alt

সম্পাদকীয়

টিসিবির পণ্য বিক্রিতে অনিয়মের অভিযোগ আমলে নিন

: বৃহস্পতিবার, ২২ সেপ্টেম্বর ২০২২

বগুড়ার শেরপুর উপজেলার বিভিন্ন ইউনিয়নে ট্রেডিং করপোরেশন অব বাংলাদেশের (টিসিবি) পণ্য বিক্রিতে অনিয়মের অভিযোগ পাওয়া গেছে। সকাল থেকে সন্ধ্যা পর্যন্ত লাইনে দাঁড়িয়ে অপেক্ষা করেও পণ্য কিনতে পারছেন না কার্ডধারীদের অনেকেই। ডিলারদের বিক্রয় কেন্দ্রের সামনে কার্ড হাতে বিক্ষোভ করেছেন তারা। এ নিয়ে গতকাল বুধবার সংবাদ-এ বিস্তারিত প্রতিবেদন প্রকাশিত হয়েছে।

ভুক্তভোগীসহ স্থানীয় জনপ্রিতিনিধিরা ক্ষোভ প্রকাশ করে জানান, বিগত কয়েক মাস ধরেই টিসিবির পণ্য বিতরণে অনিয়ম হচ্ছে। মাস্টাররোলে ভুয়া স্বাক্ষর দিয়ে টিসিবির পণ্যের সিংহভাগই বিক্রি করে দিয়েছে সংশ্লিষ্ট ডিলাররা। তবে টিসিবির পণ্য বিক্রিতে অনিয়ম-দুর্নীতির কথা অস্বীকার করে ডিলারদের পক্ষ থেকে জানানো হয়, তাদের বেকায়দায় ফেলতে ইউনিয়ন পরিষদ থেকে বরাদ্দের অতিরিক্ত ফ্যামিলি কার্ড বিতরণ করা হয়েছে।

করোনা পরবর্তী সময়ে দ্রব্যমূল্যের ঊর্ধ্বগতি স্বল্প আয়ের মানুষের জন্য সংকট হিসেবে দেখা দেয়। এমন পরিস্থিতিতে এ বছরের মার্চ-এপ্রিলে টিসিবি নিম্নআয়ের এক কোটি পরিবারকে ফ্যামিলি কার্ডের মাধ্যমে সাশ্রয়ী মূল্যে পণ্য সরবরাহের সিদ্ধান্ত নেয়। করোনা পরবর্তী সময়ে নানা কারণেই অনেকের আয়-রোজগার কমে গেছে। কারও কারও আয়ের পথ বন্ধ হয়ে গেছে। তাদের অনেকেরই স্বস্তি ফিরিয়ে দিয়েছে টিসিবি। কিন্তু তারা এখন লাইনে দাঁড়িয়ে পণ্য কিনতে না পারলে তাদের দুর্ভোগ কমবে না।

ফ্যামিলি কার্ডে তালিকা প্রণয়ন থেকে শুরু করে বিতরণ পর্যন্ত নানা অনিয়ম-দুর্নীতির অভিযোগ রয়েছে। অভিযোগ আছে, স্থানীয় প্রশাসনের দায়িত্বপ্রাপ্ত এক শ্রেণীর অসাধু কর্মকর্তাদের সঙ্গে সংশ্লিষ্ট ডিলারদের যোগসাজশ রয়েছে। তারাই মিলেমিশে টিসিবির পণ্য কালোবাজারে বিক্রি করছে। অভিযোগের বিষয়টি খতিয়ে দেখতে হবে। এ ব্যাপারে স্থানীয় প্রশাসনেরই কঠোর ভূমিকা পালন করতে হবে।

বগুড়ার শেরপুরে টিসিবির পণ্য বিক্রিতে অনিয়ম-দুর্নীতির অভিযোগ আমলে নিতে হবে। সুষ্ঠু তদন্তপূর্বক অভিযুক্তদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিতে হবে। ফ্যামিলি কার্ড কার্যক্রমে স্বচ্ছতা-জবাবদিহিতা নিশ্চিত করতে হবে।

ডেঙ্গু নিয়ন্ত্রণে হাল ছাড়লে চলবে না

শান্তিরক্ষা মিশনে বাংলাদেশি সেনাদের আত্মত্যাগ

হাইওয়ের নিরাপত্তা প্রসঙ্গে

জাতীয় গ্রিড বারবার বিপর্যয়ের কারণ কী

সাম্প্রদায়িক হামলার বিচার নিশ্চিত করতে হবে

সাম্প্রদায়িক হামলার বিচার নিশ্চিত করতে হবে

কেঁচো সারের ব্যবহার বাড়াতে হবে

উপানুষ্ঠানিক শিক্ষার নামে হরিলুট বন্ধ করুন

পর্যটকদের নিরাপত্তায় কোন ছাড় নয়

কন্যাশিশু নির্যাতনের ভয়াবহ চিত্র

মুহিবুল্লাহ হত্যার সুষ্ঠু বিচার করা জরুরি

অপ্রয়োজনীয় সি-সেকশন প্রসঙ্গে

বৌদ্ধ সম্প্রদায়ের ওপর হামলার বিচার কি হবে

নদী খননে জোর দিন

জ্বালানি নিরাপত্তার স্বার্থে তেল পরিশোধনের সক্ষমতা বাড়ানো জরুরি

বাল্যবিয়ে বন্ধে কাজীদের ভূমিকা

নদী দখল-দূষণ বন্ধে সংশ্লিষ্টদের দায়িত্বশীল হতে হবে

পাহাড় কাটা বন্ধে ব্যবস্থা নিন

বিশ্ববিদ্যালয়গুলোকে নিয়মের মধ্যে আনা যাচ্ছে না কেন

সুন্দরবনে বিষ দিয়ে মাছ ধরা কঠোরভাবে বন্ধ করুন

নৌকাডুবিতে মর্মান্তিক মৃত্যু

বিদ্যালয়ে কেন ইউনিয়ন পরিষদের কার্যক্রম

যুদ্ধ নয়, শান্তি চাই

কুয়াকাটায় পর্যটকদের ভোগান্তি কমবে কবে

বন্যপ্রাণীর খাবারের সংকট দূর করতে হবে

রাস্তাটি সংস্কার করুন

মাছ ধরায় নিষেধাজ্ঞা চলাকালে জেলেদের পর্যাপ্ত সহায়তা দিন

কৃষককে কেন ভোগান্তি পোহাতে হচ্ছে

শিশুর সুরক্ষায় সমন্বিতভাবে কাজ করতে হবে

রুখতে হবে বাল্যবিয়ে

দ্রুত রাস্তা নির্মাণ করুন

নারী ফুটবল দলকে অভিনন্দন

খালে বাঁধ দিয়ে মাছ চাষ বন্ধ করুন

নতুন শিক্ষাক্রম বাস্তবায়নের চ্যালেঞ্জ

অবৈধ গ্যাস সংযোগ প্রসঙ্গে

নারী ও শিশু নির্যাতনের মামলা দ্রুত নিষ্পত্তি করতে হবে

tab

সম্পাদকীয়

টিসিবির পণ্য বিক্রিতে অনিয়মের অভিযোগ আমলে নিন

বৃহস্পতিবার, ২২ সেপ্টেম্বর ২০২২

বগুড়ার শেরপুর উপজেলার বিভিন্ন ইউনিয়নে ট্রেডিং করপোরেশন অব বাংলাদেশের (টিসিবি) পণ্য বিক্রিতে অনিয়মের অভিযোগ পাওয়া গেছে। সকাল থেকে সন্ধ্যা পর্যন্ত লাইনে দাঁড়িয়ে অপেক্ষা করেও পণ্য কিনতে পারছেন না কার্ডধারীদের অনেকেই। ডিলারদের বিক্রয় কেন্দ্রের সামনে কার্ড হাতে বিক্ষোভ করেছেন তারা। এ নিয়ে গতকাল বুধবার সংবাদ-এ বিস্তারিত প্রতিবেদন প্রকাশিত হয়েছে।

ভুক্তভোগীসহ স্থানীয় জনপ্রিতিনিধিরা ক্ষোভ প্রকাশ করে জানান, বিগত কয়েক মাস ধরেই টিসিবির পণ্য বিতরণে অনিয়ম হচ্ছে। মাস্টাররোলে ভুয়া স্বাক্ষর দিয়ে টিসিবির পণ্যের সিংহভাগই বিক্রি করে দিয়েছে সংশ্লিষ্ট ডিলাররা। তবে টিসিবির পণ্য বিক্রিতে অনিয়ম-দুর্নীতির কথা অস্বীকার করে ডিলারদের পক্ষ থেকে জানানো হয়, তাদের বেকায়দায় ফেলতে ইউনিয়ন পরিষদ থেকে বরাদ্দের অতিরিক্ত ফ্যামিলি কার্ড বিতরণ করা হয়েছে।

করোনা পরবর্তী সময়ে দ্রব্যমূল্যের ঊর্ধ্বগতি স্বল্প আয়ের মানুষের জন্য সংকট হিসেবে দেখা দেয়। এমন পরিস্থিতিতে এ বছরের মার্চ-এপ্রিলে টিসিবি নিম্নআয়ের এক কোটি পরিবারকে ফ্যামিলি কার্ডের মাধ্যমে সাশ্রয়ী মূল্যে পণ্য সরবরাহের সিদ্ধান্ত নেয়। করোনা পরবর্তী সময়ে নানা কারণেই অনেকের আয়-রোজগার কমে গেছে। কারও কারও আয়ের পথ বন্ধ হয়ে গেছে। তাদের অনেকেরই স্বস্তি ফিরিয়ে দিয়েছে টিসিবি। কিন্তু তারা এখন লাইনে দাঁড়িয়ে পণ্য কিনতে না পারলে তাদের দুর্ভোগ কমবে না।

ফ্যামিলি কার্ডে তালিকা প্রণয়ন থেকে শুরু করে বিতরণ পর্যন্ত নানা অনিয়ম-দুর্নীতির অভিযোগ রয়েছে। অভিযোগ আছে, স্থানীয় প্রশাসনের দায়িত্বপ্রাপ্ত এক শ্রেণীর অসাধু কর্মকর্তাদের সঙ্গে সংশ্লিষ্ট ডিলারদের যোগসাজশ রয়েছে। তারাই মিলেমিশে টিসিবির পণ্য কালোবাজারে বিক্রি করছে। অভিযোগের বিষয়টি খতিয়ে দেখতে হবে। এ ব্যাপারে স্থানীয় প্রশাসনেরই কঠোর ভূমিকা পালন করতে হবে।

বগুড়ার শেরপুরে টিসিবির পণ্য বিক্রিতে অনিয়ম-দুর্নীতির অভিযোগ আমলে নিতে হবে। সুষ্ঠু তদন্তপূর্বক অভিযুক্তদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিতে হবে। ফ্যামিলি কার্ড কার্যক্রমে স্বচ্ছতা-জবাবদিহিতা নিশ্চিত করতে হবে।

back to top