alt

রাজনীতি

প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে কোনও সংলাপ নয়: ফখরুল

সংবাদ অনলাইন রিপোর্ট : মঙ্গলবার, ১৪ মার্চ ২০২৩

বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেছেন, তার (প্রধানমন্ত্রী) সঙ্গে আমরাও কোনও সংলাপ করবো না। কারণ, তিনি কথা দিয়ে কথা রাখেন না। ২০১৮ সালের সংলাপে প্রধানমন্ত্রী বলেছিলেন, ‘আর কোনও গ্রেফতার (বিএনপি কর্মীদের) হবে না, পুলিশি হয়রানি হবে না, গায়েবি মামলা হবে না।’ কিন্তু এর তিন দিন পর থেকে আমাদের প্রার্থীদের গ্রেফতার করা হয়েছে, নির্যাতন করা হয়েছে।

মঙ্গলবার (১৪ মার্চ) দুপুরে গুলশান দলীয় চেয়ারপারসনের রাজনৈতিক কার্যালয়ে বিএনপির সঙ্গে সংলাপ নিয়ে প্রধানমন্ত্রীর দেওয়া বক্তব্যের প্রতিক্রিয়ায় সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে মির্জা ফখরুল এসব কথা বলেন। সংবাদ সম্মেলনে তিনি দেশের বিদ্যুৎ পরিস্থিতি নিয়ে লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন।

বিএনপির মহাসচিব উল্লেখ করেন, কালকে (সোমবার) স্বঘোষিত প্রতাপশালী প্রধানমন্ত্রী বলেছেন, কোনও চাপ নেই। এখানেই বোঝা যায়—এই দেশের প্রতি, মানুষের প্রতি তার কোনও দায়িত্ব নেই। মানুষের ভবিষ্যৎ ও এই রাষ্ট্রকে নিয়ে সত্যিকার অর্থে কার্যকর চিন্তা তার নেই। এই চাপগুলো কোথা থেকে আসবে? কারণ, গত নির্বাচনে তারা যত রকমের জালিয়াতি আছে ও যত রকমের সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ড আছে, সেগুলোর মাধ্যমে ভোটারদের ভোটকেন্দ্রে যেতে বাধা দিয়ে ফল ঘোষণা করে বেআইনিভাবে ক্ষমতায় গেছে।’

বিএনপি মহাসচিব বলেন, ‘‘২০১৮ সালের নির্বাচনের উদাহরণ দিয়ে প্রধানমন্ত্রী বলেছেন, ‘কার সঙ্গে কথা বলবো, কার সঙ্গে সংলাপ করবো। এটার রেজাল্ট কী?’ আমাদেরও (বিএনপি) প্রশ্ন একটাই, রেজাল্ট কী? আজকের এই প্রধানমন্ত্রী, তিনি যেভাবেই ক্ষমতায় আসুক, তিনি সবার সামনে ওয়াদা করেছেন—নির্বাচনে সরকার কোনও হস্তক্ষেপ করবে না, পুলিশ আর গ্রেফতার করবে না, কোনও মামলা দেবে না। নির্বাচন পর্যন্ত কোনও পুলিশি হয়রানি করা হবে না। তার তিন দিন পরেই পুলিশি নির্যাতনে সারা দেশে বিএনপি ও বিরোধী দলের নেতাকর্মীরা ঘরবাড়ি থেকে পালিয়ে গেছে। ঘরে ও রাস্তায় থাকতে পারেনি। আমি বিএনপির মহাসচিব, আমার গাড়িতে হামলা করা হয়েছে, পুলিশ দাঁড়িয়ে দাঁড়িয়ে দেখেছে। আমার বাড়ির চারপাশে অবস্থান নিয়েছে পুলিশসহ গোয়েন্দা সংস্থার লোকজন। এসবের পর শেখ হাসিনা বলেছেন, ‘গণতন্ত্রের রেজাল্ট কী?’ রেজাল্ট কী তা তো আপনি জানেন।’’

ফখরুল বলেন, ‘তারপর তিনি কী করে আশা করেন, প্রধানমন্ত্রী সরকারে থাকবেন, আর রাজনৈতিক দলগুলো নির্বাচনে অংশগ্রহণ করবে? আজকে শুধু বিএনপি নয়, সব রাজনৈতিক দল বলছে—এই সরকারের অধীনে নির্বাচনে যাবে না। এমনকি সিপিবিও বলেছে, এই সরকারের অধীনে নির্বাচনে যাবে না।’

দুই ধাপের ভোটেই এমপির স্বজনরা

দুই ধাপের ভোটেই এমপির স্বজনরা

প্রথম ধাপে চার উপজেলায় ভোটের প্রয়োজন নেই

ছবি

মাদারীপুরে দুইটি উপজেলায় ২১ প্রার্থীর প্রতিক বরাদ্দ

ছবি

দেশি-বিদেশি চক্র নির্বাচিত সরকারকে হটানোর চক্রান্ত করছে : কাদের

ছবি

উপজেলা নির্বাচন: পরশুরামে এবারও ভোটের প্রয়োজন হবে না

চেয়ারম্যান পদে জামায়াত নেতার মনোনযন প্রত্যাহার, দুই ভাইস চেয়ারম্যান পদে প্রতিদ্বন্দ্বি প্রার্থী নেই

ছবি

হাতিয়াতে ভোট ছাড়াই জয়ী হচ্ছেন চেয়ারম্যান ও দুই ভাইস-চেয়ারম্যান

ছবি

তাপপ্রবাহের কারণে বিএনপির ২৬ এপ্রিলের সমাবেশ স্থগিত

লালমনিরহাটে দলীয় নির্দেশ উপেক্ষা করেই সাবেক মন্ত্রীর ভাই-ছেলের লড়াই

ছবি

শেষ দিনে মনোনয়নপত্র জমা দিলেন যারা

ছবি

সেনবাগ উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে তিন পদে ১৭ প্রার্থীর মনোনয়ন দাখিল

কসবায় নির্বাচন থেকে সরছেন না মন্ত্রীর আত্মীয় ছাইদুর

ছবি

স্বাস্থ্য সুরক্ষা আইন করে প্রাইভেট হাসপাতালের রোগ নির্ণয় পরীক্ষার ফি নির্ধারণ: স্বাস্থ্য মন্ত্রী

ছবি

রাজনৈতিকভাবে টালমাটাল অবস্থায় বিএনপি : ওবায়দুল কাদের

ছবি

১০ দিনে ৫ লাখ বৃক্ষ রোপণ করবে ছাত্রলীগ

ছবি

সন্ত্রাসী অপরাধে গ্রেপ্তারদেরও নিজেদের কর্মী দাবী করছে বিএনপি : পররাষ্ট্রমন্ত্রী

ছবি

আমরা সবাই মিলে প্রধানমন্ত্রীর উন্নয়নের রাজনীতি করতে চাই-- অর্থ প্রতিমন্ত্রী ওয়াসিকা আয়শা খান এমপি

ছবি

স্থানীয় নির্বাচনে রাজনৈতিক পরিচয়ের প্রয়োজন নেই: ইসি আলমগীর

ছবি

সরকার চোরাবালিতে দাঁড়িয়ে, যেকোনো সময় ডুবে যাবে: রিজভী

ছবি

ইরাকে ইরানপন্থি বাহিনীর ঘাঁটিতে বিমান হামলায় হতাহত ৭

ছবি

আবদুল আউয়াল মিন্টু হাসপাতালে ভর্তি

ছবি

আ.লীগের সব রকম কমিটি গঠন ও সম্মেলন বন্ধ থাকবে : কাদের

ছবি

আমি লজ্জিত-দুঃখিত এবং ক্ষমাপ্রার্থী, দোষীদের কপালে দুঃখ আছে : পলক

ছবি

যারা নুন-ভাতের কথাও ভাবতে পারত না, এখন তারা মাছ-মাংসের চিন্তা করে : শেখ হাসিনা

মন্ত্রী-এমপিদের আত্মীয়দের সরে দাঁড়ানোর নির্দেশ আ’লীগের

ছবি

মুজিবনগর সরকারের ৪০০ টাকা বেতনের কর্মচারী ছিলেন জিয়া : পররাষ্ট্রমন্ত্রী

ছবি

খালেদা জিয়া ডাল-ভাত খাওয়াতেও ব্যর্থ হয়েছিলেন : শেখ হাসিনা

ছবি

বিএনপিসহ স্বাধীনতা বিরোধী অপশক্তিকে প্রতিহত করতে হবে : ওবায়দুল কাদের

ছবি

মুজিবনগর দিবসে বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে প্রধানমন্ত্রীর শ্রদ্ধা

ছবি

মনোনয়নে বিএনপি-জামায়াতের নেতারা, তবে দল দু’টির বর্জনের ঘোষণা

ছবি

আনুষ্ঠানিকভাবে উপজেলা নির্বাচন বর্জনের ঘোষণা বিএনপির

ছবি

হিটলারের চেয়েও ভয়ঙ্কর নেতানিয়াহু : ওবায়দুল কাদের

ছবি

এমপি-মন্ত্রীদের হস্তক্ষেপ না করার নির্দেশ দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী

ছবি

ফখরুলকে চ্যালেঞ্জ ছুড়ে দিলেন ওবায়দুল কাদের

সকল ষড়যন্ত্র ব্যর্থ হওয়ায় বিএনপি এখন মনগড়া তথ্য দিয়ে মিথ্যাচার করছে : ওবায়দুল কাদের

tab

রাজনীতি

প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে কোনও সংলাপ নয়: ফখরুল

সংবাদ অনলাইন রিপোর্ট

মঙ্গলবার, ১৪ মার্চ ২০২৩

বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেছেন, তার (প্রধানমন্ত্রী) সঙ্গে আমরাও কোনও সংলাপ করবো না। কারণ, তিনি কথা দিয়ে কথা রাখেন না। ২০১৮ সালের সংলাপে প্রধানমন্ত্রী বলেছিলেন, ‘আর কোনও গ্রেফতার (বিএনপি কর্মীদের) হবে না, পুলিশি হয়রানি হবে না, গায়েবি মামলা হবে না।’ কিন্তু এর তিন দিন পর থেকে আমাদের প্রার্থীদের গ্রেফতার করা হয়েছে, নির্যাতন করা হয়েছে।

মঙ্গলবার (১৪ মার্চ) দুপুরে গুলশান দলীয় চেয়ারপারসনের রাজনৈতিক কার্যালয়ে বিএনপির সঙ্গে সংলাপ নিয়ে প্রধানমন্ত্রীর দেওয়া বক্তব্যের প্রতিক্রিয়ায় সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে মির্জা ফখরুল এসব কথা বলেন। সংবাদ সম্মেলনে তিনি দেশের বিদ্যুৎ পরিস্থিতি নিয়ে লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন।

বিএনপির মহাসচিব উল্লেখ করেন, কালকে (সোমবার) স্বঘোষিত প্রতাপশালী প্রধানমন্ত্রী বলেছেন, কোনও চাপ নেই। এখানেই বোঝা যায়—এই দেশের প্রতি, মানুষের প্রতি তার কোনও দায়িত্ব নেই। মানুষের ভবিষ্যৎ ও এই রাষ্ট্রকে নিয়ে সত্যিকার অর্থে কার্যকর চিন্তা তার নেই। এই চাপগুলো কোথা থেকে আসবে? কারণ, গত নির্বাচনে তারা যত রকমের জালিয়াতি আছে ও যত রকমের সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ড আছে, সেগুলোর মাধ্যমে ভোটারদের ভোটকেন্দ্রে যেতে বাধা দিয়ে ফল ঘোষণা করে বেআইনিভাবে ক্ষমতায় গেছে।’

বিএনপি মহাসচিব বলেন, ‘‘২০১৮ সালের নির্বাচনের উদাহরণ দিয়ে প্রধানমন্ত্রী বলেছেন, ‘কার সঙ্গে কথা বলবো, কার সঙ্গে সংলাপ করবো। এটার রেজাল্ট কী?’ আমাদেরও (বিএনপি) প্রশ্ন একটাই, রেজাল্ট কী? আজকের এই প্রধানমন্ত্রী, তিনি যেভাবেই ক্ষমতায় আসুক, তিনি সবার সামনে ওয়াদা করেছেন—নির্বাচনে সরকার কোনও হস্তক্ষেপ করবে না, পুলিশ আর গ্রেফতার করবে না, কোনও মামলা দেবে না। নির্বাচন পর্যন্ত কোনও পুলিশি হয়রানি করা হবে না। তার তিন দিন পরেই পুলিশি নির্যাতনে সারা দেশে বিএনপি ও বিরোধী দলের নেতাকর্মীরা ঘরবাড়ি থেকে পালিয়ে গেছে। ঘরে ও রাস্তায় থাকতে পারেনি। আমি বিএনপির মহাসচিব, আমার গাড়িতে হামলা করা হয়েছে, পুলিশ দাঁড়িয়ে দাঁড়িয়ে দেখেছে। আমার বাড়ির চারপাশে অবস্থান নিয়েছে পুলিশসহ গোয়েন্দা সংস্থার লোকজন। এসবের পর শেখ হাসিনা বলেছেন, ‘গণতন্ত্রের রেজাল্ট কী?’ রেজাল্ট কী তা তো আপনি জানেন।’’

ফখরুল বলেন, ‘তারপর তিনি কী করে আশা করেন, প্রধানমন্ত্রী সরকারে থাকবেন, আর রাজনৈতিক দলগুলো নির্বাচনে অংশগ্রহণ করবে? আজকে শুধু বিএনপি নয়, সব রাজনৈতিক দল বলছে—এই সরকারের অধীনে নির্বাচনে যাবে না। এমনকি সিপিবিও বলেছে, এই সরকারের অধীনে নির্বাচনে যাবে না।’

back to top