ্দেশে সংরক্ষিত ও প্রাকৃতিক বনাঞ্চল থেকে গাছ কাটা ২০২৩ সালের ১ জানুয়ারি থেকে ২০৩০ সালের ৩১ ডিসেম্বর পর্যন্ত বন্ধ থাকবে।

“এসময়ে বনাঞ্চলের কোর-জোন রক্ষার্থে বাফার জোন এলাকায় স্থানীয় দরিদ্র জনগণের সম্পৃক্ততায় পরিচালিত অংশীদারত্বভিত্তিক সামাজিক বনায়ন প্রক্রিয়া চলমান থাকবে।”

মন্ত্রণালয়ের জ্যেষ্ঠ তথ্য কর্মকর্তা দীপংকর বর জানান, সরকারের নেওয়া পদক্ষেপে দেশের বৃক্ষ আচ্ছাদিত ভূমির পরিমাণ এখন মোট আয়তনের ২২.৩৭ শতাংশ। ২০২৫ সালের মধ্যে তা ২৪ শতাংশের বেশিতে উন্নীত করার পরিকল্পনা নিয়েছে সরকার। ২০২২ সালে অক্টোবরে সংরক্ষিত ও প্রাকৃতিক বনাঞ্চলে গাছ কাটার ওপর বিধিনিষেধ আরোপ ২০৩০ সাল পর্যন্ত বহাল রাখার সিদ্ধান্ত মন্ত্রিসভা অনুমোদন দেয়।

সেদিন তৎকালীন মন্ত্রিপরিষদ সচিব খন্দকার আনোয়ারুল ইসলাম বলেছিলেন, জীববৈচিত্র্য রক্ষার্থে ২০৩০ সাল পর্যন্ত রিজার্ভ ফরেস্টের কোনো গাছ কাটা যাবে না। তবে ‘সোশাল ফরেস্টের’ গাছ কাটা যাবে।

যেসব গাছ কাটা যাবে সেই ব্যাখ্যায় তিনি বলেছিলেন, “সোশাল ফরেস্ট হল যেমন কারও ব্যক্তিগত, রাস্তার পাশ দিয়ে যে বনায়ন বা ডিপ ফরেস্টের আগে একটা বাফার জোন থাকে। সেখানে স্থানীয় জনগণের সাথে জয়েন্ট বনায়ন হয়।”

২০৩০ সাল পর্যন্ত নিষেধাজ্ঞা আরোপের বিষয়ে তিনি জানান, এটা হল একটা শিফট টাইম। প্রত্যেকটা টাইম ফ্রেম আছে। যেটা ৫ বছর বা ৭ বছর হয়ে থাকে। এবার ৫ বছর না করে ৮ বছরের জন্য চলে আসছে।

পরে ২০২২ সালের ডিসেম্বরে মন্ত্রণালয় এ সংক্রান্ত প্রজ্ঞাপন জারির পর রোববার তা গেজেট আকারে প্রকাশ করা হল। এরমধ্যেই আন্তর্জাতিক বন দিবস পালন করা হবে মঙ্গলবার।

পরিবেশ, বন ও জলবায়ু পরিবর্তন মন্ত্রণালয় এ দিবস উপলক্ষে বন অধিদপ্তরে আলোচনার সভার আয়োজন করেছে। এবার দিবসের প্রতিপাদ্য হচ্ছে- সুস্থ দেহে সুস্থ মন, যদি থাকে সমৃদ্ধ বন।

জ্যেষ্ঠ তথ্য কর্মকর্তা দীপংকর জানান, অবৈধ জবরদখল উচ্ছেদের মাধ্যমে বনভূমি পুনরুদ্ধার ও তা সংরক্ষণে সরকার কাজ করছে। সুন্দরবনের বৃক্ষ সম্পদের পরিমাণ বেড়েছে। ২০১৯ সালের জাতীয় বন জরিপের তথ্যমতে সুন্দরবনে মোট কার্বন মজুদের পরিমাণ ১৩৯ মিলিয়ন টন, যেখানে ২০০৯ সালে পরিচালিত জরিপ অনুসারে এর পরিমাণ ছিল ১০৭ মিলিয়ন টন।

ছবি

দীর্ঘ ছুটি শেষে খুলেছে সুপ্রিম কোর্ট

ছবি

হিট অ্যালার্টের মধ্যেই ৬০ কি.মি. বেগে ঝড় বয়ে যেতে পারে

দাবদাহে ‘কপাল পোড়ার’ শঙ্কায় কৃষক, শুকিয়ে যাচ্ছে ধান ক্ষেত, মরছে সবজির গাছ

ছবি

সোমবার থেকে ৪ দিনব্যাপী ন্যাপ এক্সপো, উদ্বোধন করবেন প্রধানমন্ত্রী

ছবি

অনিবন্ধিত অনলাইন নিউজ পোর্টাল বন্ধ করে দেয়া হবে:প্রতিমন্ত্রী

ছবি

গরমের কারণে সব সরকারি স্কুল, কলেজ আরও ৭ দিন বন্ধ

ছবি

ট্রাফিক সদস্যদের ছাতা-স্যালাইন-জুস-শরবত দিলেন আইজিপি

ছবি

ঈদযাত্রায় ৪১৯ দুর্ঘটনায় নিহত ৪৩৮ : যাত্রী কল্যাণ সমিতি

ছবি

ফুলেল শ্রদ্ধায় শিব নারায়ণ দাশকে বিদায়

ছবি

দেশে ইন্টারনেট সেবায় ব্যাঘাত

ছবি

তীব্র দাবদাহ : প্রাথমিক স্কুলে অ্যাসেম্বলি বন্ধ রাখার নির্দেশ

ছবি

শিব নারায়ণের কর্নিয়ায় আলো ফুটবে দুই অন্ধের চোখে

ছবি

একদিনে করোনায় আক্রান্ত ১৬ জন

ছবি

তাপপ্রবাহ নিয়ে ৭২ ঘণ্টার সতর্ক বার্তা আবহাওয়া অধিদপ্তরের

ছবি

বঙ্গবন্ধু টানেলে টোল ফ্রি সুবিধা পেল যেসব গাড়ি

ছবি

সারাদেশে তিন দিনের হিট অ্যালার্ট জারি

ছবি

জাতীয় পতাকার নকশাকার শিবনারায়ণ দাস আর নেই

ছবি

বাংলাদেশ ও ভারতের মধ্যে পারস্পরিক সহযোগিতা ও অভিজ্ঞতা বিনিময় করা হবে : আরাফাত

স্বাধীনতার ঘোষণাপত্র এবং মুজিবনগর দিবস সম্পর্কে নতুন প্রজন্মেকে জানাতে হবে

ছবি

স্থানীয় সরকার নির্বাচ‌নে ভোটার উপ‌স্থি‌তি সংসদ নির্বাচ‌নের ‌চে‌য়ে বে‌শি থাকবে

ছবি

প্রাণিসম্পদ সেবা সপ্তাহ ও প্রদর্শনীর উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধানমন্ত্রী

ছবি

থাইল্যান্ড সফরে যাচ্ছেন প্রধানমন্ত্রী

জুন-জুলাইয়ে দেশে ইনফ্লুয়েঞ্জার হার বেশি

মধ্যপ্রাচ্য পরিস্থিতির ওপর নজর রাখতে বললেন প্রধানমন্ত্রী

এথেন্স সম্মেলনে দায়িত্বশীল ও টেকসই সমুদ্র ব্যবস্থাপনায় সম্মিলিত প্রয়াসের আহ্বান পররাষ্ট্রমন্ত্রীর

ছবি

কৃষকরাই অর্থনীতির মূল চালিকাশক্তি: স্পিকার

ছবি

মধ্যপ্রাচ্য পরিস্থিতির ওপর নজর রাখার তাগিদ প্রধানমন্ত্রীর

ছবি

লালমনিরহাট সীমান্তে বিএসএফের গুলিতে সাবেক ইউপি সদস্য গুলিবিদ্ধ

ছবি

তৃতীয় ধাপে ১১২ উপজেলায় ভোট ২৯ মে

ছবি

এমভি আবদুল্লাহ : ২১ নাবিক দেশে ফিরবেন জাহাজে, বাকি দুজন বিমানে

ছবি

৯৬ হাজার ৭৩৬ শিক্ষক নিয়োগে প্রক্রিয়া শুরু, আবেদনের নিয়ম

ছবি

ঢাকায় গ্রিসের দূতাবাস স্থাপন ও জনশক্তি রপ্তানি বৃদ্ধি নিয়ে আলোচনা

ছবি

টিসিবির তালিকা হালনাগাদ করতে চাই:বাণিজ্য প্রতিমন্ত্রী

ছবি

লক্ষ্যমাত্রার চেয়ে গমের আবাদ কম

ছবি

ভোজ্য তেলের দাম বাড়াতে চায় ব্যবসায়ীরা আপত্তি বাণিজ্য প্রতিমন্ত্রীর

ছবি

অনিবন্ধিত অনলাইনের বিরুদ্ধে পদক্ষেপ নেবো : তথ্য প্রতিমন্ত্রী

tab

জাতীয়

২০৩০ সাল পর্যন্ত বনের গাছ কাটায় নিষেধাজ্ঞার গেজেট প্রকাশ

সংবাদ অনলাইন রিপোর্ট

সোমবার, ২০ মার্চ ২০২৩

২০৩০ সাল পর্যন্ত জীববৈচিত্র্য রক্ষায় দেশের সংরক্ষিত ও প্রাকৃতিক বনাঞ্চলের গাছ কাটার ওপর আগেই নিষেধাজ্ঞা আরোপ করা হয়েছিল। এ সিদ্ধান্ত এখন গেজেট আকারে প্রকাশ করা হয়েছে। মঙ্গলবার আন্তর্জাতিক বন দিবসের আগে রোববার এ গেজেট প্রকাশ করা হয়।

পরিবেশ, বন ও জলবায়ু পরিবর্তন মন্ত্রণালয়ের এ প্রজ্ঞাপনে বলা হয়েছে, দেশের জীববৈচিত্র্য রক্ষার উদ্দেশে সংরক্ষিত ও প্রাকৃতিক বনাঞ্চল থেকে গাছ কাটা ২০২৩ সালের ১ জানুয়ারি থেকে ২০৩০ সালের ৩১ ডিসেম্বর পর্যন্ত বন্ধ থাকবে।

“এসময়ে বনাঞ্চলের কোর-জোন রক্ষার্থে বাফার জোন এলাকায় স্থানীয় দরিদ্র জনগণের সম্পৃক্ততায় পরিচালিত অংশীদারত্বভিত্তিক সামাজিক বনায়ন প্রক্রিয়া চলমান থাকবে।”

মন্ত্রণালয়ের জ্যেষ্ঠ তথ্য কর্মকর্তা দীপংকর বর জানান, সরকারের নেওয়া পদক্ষেপে দেশের বৃক্ষ আচ্ছাদিত ভূমির পরিমাণ এখন মোট আয়তনের ২২.৩৭ শতাংশ। ২০২৫ সালের মধ্যে তা ২৪ শতাংশের বেশিতে উন্নীত করার পরিকল্পনা নিয়েছে সরকার। ২০২২ সালে অক্টোবরে সংরক্ষিত ও প্রাকৃতিক বনাঞ্চলে গাছ কাটার ওপর বিধিনিষেধ আরোপ ২০৩০ সাল পর্যন্ত বহাল রাখার সিদ্ধান্ত মন্ত্রিসভা অনুমোদন দেয়।

সেদিন তৎকালীন মন্ত্রিপরিষদ সচিব খন্দকার আনোয়ারুল ইসলাম বলেছিলেন, জীববৈচিত্র্য রক্ষার্থে ২০৩০ সাল পর্যন্ত রিজার্ভ ফরেস্টের কোনো গাছ কাটা যাবে না। তবে ‘সোশাল ফরেস্টের’ গাছ কাটা যাবে।

যেসব গাছ কাটা যাবে সেই ব্যাখ্যায় তিনি বলেছিলেন, “সোশাল ফরেস্ট হল যেমন কারও ব্যক্তিগত, রাস্তার পাশ দিয়ে যে বনায়ন বা ডিপ ফরেস্টের আগে একটা বাফার জোন থাকে। সেখানে স্থানীয় জনগণের সাথে জয়েন্ট বনায়ন হয়।”

২০৩০ সাল পর্যন্ত নিষেধাজ্ঞা আরোপের বিষয়ে তিনি জানান, এটা হল একটা শিফট টাইম। প্রত্যেকটা টাইম ফ্রেম আছে। যেটা ৫ বছর বা ৭ বছর হয়ে থাকে। এবার ৫ বছর না করে ৮ বছরের জন্য চলে আসছে।

পরে ২০২২ সালের ডিসেম্বরে মন্ত্রণালয় এ সংক্রান্ত প্রজ্ঞাপন জারির পর রোববার তা গেজেট আকারে প্রকাশ করা হল। এরমধ্যেই আন্তর্জাতিক বন দিবস পালন করা হবে মঙ্গলবার।

পরিবেশ, বন ও জলবায়ু পরিবর্তন মন্ত্রণালয় এ দিবস উপলক্ষে বন অধিদপ্তরে আলোচনার সভার আয়োজন করেছে। এবার দিবসের প্রতিপাদ্য হচ্ছে- সুস্থ দেহে সুস্থ মন, যদি থাকে সমৃদ্ধ বন।

জ্যেষ্ঠ তথ্য কর্মকর্তা দীপংকর জানান, অবৈধ জবরদখল উচ্ছেদের মাধ্যমে বনভূমি পুনরুদ্ধার ও তা সংরক্ষণে সরকার কাজ করছে। সুন্দরবনের বৃক্ষ সম্পদের পরিমাণ বেড়েছে। ২০১৯ সালের জাতীয় বন জরিপের তথ্যমতে সুন্দরবনে মোট কার্বন মজুদের পরিমাণ ১৩৯ মিলিয়ন টন, যেখানে ২০০৯ সালে পরিচালিত জরিপ অনুসারে এর পরিমাণ ছিল ১০৭ মিলিয়ন টন।

back to top