alt

চিঠিপত্র

চিঠি : কারিগরি বিশ্ববিদ্যালয় স্থাপন জরুরি

: রোববার, ১০ ডিসেম্বর ২০২৩

মতামতের জন্য সম্পাদক দায়ী নন

ডুয়েটসহ ২/১টি বিশ্ববিদ্যালয়ে কারিগরি শিক্ষার্থীদের উচ্চ শিক্ষা লাভের সুযোগ আছে। তাও সীমিত সংখ্যক আসনে। শেষপর্যন্ত অনেক কারিগরি শিক্ষার্থী হতাশাগ্রস্ত হয়ে পড়ে। তাদের শিক্ষা ও কর্মজীবন ভালোভাবে গড়ার আর স্বপ্ন পর্যন্ত দেখে না।

দেশের সাধারণ শিক্ষার্থীদের জন্য রয়েছে জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়। মাদ্রাসা শিক্ষার্থীদের জন্য রয়েছে ইসলামী আরবী বিশ্ববিদ্যালয়। আর ঝরে পড়া শিক্ষার্থীদের জন্য রয়েছে দূরশিক্ষণ পদ্ধতির বাংলাদেশ উন্মুক্ত বিশ্ববিদ্যালয়। কিন্তু দুঃখের বিষয়, এখনো কারিগরি শিক্ষার্থীদের জন্য আলাদা কোন পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয় নেই, যেখানে তারা উচ্চ শিক্ষা লাভ করতে পারবে।

জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়, বাংলাদেশ উন্মুক্ত বিশ্ববিদ্যালয় এবং ইসলামী আরবী বিশ্ববিদ্যালয়ের মতো পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয় হিসেবে প্রস্তাবিত ‘বাংলাদেশ কারিগরি বিশ্ববিদ্যালয়’ও স্নাতক পর্যায়ের কলেজ বা ইনস্টিটিউটগুলোতে স্নাতক-স্নাতকোত্তর কোর্স চালাতে পারবে; যদি সেটা গড়ে তোলা যায়।

কারিগরি অধিদপ্তর, কারিগরি শিক্ষাবোর্ড ও শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের প্রতি আকুল আবেদন আপনারা দেশের এত বিশালসংখ্যক কারিগরি/পলিটেকনিক শিক্ষার্থীদের কথা চিন্তা করে স্থাপন করার অনুরোধ রইল বাংলাদেশ কারিগরি বিশ্ববিদ্যালয়। এই পাবলিক কারিগরি বিশ্ববিদ্যালয়ের স্থান নির্ধারণ অন্যান্য পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়ের মতো গাজীপুর কিংবা ঢাকায় না করে ঢাকার বাইরে গবেষণা ও প্রশাসনিক কাজের সুবিধার্তে বড় জায়গায় করা উচিত। কারণ ঢাকায় আর জায়গা বাকি আছে মনে হয় না।

সাম্প্রতিক সময়ে বিশেষায়িত পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয় ও জেলায় জেলায় বিশ্ববিদ্যালয় স্থাপনের বিষয়ে জোর দেয়া হচ্ছে। কিন্তু পলিটেকনিক/কারিগরি শিক্ষার্থীদের জন্য এখনো কোন আলাদা পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয় স্থাপন করা হয়নি; যা বিস্মিত হওয়ার মতো কথা। কারিগরি শিক্ষার্থীদের জন্য জরুরি ভিত্তিতে আলাদা একটি পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয় স্থাপনের জোর দাবি রইল।

মাহবুব নেয়াজ মুন্না

কালীকচ্ছের ধর্মতীর্থ বধ্যভূমিতে স্মৃতিসৌধ নির্মাণের দাবি

চিঠি : হলে খাবারের মান উন্নত করুন

চিঠি : স্বাস্থ্য শিক্ষা বিষয়ে ডিপ্লোমাধারীদের বৈষম্য দূর করুন

চিঠি : শিক্ষার মান উন্নয়ন চাই

চিঠি : সড়ক আইন বাস্তবায়ন করুন

চিঠি : রাস্তায় বাইক সন্ত্রাস

চিঠি : কঠিন হয়ে পড়ছে ক্যাম্পাস সাংবাদিকতা

চিঠি : ডিসেম্বরের স্মৃতি

চিঠি : টেকসই ও সাশ্রয়ী ক্লিন এনার্জি

চিঠি : নকল গুড় জব্দ হোক

চিঠি : সড়কে বাড়ছে লেন ঝরছে প্রাণ

চিঠি : ঢাকাবাসীর কাছে মেট্রোরেল আশীর্বাদ

চিঠি : পরিচ্ছন্ন ক্যাম্পাস চাই

চিঠি : তারুণ্যের শক্তি কাজে লাগান

চিঠি : এইডস থেকে বাঁচতে সচেতন হোন

চিঠি : অতিথি পাখি নিধন বন্ধ হোক

চিঠি : হাসুন, সুস্থ থাকুন

চিঠি : হাতি দিয়ে চাঁদাবাজি বন্ধ হোক

চিঠি : রাজনীতিতে তরুণ সমাজের অংশগ্রহণ

চিঠি : মাদককে ‘না’ বলুন

চিঠি : পুনরুন্নয়ন প্রকল্প : পাল্টে যাবে পুরান ঢাকা

চিঠি : শীতার্ত মানুষের পাশে দাঁড়ান

চিঠি : চন্দ্রগঞ্জে ফায়ার সার্ভিস স্টেশন চাই

চিঠি : বাড়ছে বাল্যবিয়ে

চিঠি : টিকটকের অপব্যবহার রোধ করতে হবে

চিঠি : আত্মবিশ্বাস ও আস্থা

চিঠি : শিক্ষকরা কি প্রকৃত মর্যাদা পাচ্ছে

চিঠি : শিক্ষার্থীদের সঙ্গে স্থানীয়দের সম্প্রীতি চাই

চিঠি : সকালে ও বিকেলে মেট্রোরেল চলুক

চিঠি : অতিথি পাখি নিধন বন্ধ করতে হবে

চিঠি : ঢাবি’র কেন্দ্রীয় গ্রন্থাগার আধুনিকায়ন করা হোক

চিঠি : নিত্যপণ্যের দাম

চিঠি : শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে চাই পরিচ্ছন্ন শৌচাগার

চিঠি : বায়ুদূষণ থেকে রাজধানীকে রক্ষা করুন

চিঠি : পর্যটনকেন্দ্রে খাবারের অস্বাভাবিক মূল্য

চিঠি : ঐতিহ্যবাহী গ্রামীণ খেলাধুলা

tab

চিঠিপত্র

চিঠি : কারিগরি বিশ্ববিদ্যালয় স্থাপন জরুরি

মতামতের জন্য সম্পাদক দায়ী নন

রোববার, ১০ ডিসেম্বর ২০২৩

ডুয়েটসহ ২/১টি বিশ্ববিদ্যালয়ে কারিগরি শিক্ষার্থীদের উচ্চ শিক্ষা লাভের সুযোগ আছে। তাও সীমিত সংখ্যক আসনে। শেষপর্যন্ত অনেক কারিগরি শিক্ষার্থী হতাশাগ্রস্ত হয়ে পড়ে। তাদের শিক্ষা ও কর্মজীবন ভালোভাবে গড়ার আর স্বপ্ন পর্যন্ত দেখে না।

দেশের সাধারণ শিক্ষার্থীদের জন্য রয়েছে জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়। মাদ্রাসা শিক্ষার্থীদের জন্য রয়েছে ইসলামী আরবী বিশ্ববিদ্যালয়। আর ঝরে পড়া শিক্ষার্থীদের জন্য রয়েছে দূরশিক্ষণ পদ্ধতির বাংলাদেশ উন্মুক্ত বিশ্ববিদ্যালয়। কিন্তু দুঃখের বিষয়, এখনো কারিগরি শিক্ষার্থীদের জন্য আলাদা কোন পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয় নেই, যেখানে তারা উচ্চ শিক্ষা লাভ করতে পারবে।

জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়, বাংলাদেশ উন্মুক্ত বিশ্ববিদ্যালয় এবং ইসলামী আরবী বিশ্ববিদ্যালয়ের মতো পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয় হিসেবে প্রস্তাবিত ‘বাংলাদেশ কারিগরি বিশ্ববিদ্যালয়’ও স্নাতক পর্যায়ের কলেজ বা ইনস্টিটিউটগুলোতে স্নাতক-স্নাতকোত্তর কোর্স চালাতে পারবে; যদি সেটা গড়ে তোলা যায়।

কারিগরি অধিদপ্তর, কারিগরি শিক্ষাবোর্ড ও শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের প্রতি আকুল আবেদন আপনারা দেশের এত বিশালসংখ্যক কারিগরি/পলিটেকনিক শিক্ষার্থীদের কথা চিন্তা করে স্থাপন করার অনুরোধ রইল বাংলাদেশ কারিগরি বিশ্ববিদ্যালয়। এই পাবলিক কারিগরি বিশ্ববিদ্যালয়ের স্থান নির্ধারণ অন্যান্য পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়ের মতো গাজীপুর কিংবা ঢাকায় না করে ঢাকার বাইরে গবেষণা ও প্রশাসনিক কাজের সুবিধার্তে বড় জায়গায় করা উচিত। কারণ ঢাকায় আর জায়গা বাকি আছে মনে হয় না।

সাম্প্রতিক সময়ে বিশেষায়িত পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয় ও জেলায় জেলায় বিশ্ববিদ্যালয় স্থাপনের বিষয়ে জোর দেয়া হচ্ছে। কিন্তু পলিটেকনিক/কারিগরি শিক্ষার্থীদের জন্য এখনো কোন আলাদা পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয় স্থাপন করা হয়নি; যা বিস্মিত হওয়ার মতো কথা। কারিগরি শিক্ষার্থীদের জন্য জরুরি ভিত্তিতে আলাদা একটি পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয় স্থাপনের জোর দাবি রইল।

মাহবুব নেয়াজ মুন্না

back to top