alt

খেলা

বাংলাদেশকে ৯ বছর পর ওয়ানডেতে হারালো জিম্বাবুয়ে

ক্রীড়া বার্তা পরিবেশক: : শুক্রবার, ০৫ আগস্ট ২০২২

টি-টোয়েন্টি সিরিজের প্রথম ম্যাচে মূলত সিকান্দর রাজার ব্যাটিং ঝড়ের কাছে পরাস্ত হয়েছিল বাংলাদেশ। ওয়ানডে সিরিজের প্রথম ম্যাচেও ঠিক একই ঘটনা ঘটলো। তিন শতাধি রানের সংগ্রহ গড়েও জিম্বাবুয়ের দুই ব্যাটারের জোড়া শতকের কাছে পরাস্ত হলো তামিম ইকবালরা। ফলে ওয়ানডে সিরিজেও শুরুতে পিছিয়ে পড়লো বাংলাদেশ।

একই সাথে বাংলাদেশের বিপক্ষে ৯ বছর পর ওয়ানডে ম্যাচে জয় তুলে নিলো জিম্বাবুয়ে। বাংলাদেশের বিপক্ষে সর্বশেষ ২০১৩ সালে ওয়ানডে ম্যাচ জিতেছিল জিম্বাবুয়ে ক্রিকেট দল। দীর্ঘ এ সময়ে বাংলাদেশের বিপক্ষে ওয়ানডে ফরম্যাটে ১৯ বার মুখোমুখি হলেও কোন জয় পায়নি জিম্বাবুয়ে।

শুক্রবার (৫ আগস্ট) হারারেতে সিরিজের প্রথম ওয়ানডে ম্যাচে টস হেরে ব্যাটিং নেমে চার ব্যাটারের অর্ধশতকে ৩০৩ রানের সংগ্রহ গড়েছিল বাংলাদেশ। দলের পক্ষে ব্যাট হাতে সর্বোচ্চ ৮১ রান করে আঘাত জনিত কারণে অবসরে গিয়েছিলেন ওপেনার লিটন কুমার দাস। এছাড়া দ্বিতীয় সর্বোচ্চ ৭৩ রান করেন এনামুল হক বিজয়।

৩০৪ রানের লক্ষ্যে ব্যাট করতে নেমে ইনিংসের প্রথম ওভারে মোস্তাফিজুর রহমানের শিকার হয়ে ফেরেন জিম্বাবুয়ের অধিনায়ক এবং ওপেনিং ব্যাটার রেগিস চাকাবাহ। ওভারের প্রথম চার বল ডট দেন মোস্তাফিজ, পঞ্চম বলটি ফাইন লেগে ক্লিপ করে দুই রান নেন চাকাবাহ। শেষ বলটি অফ সাইডে ব্যাক অব লেংথে ফেলেন ফিজ। বলটি কভার দিয়ে খেলতে গিয়ে বটম এজে বোল্ড হন চাকাবাহ। দলীয় ২ আর ব্যক্তিগত ২ রানে ফেরেন জিম্বাবুয়ের অধিনায়ক।

দ্বিতীয় ওভারে বল হাতে আসা শরিফুলকে প্রথম বলেই বাউন্ডারি হাঁকিয়ে স্বাগত জানান মাসাকান্দা। তবে তার এই স্বাগত জানানোর ভঙ্গিটা যেন পছন্দ হয়নি শরিফুলের। তাই তো পঞ্চম বলে মাসাকান্দাকে মোসাদ্দেকের তালুবন্দি করান এই পেসার। শরিফুলকে উড়িয়ে মারতে গিয়ে মাসাকান্দা বল তুলে দেন ঊর্ধ্বগগনে আর সেই বল তালুবন্দি করতে ভুল করেননি মোসাদ্দেক। ৫ বলে ৪ রান করা মাসাকান্দা ফেরেন দলীয় ৬ রানের মাথায়।

এরপর পঞ্চাশোর্ধ জুটি গড়ার পরেই ফেরান ওয়েসলি মাধেভেরকে। তবে চতুর্থ উইকেটে শতরানের জুটি গড়ে জিম্বাবুয়েকে কক্ষে ফিরিয়েছেন ইনোসেন্ট কাইয়া এবং সিকান্দার রাজা।

ব্যাটিং ইনিংসের দ্বিতীয় ওভারেই মাঠে নামতে হয় ইনোসেন্ট কাইয়াকে। অধিনায়ক এবং ওপেনিং ব্যাটার রেগিস চাকাবাহ যখন ফিরলেন তখনই তিনে ব্যাট হাতে আসলেন ইনোসেন্ট। এরপর ফিরলেন তারাইসাই মাসাকান্দা। মাত্র ৬ রানে দ্বিতীয় উইকেট হারায় জিম্বাবুয়ে। এরপর ওয়েসলে মাধেভেরের সঙ্গে জুটি গড়ে প্রাথমিক বিপর্যয় সামাল দেন ইনোসেন্ট। তৃতীয় উইকেটে মাধেভেরের সঙ্গে ৬৮ বলে ৫৬ রানের জুটি গড়েন ইনোসেন্ট। তবে বিপত্তি ঘটে কাইয়া রান আউট হয়ে ফিরে গেলে।

তবে এরপরেই ঘুরে দাঁড়ায় জিম্বাবুয়ে। চতুর্থ উইকেটে সিকান্দার রাজাকে সঙ্গে নিয়ে খেলার চিত্র পাল্টে দেন ইনোসেন্ট। এই জুটি ছুঁয়ে ফেলে শতরান। আর টি-টোয়েন্টি সিরিজের সেরা খেলোয়াড় সিকান্দার রাজা এবং ইনোসেন্ট দুইজনই তুলে নেন অর্ধশতক। এই জুটি শতরান ছোঁয়ার আগেই ভাঙার সুযোগ এসেছিল বাংলাদেশের সামনে। সে সুযোগ হেলায় হারিয়েছেন তাইজুল ইসলাম।তাসকিনের ফুল লেংথ বলে ড্রাইভ করেন রাজা। একটু পিচ করে একটু থমকে আসে বল। তাতে টাইমিং ঠিকমতো না হওয়ায় বল যায় শর্ট কাভারে। সেখানে তাইজুল ছেড়ে ছেড়ে সহজ ক্যাচ। রাজা তখন ব্যাট করছিলেন ৪৩ রানে।

মাত্র ১১২ বলে শতরানের জুটি গড়েন ইনোসেন্ট এবং রাজা। আর এরপরেই ব্যাট ছোটান শতকের দিকে। এর মাঝেই গড়ে ফেলেন জিম্বাবুয়ের ইতিহাসে তৃতীয় সর্বোচ্চ রানের জুটি। ইনিংসের ৩৯তম ওভারের চতুর্থ বলে তাসকিনকে অফ সাইডে ড্রাইভ করে এক রান নিয়ে ক্যারিয়ারের প্রথম সেঞ্চুরি তুলে নেন ইনোসেন্ট কাইয়া। সেঞ্চুরি করতে রাজা খেলেন ১১৫ বল।

ইনোসেন্টের সেঞ্চুরির দুই বল পরে সেঞ্চুরি পূর্ণ করেন সিকান্দার রাজাও। সেঞ্চুরি করতে তিনি খেলেন মাত্র ৮১ বল। চতুর্থ উইকেটে ১৭২ বলে ১৯২ রানের জুটি গড়েন তারা। এরপর ১২২ বলে ১১০ রান করে ফেরেন ইনোসেন্ট কাইয়া। এরপর লুক জঙ্গয়ো ১৯ বলে ২৪ রান করে ফেরেন। তবে উইকেটের আরেক প্রান্ত আকড়ে ধরে দলকে জয় এনে দিয়ে মাঠ ছাড়েন সিকান্দার রাজা। ১০৯ বলে ১৩৫ রানে অপরাজিত থাকেন তিনি। আর জিম্বাবুয়ে ৪৮.২ ওভারে ৫ উইকেটে তুলে ফেলে ৩০৭ রান। অর্থাৎ ১০ বল হাতে রেখে ৫ উইকেটের বিশাল জয়ে সিরিজে ১-০'তে এগিয়ে যায় স্বাগতিকরা।

বাংলাদেশের হয়ে একটি করে উইকেট নেন মোস্তাফিজুর রহমান, শরিফুল ইসলাম, মেহেদি হাসান মিরাজ এবং মোসাদ্দেক হোসেন।

টিভিতে আজকের খেলার সূচি

ছবি

বেটউইনারের সঙ্গে চুক্তি বাতিল, বিসিবিতে সাকিবের চিঠি

ছবি

বেটউইনার না ছাড়লে সাকিবকে ছাড়বে বিসিবি

ছবি

সাকিবের বিষয়ে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নিতে বিসিবির বৈঠক

ছবি

আফিফকে এখনই কোনো তকমা দিতে নারাজ তামিম

ছবি

এশিয়া কাপে সাকিবকে ছাড়াও খেলতে পারে বাংলাদেশ

টিভিতে আজকের খেলার সূচি

ছবি

ইউরোপিয়ান সুপার কাপও জিতলো রিয়াল

ছবি

বড় জয়ে হোয়াইটওয়াশ এড়াল বাংলাদেশ

ছবি

বাংলাদেশ দলের ঠাঁই হলো গাছতলায়, মেলেনি দুপুরের খাবারও

ছবি

৪০০তম ওয়ানডেতে কঠিন পরীক্ষার সামনে বাংলাদেশ

ছবি

হুট করে নিজের ক্রিকেট ক্যারিয়ার নিয়ে কঠিন সিদ্ধান্ত জানিয়ে দিলেন বোল্ট

ছবি

রিয়াল মাদ্রিদ ও ফ্রাঙ্কফুর্ট ম্যাচ আজ রাতে

টিভিতে আজকের খেলার সূচি

ছবি

৬০০ ছোঁয়ার ম্যাচে বিধ্বংসী পোলার্ড

ছবি

বায়ার্ন সমর্থকদের কাছে ক্ষমা চাইলেন লেফানদভস্কি

ছবি

মেসির মতো খেলোয়াড় আছেন ম্যানসিটিতে!

টিভিতে আজকের খেলার সূচি

ছবি

একা নন, সপরিবারে বার্সেলোনায় ফিরলেন মেসি

ছবি

পরাজয় দিয়ে ম্যানইউতে টেন হ্যাগ যুগ শুরু

ছবি

হাল্যান্ডের জোড়া গোলে ম্যানসিটির উড়ন্ত সূচনা

ছবি

শেষ ম্যাচে ভারতের ইতিহাস

টিভিতে আজকের খেলার সূচি

ছবি

ঘরের মাঠে হোচট খেলো ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড

ছবি

৯ বছর পর জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে সিরিজ হার বাংলাদেশের

ছবি

জিম্বাবুয়েকে ২৯১ রানের টার্গেট দিল বাংলাদেশ

ছবি

টস হেরে ব্যাটিংয়ে বাংলাদেশ

ছবি

সিরিজ বাঁচাতে মাঠে নামছে বাংলাদেশ

ছবি

পেনাল্টি গোলের জয় দিয়ে চেলসির শুরু

ছবি

মেসির দূরন্ত গোলে পিএসজির সহজ জয়

টিভিতে আজকের খেলার সূচি

ছবি

বিশাল জয়ে নতুন মৌসুম শুরু বায়ার্নের

ছবি

জয় দিয়ে শুরু হলো আর্সেনালের

টিভিতে আজকের খেলার সূচি

ছবি

প্রথম বাংলাদেশি হিসেবে ৮ হাজারি ক্লাবে তামিম

ছবি

স্ট্রেচারে শুয়ে মাঠ ছাড়লেন লিটন

tab

খেলা

বাংলাদেশকে ৯ বছর পর ওয়ানডেতে হারালো জিম্বাবুয়ে

ক্রীড়া বার্তা পরিবেশক:

শুক্রবার, ০৫ আগস্ট ২০২২

টি-টোয়েন্টি সিরিজের প্রথম ম্যাচে মূলত সিকান্দর রাজার ব্যাটিং ঝড়ের কাছে পরাস্ত হয়েছিল বাংলাদেশ। ওয়ানডে সিরিজের প্রথম ম্যাচেও ঠিক একই ঘটনা ঘটলো। তিন শতাধি রানের সংগ্রহ গড়েও জিম্বাবুয়ের দুই ব্যাটারের জোড়া শতকের কাছে পরাস্ত হলো তামিম ইকবালরা। ফলে ওয়ানডে সিরিজেও শুরুতে পিছিয়ে পড়লো বাংলাদেশ।

একই সাথে বাংলাদেশের বিপক্ষে ৯ বছর পর ওয়ানডে ম্যাচে জয় তুলে নিলো জিম্বাবুয়ে। বাংলাদেশের বিপক্ষে সর্বশেষ ২০১৩ সালে ওয়ানডে ম্যাচ জিতেছিল জিম্বাবুয়ে ক্রিকেট দল। দীর্ঘ এ সময়ে বাংলাদেশের বিপক্ষে ওয়ানডে ফরম্যাটে ১৯ বার মুখোমুখি হলেও কোন জয় পায়নি জিম্বাবুয়ে।

শুক্রবার (৫ আগস্ট) হারারেতে সিরিজের প্রথম ওয়ানডে ম্যাচে টস হেরে ব্যাটিং নেমে চার ব্যাটারের অর্ধশতকে ৩০৩ রানের সংগ্রহ গড়েছিল বাংলাদেশ। দলের পক্ষে ব্যাট হাতে সর্বোচ্চ ৮১ রান করে আঘাত জনিত কারণে অবসরে গিয়েছিলেন ওপেনার লিটন কুমার দাস। এছাড়া দ্বিতীয় সর্বোচ্চ ৭৩ রান করেন এনামুল হক বিজয়।

৩০৪ রানের লক্ষ্যে ব্যাট করতে নেমে ইনিংসের প্রথম ওভারে মোস্তাফিজুর রহমানের শিকার হয়ে ফেরেন জিম্বাবুয়ের অধিনায়ক এবং ওপেনিং ব্যাটার রেগিস চাকাবাহ। ওভারের প্রথম চার বল ডট দেন মোস্তাফিজ, পঞ্চম বলটি ফাইন লেগে ক্লিপ করে দুই রান নেন চাকাবাহ। শেষ বলটি অফ সাইডে ব্যাক অব লেংথে ফেলেন ফিজ। বলটি কভার দিয়ে খেলতে গিয়ে বটম এজে বোল্ড হন চাকাবাহ। দলীয় ২ আর ব্যক্তিগত ২ রানে ফেরেন জিম্বাবুয়ের অধিনায়ক।

দ্বিতীয় ওভারে বল হাতে আসা শরিফুলকে প্রথম বলেই বাউন্ডারি হাঁকিয়ে স্বাগত জানান মাসাকান্দা। তবে তার এই স্বাগত জানানোর ভঙ্গিটা যেন পছন্দ হয়নি শরিফুলের। তাই তো পঞ্চম বলে মাসাকান্দাকে মোসাদ্দেকের তালুবন্দি করান এই পেসার। শরিফুলকে উড়িয়ে মারতে গিয়ে মাসাকান্দা বল তুলে দেন ঊর্ধ্বগগনে আর সেই বল তালুবন্দি করতে ভুল করেননি মোসাদ্দেক। ৫ বলে ৪ রান করা মাসাকান্দা ফেরেন দলীয় ৬ রানের মাথায়।

এরপর পঞ্চাশোর্ধ জুটি গড়ার পরেই ফেরান ওয়েসলি মাধেভেরকে। তবে চতুর্থ উইকেটে শতরানের জুটি গড়ে জিম্বাবুয়েকে কক্ষে ফিরিয়েছেন ইনোসেন্ট কাইয়া এবং সিকান্দার রাজা।

ব্যাটিং ইনিংসের দ্বিতীয় ওভারেই মাঠে নামতে হয় ইনোসেন্ট কাইয়াকে। অধিনায়ক এবং ওপেনিং ব্যাটার রেগিস চাকাবাহ যখন ফিরলেন তখনই তিনে ব্যাট হাতে আসলেন ইনোসেন্ট। এরপর ফিরলেন তারাইসাই মাসাকান্দা। মাত্র ৬ রানে দ্বিতীয় উইকেট হারায় জিম্বাবুয়ে। এরপর ওয়েসলে মাধেভেরের সঙ্গে জুটি গড়ে প্রাথমিক বিপর্যয় সামাল দেন ইনোসেন্ট। তৃতীয় উইকেটে মাধেভেরের সঙ্গে ৬৮ বলে ৫৬ রানের জুটি গড়েন ইনোসেন্ট। তবে বিপত্তি ঘটে কাইয়া রান আউট হয়ে ফিরে গেলে।

তবে এরপরেই ঘুরে দাঁড়ায় জিম্বাবুয়ে। চতুর্থ উইকেটে সিকান্দার রাজাকে সঙ্গে নিয়ে খেলার চিত্র পাল্টে দেন ইনোসেন্ট। এই জুটি ছুঁয়ে ফেলে শতরান। আর টি-টোয়েন্টি সিরিজের সেরা খেলোয়াড় সিকান্দার রাজা এবং ইনোসেন্ট দুইজনই তুলে নেন অর্ধশতক। এই জুটি শতরান ছোঁয়ার আগেই ভাঙার সুযোগ এসেছিল বাংলাদেশের সামনে। সে সুযোগ হেলায় হারিয়েছেন তাইজুল ইসলাম।তাসকিনের ফুল লেংথ বলে ড্রাইভ করেন রাজা। একটু পিচ করে একটু থমকে আসে বল। তাতে টাইমিং ঠিকমতো না হওয়ায় বল যায় শর্ট কাভারে। সেখানে তাইজুল ছেড়ে ছেড়ে সহজ ক্যাচ। রাজা তখন ব্যাট করছিলেন ৪৩ রানে।

মাত্র ১১২ বলে শতরানের জুটি গড়েন ইনোসেন্ট এবং রাজা। আর এরপরেই ব্যাট ছোটান শতকের দিকে। এর মাঝেই গড়ে ফেলেন জিম্বাবুয়ের ইতিহাসে তৃতীয় সর্বোচ্চ রানের জুটি। ইনিংসের ৩৯তম ওভারের চতুর্থ বলে তাসকিনকে অফ সাইডে ড্রাইভ করে এক রান নিয়ে ক্যারিয়ারের প্রথম সেঞ্চুরি তুলে নেন ইনোসেন্ট কাইয়া। সেঞ্চুরি করতে রাজা খেলেন ১১৫ বল।

ইনোসেন্টের সেঞ্চুরির দুই বল পরে সেঞ্চুরি পূর্ণ করেন সিকান্দার রাজাও। সেঞ্চুরি করতে তিনি খেলেন মাত্র ৮১ বল। চতুর্থ উইকেটে ১৭২ বলে ১৯২ রানের জুটি গড়েন তারা। এরপর ১২২ বলে ১১০ রান করে ফেরেন ইনোসেন্ট কাইয়া। এরপর লুক জঙ্গয়ো ১৯ বলে ২৪ রান করে ফেরেন। তবে উইকেটের আরেক প্রান্ত আকড়ে ধরে দলকে জয় এনে দিয়ে মাঠ ছাড়েন সিকান্দার রাজা। ১০৯ বলে ১৩৫ রানে অপরাজিত থাকেন তিনি। আর জিম্বাবুয়ে ৪৮.২ ওভারে ৫ উইকেটে তুলে ফেলে ৩০৭ রান। অর্থাৎ ১০ বল হাতে রেখে ৫ উইকেটের বিশাল জয়ে সিরিজে ১-০'তে এগিয়ে যায় স্বাগতিকরা।

বাংলাদেশের হয়ে একটি করে উইকেট নেন মোস্তাফিজুর রহমান, শরিফুল ইসলাম, মেহেদি হাসান মিরাজ এবং মোসাদ্দেক হোসেন।

back to top