alt

চিঠিপত্র

যানজট নিরসনে সবাইকে সচেতন হতে হবে

: সোমবার, ২৭ সেপ্টেম্বর ২০২১

মতামতের জন্য সম্পাদক দায়ী নন

রাজধানী ঢাকাসহ দেশের বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ শহর-উপশহরে যানজট নতুন কোন সমস্যা নয়। যেখানে সেখানে গাড়ি পার্কিং, উপযোগী অবকাঠামোর অভাব, টার্মিনালের অভাব, ট্রাফিক আইন না মানা, অবৈধভাবে ফুটপাত দখল, উল্টোপথে গাড়ি চালানোসহ নানা কারণে দিনকে দিন এ সমস্যা আরও প্রকট আকার ধারণ করছে। ফলে কর্মঘণ্টা নষ্ট হওয়ার পাশাপাশি ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছে দেশের অর্থনীতি। ঢাকার যানজটের অন্যতম একটি কারণ দীর্ঘ সময় ধরে রাস্তা খোঁড়াখুঁড়ি। প্রধান সড়ক থেকে শুরু করে অলিগলিতে স্যুয়ারেজের লাইন, বিদ্যুৎ, টেলিফোন বা বিভিন্ন মেরামত কাজের জন্য দীর্ঘদিন ধরে কাজ চলে। ক্ষেত্রবিশেষ ফেলে রাখা হয় এসব কাজ।

যানজটের এই মহাদুর্ভোগ থেকে স্বস্তি পেতে সবার আগে আমাদেরকে সচেতন হতে হবে। সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষকে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নিতে হবে। ছোট রাস্তাগুলোকে যথাসম্ভব দীর্ঘ ও প্রশস্ত করতে হবে, যত্রতত্র গাড়ি পার্কিং বন্ধ করতে হবে, লাইসেন্সবিহীন বা অবৈধ যানবাহন চলাচল বন্ধ করতে হবে, ট্রাফিক আইন আরও কার্যকরী ও ট্রাফিক পুলিশের সংখ্যা বৃদ্ধি করতে হবে। যত্রতত্র গাড়ি থামিয়ে যাত্রী ওঠানো বন্ধ করতে হবে।

ব্যস্ততম রাস্তায় রাজনৈতিক মিছিল-মিটিং বন্ধ করতে হবে। অপরিকল্পিত বাড়িঘর নির্মাণ বন্ধ করতে হবে। রাস্তাগুলোকে বহু লেন বিশিষ্ট করে ধীর গতির ও দ্রুত গতির যানবাহনের জন্য আলাদা লেনের ব্যবস্থা করতে হবে। রাজধানীর ওপর চাপ কমিয়ে বিভাগীয় শহরগুলোতে উন্নয়ন অবকাঠামো বিস্তৃত করতে হবে। সরকারের একার পক্ষে এই সমস্যার সমাধান করা সম্ভব নয়, তাই আমাদের সবাইকে যানজট নিরসনে একযোগে কাজ করতে হবে। এ জন্য যাত্রী-চালকসহ আমাদের সবাইকেই সচেতন ও দায়িত্বশীল হতে হবে।

মেহেদী হাসান অর্ণব

শিক্ষার্থী, সরকারি তিতুমীর কলেজ।

জাদুঘরে টিকিট সংগ্রহে ভোগান্তি

চিঠি : কাশফুল ছেঁড়া থেকে বিরত থাকুন

চিঠি : সন্তান লালন-পালন

চিঠি : সার্বজনীন নয়, সর্বজনীন

চিঠি : গ্রামের সড়কের পাশে বাতির ব্যবস্থা করা হোক

চিঠি : অপার সম্ভাবনার ব্লু-ইকোনমি

চিঠি : বাঙালির শিল্প, সংস্কৃতি ও ঐতিহ্য রক্ষার সময় এখনই

চিঠি : খালটি খনন করুন

চিঠি : সাপ নিয়ে কুসংস্কার পরিহার করুন

চিঠি : গণতন্ত্রের ভিত

চিঠি : শিশুদের মোবাইল ফোন ব্যবহারে সতর্কতা

চিঠি : চিকিৎসকদের লাগামছাড়া ভিজিট, অসহায় রোগীরা

চিঠি : দুর্গাপূজায় সরকারি ছুটি বাড়ানো হোক

চিঠি : সচেতনভাবে মোটরসাইকেল চালান

চিঠি : ট্রেনের টিকিট বিড়ম্বনা

চিঠি : বাংলা সাহিত্য

চিঠি : স্কুলমুখী করতে হবে ঝরে পড়া শিক্ষার্থীদের

চিঠি : পিটিআই ইন্সট্রাক্টর : সংকট কাটাতে উদ্যোগ প্রয়োজন

পাহাড় কাটা রোধ করুন

চিঠি : সুস্থ থাকতে ‘বাঁশ’ খান

চিঠি : বাড়ছে পরীক্ষা, কমছে শিক্ষা

চিঠি : সেরা ব্যায়াম

চিঠি : ভুঁইফোঁড় পোর্টাল বন্ধের সিদ্ধান্ত যৌক্তিক

চিঠি : আবাসিক হলের খাবারের মান

চিঠি : হাসপাতালে অস্বাস্থ্যকর পরিবেশ

চিঠি : বিক্ষিপ্ত মনোজগৎ

চিঠি : মোটরসাইকেল চালকরা কবে সচেতন হবেন?

চিঠি : সরকারি অফিসে দালালের দৌরাত্ম্য বন্ধ হোক

চিঠি : ইন্টার্নদের ন্যূনতম সম্মানী নিশ্চিত হোক

চিঠি : মানসিক স্বাস্থ্যঝুঁকি এড়াতে করণীয়

দুর্বোধ্য অক্ষরের প্রেসক্রিপশন

ব্যক্তিগত তথ্যের নিরাপত্তা প্রয়োজন

শিক্ষার্থীদের মাস্ক পরা নিশ্চিত করুন

চিঠি : শিক্ষা হোক বৈষম্যহীন

বইমুখী হোক শিক্ষার্থীরা

বেকারত্ব দূরীকরণের চাবিকাঠি ফ্রিল্যান্সিং

tab

চিঠিপত্র

যানজট নিরসনে সবাইকে সচেতন হতে হবে

মতামতের জন্য সম্পাদক দায়ী নন

সোমবার, ২৭ সেপ্টেম্বর ২০২১

রাজধানী ঢাকাসহ দেশের বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ শহর-উপশহরে যানজট নতুন কোন সমস্যা নয়। যেখানে সেখানে গাড়ি পার্কিং, উপযোগী অবকাঠামোর অভাব, টার্মিনালের অভাব, ট্রাফিক আইন না মানা, অবৈধভাবে ফুটপাত দখল, উল্টোপথে গাড়ি চালানোসহ নানা কারণে দিনকে দিন এ সমস্যা আরও প্রকট আকার ধারণ করছে। ফলে কর্মঘণ্টা নষ্ট হওয়ার পাশাপাশি ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছে দেশের অর্থনীতি। ঢাকার যানজটের অন্যতম একটি কারণ দীর্ঘ সময় ধরে রাস্তা খোঁড়াখুঁড়ি। প্রধান সড়ক থেকে শুরু করে অলিগলিতে স্যুয়ারেজের লাইন, বিদ্যুৎ, টেলিফোন বা বিভিন্ন মেরামত কাজের জন্য দীর্ঘদিন ধরে কাজ চলে। ক্ষেত্রবিশেষ ফেলে রাখা হয় এসব কাজ।

যানজটের এই মহাদুর্ভোগ থেকে স্বস্তি পেতে সবার আগে আমাদেরকে সচেতন হতে হবে। সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষকে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নিতে হবে। ছোট রাস্তাগুলোকে যথাসম্ভব দীর্ঘ ও প্রশস্ত করতে হবে, যত্রতত্র গাড়ি পার্কিং বন্ধ করতে হবে, লাইসেন্সবিহীন বা অবৈধ যানবাহন চলাচল বন্ধ করতে হবে, ট্রাফিক আইন আরও কার্যকরী ও ট্রাফিক পুলিশের সংখ্যা বৃদ্ধি করতে হবে। যত্রতত্র গাড়ি থামিয়ে যাত্রী ওঠানো বন্ধ করতে হবে।

ব্যস্ততম রাস্তায় রাজনৈতিক মিছিল-মিটিং বন্ধ করতে হবে। অপরিকল্পিত বাড়িঘর নির্মাণ বন্ধ করতে হবে। রাস্তাগুলোকে বহু লেন বিশিষ্ট করে ধীর গতির ও দ্রুত গতির যানবাহনের জন্য আলাদা লেনের ব্যবস্থা করতে হবে। রাজধানীর ওপর চাপ কমিয়ে বিভাগীয় শহরগুলোতে উন্নয়ন অবকাঠামো বিস্তৃত করতে হবে। সরকারের একার পক্ষে এই সমস্যার সমাধান করা সম্ভব নয়, তাই আমাদের সবাইকে যানজট নিরসনে একযোগে কাজ করতে হবে। এ জন্য যাত্রী-চালকসহ আমাদের সবাইকেই সচেতন ও দায়িত্বশীল হতে হবে।

মেহেদী হাসান অর্ণব

শিক্ষার্থী, সরকারি তিতুমীর কলেজ।

back to top