alt

চিঠিপত্র

চিঠি : হাসপাতালে অস্বাস্থ্যকর পরিবেশ

: শুক্রবার, ২৪ সেপ্টেম্বর ২০২১

মতামতের জন্য সম্পাদক দায়ী নন

হাসপাতাল থাকবে পরিষ্কার-পরিচ্ছন্নতায় ভরপুর, যা দেখে ইচ্ছে করেই সেখানে বেশি দিন থাকার ইচ্ছে জাগবে। কিন্তু বাস্তবে হাসপাতালের ভেতরে অবস্থা খুবই নাজেহাল। বিভিন্ন দিক থেকে দুর্গন্ধ ছড়িয়ে পড়ায় টেকা যায় না সেখানে। নিরুপায় হয়ে রোগী ও তার স্বজনেরা কোনো রকমে হাসপাতালে সময় পার করছেন। মূলত আমরা হাসপাতালে যাই সুস্থতা লাভের জন্য। কিন্তু জেলা বা বিভাগীয় হাসপাতালগুলোতে দেখা যায় অস্বাস্থ্যকর পরিবেশ। যার কারণে সুস্থতার বদৌলতে আরও অসুস্থ হওয়ার সম্ভাবনা বেশি থাকে। আর সেখানে রোগীর সঙ্গে সুস্থ মানুষ গেলে তিনিও অসুস্থ হতে বেশি সময় লাগে না।

হাসপাতালে যদি মানসম্মত পরিবেশ না হয় তাহলে এর থেকে দুঃখজনক আর কিছু হতে পারে না। হাসপাতালের শয্যা দেখলে এতে কেউ থাকতে চাইবেন না। কিন্তু বাঁচার তাগিদে বাধ্য হয়ে অস্বাস্থ্যকর পরিবেশ ও অপরিচ্ছন্ন শয্যায় রোগীরা থাকছেন। এসব শয্যায় থাকায় রোগীরা আরও অসুস্থ হয়ে পড়বেন। বিশেষ করে টয়লেটের নাজেহাল অবস্থা। কোনো পরিষ্কার-পরিচ্ছন্নতা নেই, দুর্গন্ধ চারিদিকে ছড়িয়ে পড়েছে। এমন পরিবেশে সুস্থ মানুষ ও অসুস্থ হয়ে যাবে। তারপর রোগীর বেডের জানালার সাইড, এমনকি রুমগুলো এত অপরিষ্কার যে টিকে থাকা যায় না সেখানে। হাসপাতালের চারপাশের পরিবেশ ও অস্বাস্থ্যকর। সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের কাছে বিনীত অনুরোধ যে, হাসপাতালের পরিবেশ স্বাস্থ্যসম্মত করার ব্যবস্থা করুন।

সিনথিয়া সুমি

শিক্ষার্থী, বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়, গোপালগঞ্জ

স্তন ক্যান্সার : সচেতনতা প্রয়োজন

চাই ধর্মীয় সহনশীলতা

দুর্যোগ মোকাবিলার প্রস্তুতি

চিঠি : শীত বরণের প্রস্তুতি

চিঠি : বাকৃবি ক্যাম্পাসে বহিরাগতদের দৌরাত্ম্য বন্ধ হোক

চিঠি : ব্যথামুক্ত স্বাভাবিক প্রসব

চিঠি : গ্যাসের অপচয় রোধে প্রয়োজন জনসচেতনতা

প্রাথমিকে শিক্ষকদের টিফিন-ভাতা বাড়ানো হোক

জাদুঘরে টিকিট সংগ্রহে ভোগান্তি

চিঠি : কাশফুল ছেঁড়া থেকে বিরত থাকুন

চিঠি : সন্তান লালন-পালন

চিঠি : সার্বজনীন নয়, সর্বজনীন

চিঠি : গ্রামের সড়কের পাশে বাতির ব্যবস্থা করা হোক

চিঠি : অপার সম্ভাবনার ব্লু-ইকোনমি

চিঠি : বাঙালির শিল্প, সংস্কৃতি ও ঐতিহ্য রক্ষার সময় এখনই

চিঠি : খালটি খনন করুন

চিঠি : সাপ নিয়ে কুসংস্কার পরিহার করুন

চিঠি : গণতন্ত্রের ভিত

চিঠি : শিশুদের মোবাইল ফোন ব্যবহারে সতর্কতা

চিঠি : চিকিৎসকদের লাগামছাড়া ভিজিট, অসহায় রোগীরা

চিঠি : দুর্গাপূজায় সরকারি ছুটি বাড়ানো হোক

চিঠি : সচেতনভাবে মোটরসাইকেল চালান

চিঠি : ট্রেনের টিকিট বিড়ম্বনা

চিঠি : বাংলা সাহিত্য

চিঠি : স্কুলমুখী করতে হবে ঝরে পড়া শিক্ষার্থীদের

চিঠি : পিটিআই ইন্সট্রাক্টর : সংকট কাটাতে উদ্যোগ প্রয়োজন

যানজট নিরসনে সবাইকে সচেতন হতে হবে

পাহাড় কাটা রোধ করুন

চিঠি : সুস্থ থাকতে ‘বাঁশ’ খান

চিঠি : বাড়ছে পরীক্ষা, কমছে শিক্ষা

চিঠি : সেরা ব্যায়াম

চিঠি : ভুঁইফোঁড় পোর্টাল বন্ধের সিদ্ধান্ত যৌক্তিক

চিঠি : আবাসিক হলের খাবারের মান

চিঠি : বিক্ষিপ্ত মনোজগৎ

চিঠি : মোটরসাইকেল চালকরা কবে সচেতন হবেন?

চিঠি : সরকারি অফিসে দালালের দৌরাত্ম্য বন্ধ হোক

tab

চিঠিপত্র

চিঠি : হাসপাতালে অস্বাস্থ্যকর পরিবেশ

মতামতের জন্য সম্পাদক দায়ী নন

শুক্রবার, ২৪ সেপ্টেম্বর ২০২১

হাসপাতাল থাকবে পরিষ্কার-পরিচ্ছন্নতায় ভরপুর, যা দেখে ইচ্ছে করেই সেখানে বেশি দিন থাকার ইচ্ছে জাগবে। কিন্তু বাস্তবে হাসপাতালের ভেতরে অবস্থা খুবই নাজেহাল। বিভিন্ন দিক থেকে দুর্গন্ধ ছড়িয়ে পড়ায় টেকা যায় না সেখানে। নিরুপায় হয়ে রোগী ও তার স্বজনেরা কোনো রকমে হাসপাতালে সময় পার করছেন। মূলত আমরা হাসপাতালে যাই সুস্থতা লাভের জন্য। কিন্তু জেলা বা বিভাগীয় হাসপাতালগুলোতে দেখা যায় অস্বাস্থ্যকর পরিবেশ। যার কারণে সুস্থতার বদৌলতে আরও অসুস্থ হওয়ার সম্ভাবনা বেশি থাকে। আর সেখানে রোগীর সঙ্গে সুস্থ মানুষ গেলে তিনিও অসুস্থ হতে বেশি সময় লাগে না।

হাসপাতালে যদি মানসম্মত পরিবেশ না হয় তাহলে এর থেকে দুঃখজনক আর কিছু হতে পারে না। হাসপাতালের শয্যা দেখলে এতে কেউ থাকতে চাইবেন না। কিন্তু বাঁচার তাগিদে বাধ্য হয়ে অস্বাস্থ্যকর পরিবেশ ও অপরিচ্ছন্ন শয্যায় রোগীরা থাকছেন। এসব শয্যায় থাকায় রোগীরা আরও অসুস্থ হয়ে পড়বেন। বিশেষ করে টয়লেটের নাজেহাল অবস্থা। কোনো পরিষ্কার-পরিচ্ছন্নতা নেই, দুর্গন্ধ চারিদিকে ছড়িয়ে পড়েছে। এমন পরিবেশে সুস্থ মানুষ ও অসুস্থ হয়ে যাবে। তারপর রোগীর বেডের জানালার সাইড, এমনকি রুমগুলো এত অপরিষ্কার যে টিকে থাকা যায় না সেখানে। হাসপাতালের চারপাশের পরিবেশ ও অস্বাস্থ্যকর। সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের কাছে বিনীত অনুরোধ যে, হাসপাতালের পরিবেশ স্বাস্থ্যসম্মত করার ব্যবস্থা করুন।

সিনথিয়া সুমি

শিক্ষার্থী, বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়, গোপালগঞ্জ

back to top