alt

খেলা

গ্র্যাজুয়েট হওয়ার স্বপ্নপূরণে গর্বিত সাকিব

ক্রীড়া প্রতিবেদক : রোববার, ১৯ মার্চ ২০২৩

গতকাল বাংলাদেশের জার্সি গায়ে সিলেটে ম্যাচ জয়ের নায়ক হয়েছেন সাকিব আল হাসান। রোববার তাকে দেখা গেল ঢাকায় কালো-সবুজ গাউন গায়ে। ২২ গজে ব্যাট উঁচিয়ে ধরেছেন তিনি অনেকবার। এবার সমাবর্তনের মঞ্চে উঠে উঁচিয়ে ধরলেন হ্যাট। মুখে তার চওড়া হাসি। বাংলাদেশের সর্বকালের সেরা ক্রিকেটার, বিশ্ব ক্রিকেটে রাজত্ব করা অলরাউন্ডার এখন আনুষ্ঠানিকভাবে একজন গ্র্যাজুয়েট!

সিলেটে আয়ারল্যান্ডের বিপক্ষে ওয়ানডে সিরিজের প্রথম ম্যাচে শনিবার ৮৯ বলে ৯৩ রানের ইনিংস খেলার পর বল হাতে দলকে প্রথম ব্রেক থ্রু এনে দেন সাকিব। দলকে জেতানোর পরদিন ঢাকায় আমেরিকান ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটি বাংলাদেশ-এর ২১ তম সমাবর্তনে উপস্থিত হন তিনি। গ্র্যাজুয়েটদের তালিকায় তার নাম দেখা যায় ‘খন্দকার সাকিব আল হাসান’ হিসেবে।

আগের দিন ম্যাচ খেলা বাংলাদেশ দলের কোনো আনুষ্ঠানিক কার্যক্রম নেই এ দিন। এই ফাঁকে সাকিব পৌঁছে যান সমাবর্তনে।

সেই ২০০৯-১০ সেশনে এই বিশ্ববিদ্যালয়ের ব্যাচেলর অব বিজনেস অ্যাডমিনিস্ট্রেশনে ভর্তি হয়েছিলেন সাকিব। বয়সভিত্তিক ক্রিকেট রাঙিয়ে সেই ১৯ বছর বয়স থেকে জাতীয় দলে খেলছেন তিনি। আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে পা রাখার পর থেকেই হয়ে উঠেছেন দলের অবিচ্ছেদ্দ অংশ। ২২ বছর বয়সে দেশের অধিনায়কও হয়ে গিয়েছেন। ক্রিকেটে মাঠে দাপুটে পথচলার কারণে প্রাতিষ্ঠানিক শিক্ষার পথে সেভাবে এগোতে পারেনি। অবশেষে দীর্ঘ পথ পেরিয়ে তিনি বিবিএ সম্পন্ন করলেন।

ক্রিকেট মাঠে ২২ গজে বিশ্বসেরা ব্যাটসম্যান ও বোলারদের সামনে বুক চিতিয়ে লড়াই করেন যিনি, সেই সাকিব সমাবর্তনের দিন মাইক্রোফোনের সামনে ছিলেন নার্ভাস।

‌‌‘আমি প্রশ্নোত্তর পর্ব ভালো পারি। তবে বক্তৃতা ভালো পারি না। বক্তৃতায় আমার খুব সমস্যা হয়। আমি খুবই নার্ভাস। এমন মনে হচ্ছে যেন, টেস্ট অভিষেকে যখন ক্যাপটা পেয়েছিলাম, তখন যে অনুভুতি ছিল, আজকে এরকমই মনে হচ্ছে (সমাবর্তনের) হ্যাট পেয়ে।’

ক্রিকেট মাঠে তার অর্জনের শেষ নেই। আইসিসি অলরাউন্ডারদের র‌্যাঙ্কিংয়ে তার দাপ সেই ২০০৯ সাল থেকে। বাংলাদেশের ক্রিকেটে অনেক ‘প্রথমের’ জন্ম তার হাত ধরে। রেকর্ড বইয়ের অসংখ্য পাতায় তার নাম। তবে পড়াশোনার আঙিনায় আনুষ্ঠানিক ডিগ্রি পেয়ে আপ্লুত সাকিব সমাবর্তন বক্তৃতায় বললেন তার গর্বের কথা।

“সদ্যি কথা বলতে, ২০০৯ সালের দিকেও, জাতীয় দলে যখন ৩ বছর হয়ে গিয়েছে আমার ক্রিকেট খেলার, তখনও আম্মা যখন ফোন করত, জিজ্ঞেস করত যে পড়াশোনার কী অবস্থা। আজকে আমি খুবই খুশি, খুবই আনন্দিত এবং খুবই গর্বিত যে, অবশেষে আমার স্বপ্ন একটা পূরণ হলো। খেলার মাঠে হয়তো বেশি কিছু অর্জন আছে আমার, তবে এটা সবসময় আমার স্বপ্ন ছিল ছিল।”

“খুব বেশি কিছু বলার নেই। সবাইকে দেখে খুব ভালো লাগছে। আমি নিশ্চিত, আপনাদের জীবন সামনে এগিয়ে যাবে। শুধু একটা কথাই বলব, যখন আপনারা স্বপ্ন দেখবেন, স্বপ্নটা বড় দেখবেন এবং স্বপ্নের একটা লক্ষ্য নির্ধারণ করে সততার সাথে কাজ করবেন। আমি নিশ্চিত আপনাদের সবার স্বপ্ন পূরণ হবে। আমরা সবাই মিলে বাংলাদেশকে সামনের দিবে এগিয়ে নিয়ে যেতে পারব।”

ছবি

বাংলাদেশ-জিম্বাবুয়ে টি-২০ সিরিজ সিকান্দার রাজার নেতৃত্বে জিম্বাবুয়ে দল

ছবি

পাক-কিউই চতুর্থ টি-২০ আজ সিরিজে এগিয়ে যাওয়া লক্ষ্য উভয় দলের

ছবি

বিশ্বকাপের টফিতে ক্রিকেট উত্তাপ

ছবি

মেজর লীগে যাচ্ছেন ফরাসি তারকা জিরুদ

ছবি

টিভিতে আজকের খেলা

ছবি

নিজের বিশ্রাম নিয়ে যা বলছেন শরিফুল

ছবি

বাংলাদেশে এসে পৌঁছেছেন টাইগারদের নতুন কোচ

ছবি

টিভিতে আজকের খেলা

ছবি

টিভিতে আজকের খেলা

ছবি

রিজওয়ানের রেকর্ডের দিনে কিউইদের অনায়াসে হারাল পাকিস্তান

ছবি

মেসিময় ম্যাচে জয় পেল মায়ামি

ছবি

ইউক্রেন-ইসরায়েলকে সামরিক সহায়তা দিতে মার্কিন পার্লামেন্টে বিল পাস

ছবি

টিভিতে আজকের খেলা

ছবি

টিভিতে আজকের খেলা

ছবি

টিভিতে আজকের খেলা

ছবি

আগামীকাল ফিটনেস পরীক্ষা, থাকছেন কি সাকিব?

ছবি

আর্সেনালকে হারিয়ে সেমি-ফাইনালে বায়ার্ন

ছবি

ম্যান সিটির হৃদয় ভেঙে সেমিফাইনালে রিয়াল

ছবি

টিভিতে আজকের খেলা

ছবি

হারের পর আরও বড় দুঃসংবাদ বার্সেলোনার জন্য

ছবি

টিভিতে আজকের খেলা

ছবি

বাংলাদেশের নতুন স্পিন বোলিং কোচ পাকিস্তানের মুশতাক আহমেদ

ছবি

টিভিতে আজকের খেলা

ছবি

বোর্ডের ভুলে বড় ইনজুরিতে পাকিস্তানের পেসার

ছবি

অবিশ্বাস্য ক্যাচে কত টাকার পুরস্কার পেলেন মুস্তাফিজ

ছবি

ঈদের পর প্রথম কার্যদিবস, শুরুতেই বড় পতনে শেয়ারবাজার

ছবি

ঈদের ছুটি কাটিয়ে মাঠে ফিরেছেন শান্ত-তামিমরা

ছবি

টিভিতে আজকের খেলা

ছবি

টিভিতে আজকের খেলা

ছবি

লিভারপুলের বড় হার, এই দলকে ক্লপও চেনেন না

ছবি

লিভারপুলের বড় হারের পর ক্লপ বললেন, ‘ওহ মাই গড, সত্যিই বাজে খেলেছি’

ছবি

লেভারকুজেনের স্বপ্ন যাত্রা, ছুঁয়ে ফেললো ইউভেন্তুসকে

ছবি

টিভিতে আজকের খেলা

ছবি

৫ গোলের থ্রিলারে ঘুরে দাঁড়িয়ে পিএসজিকে হারিয়ে দিল বার্সা

ছবি

আতলেতিকো ঘরের মাঠে জিতে এগিয়ে রইল

ছবি

টিভিতে আজকের খেলা

tab

খেলা

গ্র্যাজুয়েট হওয়ার স্বপ্নপূরণে গর্বিত সাকিব

ক্রীড়া প্রতিবেদক

রোববার, ১৯ মার্চ ২০২৩

গতকাল বাংলাদেশের জার্সি গায়ে সিলেটে ম্যাচ জয়ের নায়ক হয়েছেন সাকিব আল হাসান। রোববার তাকে দেখা গেল ঢাকায় কালো-সবুজ গাউন গায়ে। ২২ গজে ব্যাট উঁচিয়ে ধরেছেন তিনি অনেকবার। এবার সমাবর্তনের মঞ্চে উঠে উঁচিয়ে ধরলেন হ্যাট। মুখে তার চওড়া হাসি। বাংলাদেশের সর্বকালের সেরা ক্রিকেটার, বিশ্ব ক্রিকেটে রাজত্ব করা অলরাউন্ডার এখন আনুষ্ঠানিকভাবে একজন গ্র্যাজুয়েট!

সিলেটে আয়ারল্যান্ডের বিপক্ষে ওয়ানডে সিরিজের প্রথম ম্যাচে শনিবার ৮৯ বলে ৯৩ রানের ইনিংস খেলার পর বল হাতে দলকে প্রথম ব্রেক থ্রু এনে দেন সাকিব। দলকে জেতানোর পরদিন ঢাকায় আমেরিকান ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটি বাংলাদেশ-এর ২১ তম সমাবর্তনে উপস্থিত হন তিনি। গ্র্যাজুয়েটদের তালিকায় তার নাম দেখা যায় ‘খন্দকার সাকিব আল হাসান’ হিসেবে।

আগের দিন ম্যাচ খেলা বাংলাদেশ দলের কোনো আনুষ্ঠানিক কার্যক্রম নেই এ দিন। এই ফাঁকে সাকিব পৌঁছে যান সমাবর্তনে।

সেই ২০০৯-১০ সেশনে এই বিশ্ববিদ্যালয়ের ব্যাচেলর অব বিজনেস অ্যাডমিনিস্ট্রেশনে ভর্তি হয়েছিলেন সাকিব। বয়সভিত্তিক ক্রিকেট রাঙিয়ে সেই ১৯ বছর বয়স থেকে জাতীয় দলে খেলছেন তিনি। আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে পা রাখার পর থেকেই হয়ে উঠেছেন দলের অবিচ্ছেদ্দ অংশ। ২২ বছর বয়সে দেশের অধিনায়কও হয়ে গিয়েছেন। ক্রিকেটে মাঠে দাপুটে পথচলার কারণে প্রাতিষ্ঠানিক শিক্ষার পথে সেভাবে এগোতে পারেনি। অবশেষে দীর্ঘ পথ পেরিয়ে তিনি বিবিএ সম্পন্ন করলেন।

ক্রিকেট মাঠে ২২ গজে বিশ্বসেরা ব্যাটসম্যান ও বোলারদের সামনে বুক চিতিয়ে লড়াই করেন যিনি, সেই সাকিব সমাবর্তনের দিন মাইক্রোফোনের সামনে ছিলেন নার্ভাস।

‌‌‘আমি প্রশ্নোত্তর পর্ব ভালো পারি। তবে বক্তৃতা ভালো পারি না। বক্তৃতায় আমার খুব সমস্যা হয়। আমি খুবই নার্ভাস। এমন মনে হচ্ছে যেন, টেস্ট অভিষেকে যখন ক্যাপটা পেয়েছিলাম, তখন যে অনুভুতি ছিল, আজকে এরকমই মনে হচ্ছে (সমাবর্তনের) হ্যাট পেয়ে।’

ক্রিকেট মাঠে তার অর্জনের শেষ নেই। আইসিসি অলরাউন্ডারদের র‌্যাঙ্কিংয়ে তার দাপ সেই ২০০৯ সাল থেকে। বাংলাদেশের ক্রিকেটে অনেক ‘প্রথমের’ জন্ম তার হাত ধরে। রেকর্ড বইয়ের অসংখ্য পাতায় তার নাম। তবে পড়াশোনার আঙিনায় আনুষ্ঠানিক ডিগ্রি পেয়ে আপ্লুত সাকিব সমাবর্তন বক্তৃতায় বললেন তার গর্বের কথা।

“সদ্যি কথা বলতে, ২০০৯ সালের দিকেও, জাতীয় দলে যখন ৩ বছর হয়ে গিয়েছে আমার ক্রিকেট খেলার, তখনও আম্মা যখন ফোন করত, জিজ্ঞেস করত যে পড়াশোনার কী অবস্থা। আজকে আমি খুবই খুশি, খুবই আনন্দিত এবং খুবই গর্বিত যে, অবশেষে আমার স্বপ্ন একটা পূরণ হলো। খেলার মাঠে হয়তো বেশি কিছু অর্জন আছে আমার, তবে এটা সবসময় আমার স্বপ্ন ছিল ছিল।”

“খুব বেশি কিছু বলার নেই। সবাইকে দেখে খুব ভালো লাগছে। আমি নিশ্চিত, আপনাদের জীবন সামনে এগিয়ে যাবে। শুধু একটা কথাই বলব, যখন আপনারা স্বপ্ন দেখবেন, স্বপ্নটা বড় দেখবেন এবং স্বপ্নের একটা লক্ষ্য নির্ধারণ করে সততার সাথে কাজ করবেন। আমি নিশ্চিত আপনাদের সবার স্বপ্ন পূরণ হবে। আমরা সবাই মিলে বাংলাদেশকে সামনের দিবে এগিয়ে নিয়ে যেতে পারব।”

back to top