alt

খেলা

বাংলাদেশকে ৯ বছর পর ওয়ানডেতে হারালো জিম্বাবুয়ে

ক্রীড়া বার্তা পরিবেশক: : শুক্রবার, ০৫ আগস্ট ২০২২

টি-টোয়েন্টি সিরিজের প্রথম ম্যাচে মূলত সিকান্দর রাজার ব্যাটিং ঝড়ের কাছে পরাস্ত হয়েছিল বাংলাদেশ। ওয়ানডে সিরিজের প্রথম ম্যাচেও ঠিক একই ঘটনা ঘটলো। তিন শতাধি রানের সংগ্রহ গড়েও জিম্বাবুয়ের দুই ব্যাটারের জোড়া শতকের কাছে পরাস্ত হলো তামিম ইকবালরা। ফলে ওয়ানডে সিরিজেও শুরুতে পিছিয়ে পড়লো বাংলাদেশ।

একই সাথে বাংলাদেশের বিপক্ষে ৯ বছর পর ওয়ানডে ম্যাচে জয় তুলে নিলো জিম্বাবুয়ে। বাংলাদেশের বিপক্ষে সর্বশেষ ২০১৩ সালে ওয়ানডে ম্যাচ জিতেছিল জিম্বাবুয়ে ক্রিকেট দল। দীর্ঘ এ সময়ে বাংলাদেশের বিপক্ষে ওয়ানডে ফরম্যাটে ১৯ বার মুখোমুখি হলেও কোন জয় পায়নি জিম্বাবুয়ে।

শুক্রবার (৫ আগস্ট) হারারেতে সিরিজের প্রথম ওয়ানডে ম্যাচে টস হেরে ব্যাটিং নেমে চার ব্যাটারের অর্ধশতকে ৩০৩ রানের সংগ্রহ গড়েছিল বাংলাদেশ। দলের পক্ষে ব্যাট হাতে সর্বোচ্চ ৮১ রান করে আঘাত জনিত কারণে অবসরে গিয়েছিলেন ওপেনার লিটন কুমার দাস। এছাড়া দ্বিতীয় সর্বোচ্চ ৭৩ রান করেন এনামুল হক বিজয়।

৩০৪ রানের লক্ষ্যে ব্যাট করতে নেমে ইনিংসের প্রথম ওভারে মোস্তাফিজুর রহমানের শিকার হয়ে ফেরেন জিম্বাবুয়ের অধিনায়ক এবং ওপেনিং ব্যাটার রেগিস চাকাবাহ। ওভারের প্রথম চার বল ডট দেন মোস্তাফিজ, পঞ্চম বলটি ফাইন লেগে ক্লিপ করে দুই রান নেন চাকাবাহ। শেষ বলটি অফ সাইডে ব্যাক অব লেংথে ফেলেন ফিজ। বলটি কভার দিয়ে খেলতে গিয়ে বটম এজে বোল্ড হন চাকাবাহ। দলীয় ২ আর ব্যক্তিগত ২ রানে ফেরেন জিম্বাবুয়ের অধিনায়ক।

দ্বিতীয় ওভারে বল হাতে আসা শরিফুলকে প্রথম বলেই বাউন্ডারি হাঁকিয়ে স্বাগত জানান মাসাকান্দা। তবে তার এই স্বাগত জানানোর ভঙ্গিটা যেন পছন্দ হয়নি শরিফুলের। তাই তো পঞ্চম বলে মাসাকান্দাকে মোসাদ্দেকের তালুবন্দি করান এই পেসার। শরিফুলকে উড়িয়ে মারতে গিয়ে মাসাকান্দা বল তুলে দেন ঊর্ধ্বগগনে আর সেই বল তালুবন্দি করতে ভুল করেননি মোসাদ্দেক। ৫ বলে ৪ রান করা মাসাকান্দা ফেরেন দলীয় ৬ রানের মাথায়।

এরপর পঞ্চাশোর্ধ জুটি গড়ার পরেই ফেরান ওয়েসলি মাধেভেরকে। তবে চতুর্থ উইকেটে শতরানের জুটি গড়ে জিম্বাবুয়েকে কক্ষে ফিরিয়েছেন ইনোসেন্ট কাইয়া এবং সিকান্দার রাজা।

ব্যাটিং ইনিংসের দ্বিতীয় ওভারেই মাঠে নামতে হয় ইনোসেন্ট কাইয়াকে। অধিনায়ক এবং ওপেনিং ব্যাটার রেগিস চাকাবাহ যখন ফিরলেন তখনই তিনে ব্যাট হাতে আসলেন ইনোসেন্ট। এরপর ফিরলেন তারাইসাই মাসাকান্দা। মাত্র ৬ রানে দ্বিতীয় উইকেট হারায় জিম্বাবুয়ে। এরপর ওয়েসলে মাধেভেরের সঙ্গে জুটি গড়ে প্রাথমিক বিপর্যয় সামাল দেন ইনোসেন্ট। তৃতীয় উইকেটে মাধেভেরের সঙ্গে ৬৮ বলে ৫৬ রানের জুটি গড়েন ইনোসেন্ট। তবে বিপত্তি ঘটে কাইয়া রান আউট হয়ে ফিরে গেলে।

তবে এরপরেই ঘুরে দাঁড়ায় জিম্বাবুয়ে। চতুর্থ উইকেটে সিকান্দার রাজাকে সঙ্গে নিয়ে খেলার চিত্র পাল্টে দেন ইনোসেন্ট। এই জুটি ছুঁয়ে ফেলে শতরান। আর টি-টোয়েন্টি সিরিজের সেরা খেলোয়াড় সিকান্দার রাজা এবং ইনোসেন্ট দুইজনই তুলে নেন অর্ধশতক। এই জুটি শতরান ছোঁয়ার আগেই ভাঙার সুযোগ এসেছিল বাংলাদেশের সামনে। সে সুযোগ হেলায় হারিয়েছেন তাইজুল ইসলাম।তাসকিনের ফুল লেংথ বলে ড্রাইভ করেন রাজা। একটু পিচ করে একটু থমকে আসে বল। তাতে টাইমিং ঠিকমতো না হওয়ায় বল যায় শর্ট কাভারে। সেখানে তাইজুল ছেড়ে ছেড়ে সহজ ক্যাচ। রাজা তখন ব্যাট করছিলেন ৪৩ রানে।

মাত্র ১১২ বলে শতরানের জুটি গড়েন ইনোসেন্ট এবং রাজা। আর এরপরেই ব্যাট ছোটান শতকের দিকে। এর মাঝেই গড়ে ফেলেন জিম্বাবুয়ের ইতিহাসে তৃতীয় সর্বোচ্চ রানের জুটি। ইনিংসের ৩৯তম ওভারের চতুর্থ বলে তাসকিনকে অফ সাইডে ড্রাইভ করে এক রান নিয়ে ক্যারিয়ারের প্রথম সেঞ্চুরি তুলে নেন ইনোসেন্ট কাইয়া। সেঞ্চুরি করতে রাজা খেলেন ১১৫ বল।

ইনোসেন্টের সেঞ্চুরির দুই বল পরে সেঞ্চুরি পূর্ণ করেন সিকান্দার রাজাও। সেঞ্চুরি করতে তিনি খেলেন মাত্র ৮১ বল। চতুর্থ উইকেটে ১৭২ বলে ১৯২ রানের জুটি গড়েন তারা। এরপর ১২২ বলে ১১০ রান করে ফেরেন ইনোসেন্ট কাইয়া। এরপর লুক জঙ্গয়ো ১৯ বলে ২৪ রান করে ফেরেন। তবে উইকেটের আরেক প্রান্ত আকড়ে ধরে দলকে জয় এনে দিয়ে মাঠ ছাড়েন সিকান্দার রাজা। ১০৯ বলে ১৩৫ রানে অপরাজিত থাকেন তিনি। আর জিম্বাবুয়ে ৪৮.২ ওভারে ৫ উইকেটে তুলে ফেলে ৩০৭ রান। অর্থাৎ ১০ বল হাতে রেখে ৫ উইকেটের বিশাল জয়ে সিরিজে ১-০'তে এগিয়ে যায় স্বাগতিকরা।

বাংলাদেশের হয়ে একটি করে উইকেট নেন মোস্তাফিজুর রহমান, শরিফুল ইসলাম, মেহেদি হাসান মিরাজ এবং মোসাদ্দেক হোসেন।

ছবি

বাংলাদেশ-জিম্বাবুয়ে টি-২০ সিরিজ সিকান্দার রাজার নেতৃত্বে জিম্বাবুয়ে দল

ছবি

পাক-কিউই চতুর্থ টি-২০ আজ সিরিজে এগিয়ে যাওয়া লক্ষ্য উভয় দলের

ছবি

বিশ্বকাপের টফিতে ক্রিকেট উত্তাপ

ছবি

মেজর লীগে যাচ্ছেন ফরাসি তারকা জিরুদ

ছবি

টিভিতে আজকের খেলা

ছবি

নিজের বিশ্রাম নিয়ে যা বলছেন শরিফুল

ছবি

বাংলাদেশে এসে পৌঁছেছেন টাইগারদের নতুন কোচ

ছবি

টিভিতে আজকের খেলা

ছবি

টিভিতে আজকের খেলা

ছবি

রিজওয়ানের রেকর্ডের দিনে কিউইদের অনায়াসে হারাল পাকিস্তান

ছবি

মেসিময় ম্যাচে জয় পেল মায়ামি

ছবি

ইউক্রেন-ইসরায়েলকে সামরিক সহায়তা দিতে মার্কিন পার্লামেন্টে বিল পাস

ছবি

টিভিতে আজকের খেলা

ছবি

টিভিতে আজকের খেলা

ছবি

টিভিতে আজকের খেলা

ছবি

আগামীকাল ফিটনেস পরীক্ষা, থাকছেন কি সাকিব?

ছবি

আর্সেনালকে হারিয়ে সেমি-ফাইনালে বায়ার্ন

ছবি

ম্যান সিটির হৃদয় ভেঙে সেমিফাইনালে রিয়াল

ছবি

টিভিতে আজকের খেলা

ছবি

হারের পর আরও বড় দুঃসংবাদ বার্সেলোনার জন্য

ছবি

টিভিতে আজকের খেলা

ছবি

বাংলাদেশের নতুন স্পিন বোলিং কোচ পাকিস্তানের মুশতাক আহমেদ

ছবি

টিভিতে আজকের খেলা

ছবি

বোর্ডের ভুলে বড় ইনজুরিতে পাকিস্তানের পেসার

ছবি

অবিশ্বাস্য ক্যাচে কত টাকার পুরস্কার পেলেন মুস্তাফিজ

ছবি

ঈদের পর প্রথম কার্যদিবস, শুরুতেই বড় পতনে শেয়ারবাজার

ছবি

ঈদের ছুটি কাটিয়ে মাঠে ফিরেছেন শান্ত-তামিমরা

ছবি

টিভিতে আজকের খেলা

ছবি

টিভিতে আজকের খেলা

ছবি

লিভারপুলের বড় হার, এই দলকে ক্লপও চেনেন না

ছবি

লিভারপুলের বড় হারের পর ক্লপ বললেন, ‘ওহ মাই গড, সত্যিই বাজে খেলেছি’

ছবি

লেভারকুজেনের স্বপ্ন যাত্রা, ছুঁয়ে ফেললো ইউভেন্তুসকে

ছবি

টিভিতে আজকের খেলা

ছবি

৫ গোলের থ্রিলারে ঘুরে দাঁড়িয়ে পিএসজিকে হারিয়ে দিল বার্সা

ছবি

আতলেতিকো ঘরের মাঠে জিতে এগিয়ে রইল

ছবি

টিভিতে আজকের খেলা

tab

খেলা

বাংলাদেশকে ৯ বছর পর ওয়ানডেতে হারালো জিম্বাবুয়ে

ক্রীড়া বার্তা পরিবেশক:

শুক্রবার, ০৫ আগস্ট ২০২২

টি-টোয়েন্টি সিরিজের প্রথম ম্যাচে মূলত সিকান্দর রাজার ব্যাটিং ঝড়ের কাছে পরাস্ত হয়েছিল বাংলাদেশ। ওয়ানডে সিরিজের প্রথম ম্যাচেও ঠিক একই ঘটনা ঘটলো। তিন শতাধি রানের সংগ্রহ গড়েও জিম্বাবুয়ের দুই ব্যাটারের জোড়া শতকের কাছে পরাস্ত হলো তামিম ইকবালরা। ফলে ওয়ানডে সিরিজেও শুরুতে পিছিয়ে পড়লো বাংলাদেশ।

একই সাথে বাংলাদেশের বিপক্ষে ৯ বছর পর ওয়ানডে ম্যাচে জয় তুলে নিলো জিম্বাবুয়ে। বাংলাদেশের বিপক্ষে সর্বশেষ ২০১৩ সালে ওয়ানডে ম্যাচ জিতেছিল জিম্বাবুয়ে ক্রিকেট দল। দীর্ঘ এ সময়ে বাংলাদেশের বিপক্ষে ওয়ানডে ফরম্যাটে ১৯ বার মুখোমুখি হলেও কোন জয় পায়নি জিম্বাবুয়ে।

শুক্রবার (৫ আগস্ট) হারারেতে সিরিজের প্রথম ওয়ানডে ম্যাচে টস হেরে ব্যাটিং নেমে চার ব্যাটারের অর্ধশতকে ৩০৩ রানের সংগ্রহ গড়েছিল বাংলাদেশ। দলের পক্ষে ব্যাট হাতে সর্বোচ্চ ৮১ রান করে আঘাত জনিত কারণে অবসরে গিয়েছিলেন ওপেনার লিটন কুমার দাস। এছাড়া দ্বিতীয় সর্বোচ্চ ৭৩ রান করেন এনামুল হক বিজয়।

৩০৪ রানের লক্ষ্যে ব্যাট করতে নেমে ইনিংসের প্রথম ওভারে মোস্তাফিজুর রহমানের শিকার হয়ে ফেরেন জিম্বাবুয়ের অধিনায়ক এবং ওপেনিং ব্যাটার রেগিস চাকাবাহ। ওভারের প্রথম চার বল ডট দেন মোস্তাফিজ, পঞ্চম বলটি ফাইন লেগে ক্লিপ করে দুই রান নেন চাকাবাহ। শেষ বলটি অফ সাইডে ব্যাক অব লেংথে ফেলেন ফিজ। বলটি কভার দিয়ে খেলতে গিয়ে বটম এজে বোল্ড হন চাকাবাহ। দলীয় ২ আর ব্যক্তিগত ২ রানে ফেরেন জিম্বাবুয়ের অধিনায়ক।

দ্বিতীয় ওভারে বল হাতে আসা শরিফুলকে প্রথম বলেই বাউন্ডারি হাঁকিয়ে স্বাগত জানান মাসাকান্দা। তবে তার এই স্বাগত জানানোর ভঙ্গিটা যেন পছন্দ হয়নি শরিফুলের। তাই তো পঞ্চম বলে মাসাকান্দাকে মোসাদ্দেকের তালুবন্দি করান এই পেসার। শরিফুলকে উড়িয়ে মারতে গিয়ে মাসাকান্দা বল তুলে দেন ঊর্ধ্বগগনে আর সেই বল তালুবন্দি করতে ভুল করেননি মোসাদ্দেক। ৫ বলে ৪ রান করা মাসাকান্দা ফেরেন দলীয় ৬ রানের মাথায়।

এরপর পঞ্চাশোর্ধ জুটি গড়ার পরেই ফেরান ওয়েসলি মাধেভেরকে। তবে চতুর্থ উইকেটে শতরানের জুটি গড়ে জিম্বাবুয়েকে কক্ষে ফিরিয়েছেন ইনোসেন্ট কাইয়া এবং সিকান্দার রাজা।

ব্যাটিং ইনিংসের দ্বিতীয় ওভারেই মাঠে নামতে হয় ইনোসেন্ট কাইয়াকে। অধিনায়ক এবং ওপেনিং ব্যাটার রেগিস চাকাবাহ যখন ফিরলেন তখনই তিনে ব্যাট হাতে আসলেন ইনোসেন্ট। এরপর ফিরলেন তারাইসাই মাসাকান্দা। মাত্র ৬ রানে দ্বিতীয় উইকেট হারায় জিম্বাবুয়ে। এরপর ওয়েসলে মাধেভেরের সঙ্গে জুটি গড়ে প্রাথমিক বিপর্যয় সামাল দেন ইনোসেন্ট। তৃতীয় উইকেটে মাধেভেরের সঙ্গে ৬৮ বলে ৫৬ রানের জুটি গড়েন ইনোসেন্ট। তবে বিপত্তি ঘটে কাইয়া রান আউট হয়ে ফিরে গেলে।

তবে এরপরেই ঘুরে দাঁড়ায় জিম্বাবুয়ে। চতুর্থ উইকেটে সিকান্দার রাজাকে সঙ্গে নিয়ে খেলার চিত্র পাল্টে দেন ইনোসেন্ট। এই জুটি ছুঁয়ে ফেলে শতরান। আর টি-টোয়েন্টি সিরিজের সেরা খেলোয়াড় সিকান্দার রাজা এবং ইনোসেন্ট দুইজনই তুলে নেন অর্ধশতক। এই জুটি শতরান ছোঁয়ার আগেই ভাঙার সুযোগ এসেছিল বাংলাদেশের সামনে। সে সুযোগ হেলায় হারিয়েছেন তাইজুল ইসলাম।তাসকিনের ফুল লেংথ বলে ড্রাইভ করেন রাজা। একটু পিচ করে একটু থমকে আসে বল। তাতে টাইমিং ঠিকমতো না হওয়ায় বল যায় শর্ট কাভারে। সেখানে তাইজুল ছেড়ে ছেড়ে সহজ ক্যাচ। রাজা তখন ব্যাট করছিলেন ৪৩ রানে।

মাত্র ১১২ বলে শতরানের জুটি গড়েন ইনোসেন্ট এবং রাজা। আর এরপরেই ব্যাট ছোটান শতকের দিকে। এর মাঝেই গড়ে ফেলেন জিম্বাবুয়ের ইতিহাসে তৃতীয় সর্বোচ্চ রানের জুটি। ইনিংসের ৩৯তম ওভারের চতুর্থ বলে তাসকিনকে অফ সাইডে ড্রাইভ করে এক রান নিয়ে ক্যারিয়ারের প্রথম সেঞ্চুরি তুলে নেন ইনোসেন্ট কাইয়া। সেঞ্চুরি করতে রাজা খেলেন ১১৫ বল।

ইনোসেন্টের সেঞ্চুরির দুই বল পরে সেঞ্চুরি পূর্ণ করেন সিকান্দার রাজাও। সেঞ্চুরি করতে তিনি খেলেন মাত্র ৮১ বল। চতুর্থ উইকেটে ১৭২ বলে ১৯২ রানের জুটি গড়েন তারা। এরপর ১২২ বলে ১১০ রান করে ফেরেন ইনোসেন্ট কাইয়া। এরপর লুক জঙ্গয়ো ১৯ বলে ২৪ রান করে ফেরেন। তবে উইকেটের আরেক প্রান্ত আকড়ে ধরে দলকে জয় এনে দিয়ে মাঠ ছাড়েন সিকান্দার রাজা। ১০৯ বলে ১৩৫ রানে অপরাজিত থাকেন তিনি। আর জিম্বাবুয়ে ৪৮.২ ওভারে ৫ উইকেটে তুলে ফেলে ৩০৭ রান। অর্থাৎ ১০ বল হাতে রেখে ৫ উইকেটের বিশাল জয়ে সিরিজে ১-০'তে এগিয়ে যায় স্বাগতিকরা।

বাংলাদেশের হয়ে একটি করে উইকেট নেন মোস্তাফিজুর রহমান, শরিফুল ইসলাম, মেহেদি হাসান মিরাজ এবং মোসাদ্দেক হোসেন।

back to top