alt

সম্পাদকীয়

দেলুয়াবাড়ী চরের কমিউনিটি ক্লিনিক চালু করুন

: শনিবার, ১১ মার্চ ২০২৩

গাইবান্ধার ফুলছড়ি উপজেলার দেলুয়াবাড়ী চরে একটি কমিউনিটি ক্লিনিক স্থাপন করা হয়েছিল। লক্ষ্য ছিল সহজে ও সুলভে চরের দরিদ্র মানুষের প্রাথমিক স্বাস্থ্যসেবা দেয়া। কমিউনিটি ক্লিনিক থাকলে ছোটখাটো সমস্যায় তাদের কষ্ট করে আর উপজেলা স্বাস্থ্যকেন্দ্রে যেতে হবে না। কিন্তু তাদের এই স্বাস্থ্যসেবা পাওয়ার স্বপ্ন অধরাই রয়ে গেছে। এ নিয়ে আজ শনিবার সংবাদ-এ প্রতিবেদন প্রকাশিত হয়েছে।

সরকার হতদরিদ্র মানুষদের দোরগোড়ায় স্বাস্থ্যসেবা পৌঁছে দেয়ার লক্ষ্য ও উদ্দেশ্য নিয়ে সারাদেশে কমিউনিটি ক্লিনিক চালু করে। এসব ক্লিনিকে প্রাথমিক স্বাস্থ্যসেবা দেয়ার কথা রয়েছে। মা ও শিশুর স্বাস্থ্যসেবা, প্রজননস্বাস্থ্য, পরিবার পরিকল্পনা সেবা, টিকাদান কর্মসূচি, পুষ্টি, স্বাস্থ্যশিক্ষা, পরামর্শসহ বিভিন্ন সেবা দেয়া হয়।

দেলুয়াবাড়ী চরের ক্লিনিকটি নির্মাণ করা হয়েছিল ২০১৬ সালে। পরের বছর একজন স্বাস্থ্যকর্মী নিয়োগ দেয়া হয়েছিল। তিনি চাকরি ছেড়ে অন্যত্র চলে গেলে পদটি শূন্য হয়ে যায়। এরপর থেকে ক্লিনিকটি তালাবদ্ধ। যে কারণে চিকিৎসাসেবা থেকে বঞ্চিত হচ্ছেন চরের ১০ থেকে ১২ হাজার দরিদ্র মানুষ। স্থানীয় জনপ্রতিনিধিরা স্বাস্থ্যকর্মী নিয়োগের জন্য সংশ্লিষ্ট দপ্তরকে জানালেও কোনো সমাধান মেলেনি বলে ।

দুর্গম চরে দরিদ্র মানুষদের প্রাথমিক স্বাস্থ্যসেবা নিশ্চিত করার জন্য কমিউনিটি ক্লিনিকটি জরুরিভাবে চালু করা দরকার। শুধু একটি ভবন নির্মাণ করে ফেলে রাখলেই মানুষের স্বাস্থ্যসেবা নিশ্চিত হয়ে যায় না। সেখানে প্রয়োজনীয় লোকবলও নিয়োগ দেয়া জরুরি। ওষুধ ও প্রয়োজনীয় চিকিৎসা সরঞ্জামাদি সরবরাহ করতে হবে। চরের দরিদ্র মানুষ সহজে প্রাথমিক চিকিৎসা সুবিধা পাচ্ছে- এটাই আমরা দেখতে চাই।

তবে শুধু গাইবন্ধার দেলুয়াবাড়ীর কমিউনিটি ক্লিনিক বন্ধ হয়েছে তা নয়- দেশের অনেক স্থানের কমিউনিটি ক্লিনিকই নাজুক অবস্থায় রয়েছে। সংস্কারের অভাবে ভবন জরাজীর্ণ, প্রয়োজনীয় চিকিৎসক ও লোকবল নেই, ওষুধ সংকট, বিদ্যুৎ সরবরাহ সমস্যা ও দালাল চক্রের দৌরাত্ম্য চলছে। সেই সঙ্গে যোগ হয়েছে দুর্নীতি, অনিয়ম ও বিশৃঙ্খলা। এই দুষ্টুচক্র থেকে দেশের কমিউনিটি ক্লিনিকগুলোকে রক্ষা করতে হবে।

টিসিবির পণ্য : ওজনে কম দেয়ার অভিযোগ আমলে নিন

ভৈরব নদে সেতু নির্মাণে অনিয়মের অভিযোগ আমলে নিন

ডায়রিয়া প্রতিরোধে চাই জনসচেতনতা

ফিটনেসবিহীন গণপরিবহন সড়কে চলছে কীভাবে

গোবিন্দগঞ্জে নিয়মনীতি উপেক্ষা করে গাছ কাটার অভিযোগ আমলে নিন

নিষেধাজ্ঞা চলাকালে জেলেদের বিকল্প কর্মসংস্থানের ব্যবস্থা করা জরুরি

অগ্নিনির্বাপণ সরঞ্জাম ব্যবহারে চাই সচেতনতা

অবৈধ ইটভাটার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিন

ভোলাডুবা হাওরের বোরো খেতের পানি নিষ্কাশনে ব্যবস্থা নিন

কিশোর গ্যাংয়ের প্রশ্রয়দাতাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিতে হবে

আদমজী ইপিজেড সড়ক মেরামতে আর কত কালক্ষেপণ

নদ-নদীর নাব্য রক্ষায় কার্যকর ব্যবস্থা নিন

চকরিয়ায় পাহাড় কাটার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিন

গরমে দুর্বিষহ জনজীবন

ভালুকায় খাবার পানির সংকট নিরসনে ব্যবস্থা নিন

সড়কে চাই সুষ্ঠু ব্যবস্থাপনা

লঞ্চ চালাতে হবে নিয়ম মেনে

নতুন বছররে শুভচ্ছো

বিষ ঢেলে মাছ নিধনের অভিযোগ আমলে নিন

ঈদের আনন্দ স্পর্শ করুক সবার জীবন

মীরসরাইয়ের বন রক্ষায় সমন্বিত উদ্যোগ নেয়া জরুরি

স্বাস্থ্য খাতে বরাদ্দ বাড়ানো জরুরি

কৃষকরা কেন তামাক চাষে ঝুঁকছে

রেলক্রসিংয়ে প্রাণহানির দায় কার

আর কত অপেক্ষার পর সেতু পাবে রানিশংকৈলের মানুষ^

পাহাড়ে ব্যাংক হামলা কেন

সিসা দূষণ রোধে আইনের কঠোর বাস্তবায়ন জরুরি

হার্টের রিংয়ের নির্ধারিত দর বাস্তবায়নে মনিটরিং জরুরি

রইচপুর খালে সেতু নির্মাণে আর কত অপেক্ষা

রাজধানীকে যানজটমুক্ত করা যাচ্ছে না কেন

জেলেরা কেন বরাদ্দকৃত চাল পাচ্ছে না

নিয়মতান্ত্রিক সংগঠনের সুযোগ থাকা জরুরি, বন্ধ করতে হবে অপরাজনীতি

ঢাকা-ময়মনসিংহ চার লেন সড়কের ক্ষতিগ্রস্ত অংশে সংস্কার করুন

শিক্ষা খাতে বিনিয়োগ বাড়াতে হবে

স্লুইসগেটের ফাটল মেরামতে উদ্যোগ নিন

পরিবেশ দূষণ বন্ধে সমন্বিত পদক্ষেপ নিতে হবে

tab

সম্পাদকীয়

দেলুয়াবাড়ী চরের কমিউনিটি ক্লিনিক চালু করুন

শনিবার, ১১ মার্চ ২০২৩

গাইবান্ধার ফুলছড়ি উপজেলার দেলুয়াবাড়ী চরে একটি কমিউনিটি ক্লিনিক স্থাপন করা হয়েছিল। লক্ষ্য ছিল সহজে ও সুলভে চরের দরিদ্র মানুষের প্রাথমিক স্বাস্থ্যসেবা দেয়া। কমিউনিটি ক্লিনিক থাকলে ছোটখাটো সমস্যায় তাদের কষ্ট করে আর উপজেলা স্বাস্থ্যকেন্দ্রে যেতে হবে না। কিন্তু তাদের এই স্বাস্থ্যসেবা পাওয়ার স্বপ্ন অধরাই রয়ে গেছে। এ নিয়ে আজ শনিবার সংবাদ-এ প্রতিবেদন প্রকাশিত হয়েছে।

সরকার হতদরিদ্র মানুষদের দোরগোড়ায় স্বাস্থ্যসেবা পৌঁছে দেয়ার লক্ষ্য ও উদ্দেশ্য নিয়ে সারাদেশে কমিউনিটি ক্লিনিক চালু করে। এসব ক্লিনিকে প্রাথমিক স্বাস্থ্যসেবা দেয়ার কথা রয়েছে। মা ও শিশুর স্বাস্থ্যসেবা, প্রজননস্বাস্থ্য, পরিবার পরিকল্পনা সেবা, টিকাদান কর্মসূচি, পুষ্টি, স্বাস্থ্যশিক্ষা, পরামর্শসহ বিভিন্ন সেবা দেয়া হয়।

দেলুয়াবাড়ী চরের ক্লিনিকটি নির্মাণ করা হয়েছিল ২০১৬ সালে। পরের বছর একজন স্বাস্থ্যকর্মী নিয়োগ দেয়া হয়েছিল। তিনি চাকরি ছেড়ে অন্যত্র চলে গেলে পদটি শূন্য হয়ে যায়। এরপর থেকে ক্লিনিকটি তালাবদ্ধ। যে কারণে চিকিৎসাসেবা থেকে বঞ্চিত হচ্ছেন চরের ১০ থেকে ১২ হাজার দরিদ্র মানুষ। স্থানীয় জনপ্রতিনিধিরা স্বাস্থ্যকর্মী নিয়োগের জন্য সংশ্লিষ্ট দপ্তরকে জানালেও কোনো সমাধান মেলেনি বলে ।

দুর্গম চরে দরিদ্র মানুষদের প্রাথমিক স্বাস্থ্যসেবা নিশ্চিত করার জন্য কমিউনিটি ক্লিনিকটি জরুরিভাবে চালু করা দরকার। শুধু একটি ভবন নির্মাণ করে ফেলে রাখলেই মানুষের স্বাস্থ্যসেবা নিশ্চিত হয়ে যায় না। সেখানে প্রয়োজনীয় লোকবলও নিয়োগ দেয়া জরুরি। ওষুধ ও প্রয়োজনীয় চিকিৎসা সরঞ্জামাদি সরবরাহ করতে হবে। চরের দরিদ্র মানুষ সহজে প্রাথমিক চিকিৎসা সুবিধা পাচ্ছে- এটাই আমরা দেখতে চাই।

তবে শুধু গাইবন্ধার দেলুয়াবাড়ীর কমিউনিটি ক্লিনিক বন্ধ হয়েছে তা নয়- দেশের অনেক স্থানের কমিউনিটি ক্লিনিকই নাজুক অবস্থায় রয়েছে। সংস্কারের অভাবে ভবন জরাজীর্ণ, প্রয়োজনীয় চিকিৎসক ও লোকবল নেই, ওষুধ সংকট, বিদ্যুৎ সরবরাহ সমস্যা ও দালাল চক্রের দৌরাত্ম্য চলছে। সেই সঙ্গে যোগ হয়েছে দুর্নীতি, অনিয়ম ও বিশৃঙ্খলা। এই দুষ্টুচক্র থেকে দেশের কমিউনিটি ক্লিনিকগুলোকে রক্ষা করতে হবে।

back to top