alt

চিঠিপত্র

চিঠিপত্র : স্বপ্নের বাংলাদেশ

: বৃহস্পতিবার, ০৭ জানুয়ারী ২০২১

মতামতের জন্য সম্পাদক দায়ী নন

স্বপ্নের বাংলাদেশ

স্বপ্ন দেখি দারিদ্র্যমুক্ত এক বাংলাদেশের। যেখানে অনাহারে-অর্ধাহারে দিন কাটাতে হবে না কোন মানুষকে। স্বপ্ন দেখি এমন একটি নিরাপদ দেশের, যেখানে কোন নারীকে সম্ভ্রম হারাতে হবে না।

এমন একটি দেশের স্বপ্ন দেখি, যেখানে নিশ্চিত হবে নিরাপদ ইন্টারনেটের ব্যবহার। ইন্টারনেটে যেন কাউকে হয়রানির শিকার হতে না হয়, কোন ধরনের সাম্প্রদায়িক উসকানি কিংবা সহিংসতার সূত্রপাত যেন না হয় সেই বিষয়েও লক্ষ্য রাখা হবে।

চাই আমাদের সমাজে কোন সুবিধাবঞ্চিত মানুষ থাকবে না, একটি সুন্দর সমৃদ্ধ দারিদ্র্যমুক্ত সুখী দেশের স্বপ্ন আমি দেখি যেখানে কোন বেকার থাকবে না, কোন মানুষকে তার অধিকারের জন্য মার খেতে হবে না, কোন বিচার প্রার্থীকে বিচারের আশার আদালতের প্রাঙ্গণে দৌড়াদৌড়ি করতে হবে না, শিক্ষা গবেষণায় আমরা এগিয়ে যাব সমৃদ্ধির এক অনন্য উচ্চতায়।

দেশকে এমন ভাবে দেখতে চাই, যেখানে সবাই মন খুলে, যুক্তি দিয়ে দেশের রাজনৈতিক, অর্থনৈতিক, সামাজিক, সাংস্কৃতিকসহ সব বিষয় নিয়ে আলোচনা করতে পারবে। চলুন নিজেদের সততা, মূল্যবোধ ও দক্ষতা দিয়ে গড়ে তুলি আমাদের স্বপ্নের বাংলাদেশ।

আরএস মাহমুদ হাসান

তারুণ্যের জয় হোক

নতুন বছরে তারুণ্যের চোখে ভাসছে নতুন নতুন পরিকল্পনা। গত বছরের পাওয়া না-পাওয়ার স্মৃতি ঝেড়ে ফেলে নতুন আশায় বুক বেঁধেছে সবাই। অসম্ভবকে সম্ভব করতে ঝুঁকি নিতে পারে শুধু তারুণ্য। নওজোয়ানদের অসাধ্য কিছু নেই। প্রথা ভাঙায় দুঃসাহস দেখাতে পারে শুধু তরুণেরাই। স্থলে, পানিতে ও মহাকাশে-যে কোন অভিযানে অভিযাত্রী হওয়ার যোগ্য শুধু তরুণেরাই।

শিক্ষা খাতের অব্যবস্থাপনা নিয়ে তরুণদের উদ্বেগ অনেক বেশি। প্রশ্নপত্র ফাঁসের ঘটনায় লেখাপড়ার মান কমে গেছে, শিক্ষার্থীদের চাকরি পাওয়ার সুযোগ কমিয়ে দিয়েছে। তরুণেরা বলছেন, ধুলা, যানবাহনের ধোঁয়া, গাছপালা না থাকা ঢাকাকে পৃথিবীর অন্যতম বসবাস অযোগ্য শহরে পরিণত করেছে। সড়ক ও নৌপথের দুর্ঘটনায় নিয়মিত প্রাণহানি ঘটছে। এ কারণে ভ্রমণও ভীতিকর হয়ে উঠেছে।

বাংলাদেশের জনসংখ্যার তিন ভাগের এক ভাগের বয়স ১৫ থেকে ৩৫ বছর। আগামী ১৫ বছর পর তারাই রাষ্ট্র ও সমাজের দায়িত্ব পালন করবেন। তরুণ সমাজই উদ্ভাবনের, মানবিক স্পন্দনের ও সামাজিক সমস্যা সমাধানের বিকল্প শক্তি।

সুস্থ সবল, নির্ভীক, সৎ, নিরপেক্ষ, স্বপ্নচারী তারুণ্যের জয় হোক।

মুকুল

শিক্ষার্থী,

বাবুগঞ্জ পাইলট স্কুল অ্যান্ড কলেজ

টাকা পাচার বন্ধ করতে হবে

সাকার মাছে বিপদ বাড়ছে

হাইওয়েতে গাড়ি পার্কিং

চিঠি : দুমকিতে বাসস্ট্যান্ড চাই

চিঠি : স্বাস্থ্যবিধি মানার বিকল্প নেই

চিঠি : জন্মসনদে এত ভুল কেন?

চিঠি : স্পিড ব্রেকার প্রসঙ্গে

চিঠি : জাবি শিক্ষার্থীদের স্বাস্থ্যবীমা নিশ্চিত করুন

চিঠি : অসতর্কতায় সড়ক দুর্ঘটনা

চিঠি : তৃতীয় লিঙ্গের মানুষদের মূল ধারায় সম্পৃক্ত করুন

চিঠি : নিরাপদ সড়কের দাবি

চিঠি : বিদেশের কারাগারে আটক বাংলাদেশিদের মুক্তির ব্যবস্থা নিন

চিঠি : শীতার্ত মানুষের সাহায্যে এগিয়ে আসুন

চোরচক্র থকেে সাবধান

প্রিয়জনের চিঠি পেতে গুনতে হয় না প্রহর

চিঠি : গণপরিবহনে যাত্রী ভোগান্তি

চিঠি : হাতিয়া গণহত্যা

চিঠি : আদালতের কর্মচারীদের অবৈধ অর্থ আদায় প্রসঙ্গে

চিঠি : মোটরসাইকেল দুর্ঘটনা

চিঠি : এসেছে হেমন্ত

চিঠি : বিদায় অনুষ্ঠানের একাল-সেকাল

প্লাস্টিকের বিনিময়

বন্যহাতি রক্ষা করতে হবে

চিঠি : ছিন্নমূল মানুষের সহযোগিতায় এগিয়ে আসুন

চিঠি : বিন্নি ধানের খই

চিঠি : অস্থায়ী আবাসনে শিক্ষার্থীদের দুর্ভোগ

চিঠি : বাকৃবির গণরুম সমস্যার সমাধান চাই

চিঠি : পরিবেশবান্ধব বাহন

চিঠি : স্মার্টফোনের দাম কমানো হোক

ফেনীতে পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয় চাই

পনির-এ আছে পুষ্টি

চিঠি : ইপিজেড : সম্ভাবনার নতুন দ্বার

চিঠি : স্বেচ্ছায় রক্তদান

চিঠি : নিরাপদ সড়ক চাই

চিঠি : বাকৃবিতে ছাত্রী হলে নিরাপত্তা সংকট

চিঠি : জানার জন্য পড়তে হবে

tab

চিঠিপত্র

চিঠিপত্র : স্বপ্নের বাংলাদেশ

মতামতের জন্য সম্পাদক দায়ী নন

বৃহস্পতিবার, ০৭ জানুয়ারী ২০২১

স্বপ্নের বাংলাদেশ

স্বপ্ন দেখি দারিদ্র্যমুক্ত এক বাংলাদেশের। যেখানে অনাহারে-অর্ধাহারে দিন কাটাতে হবে না কোন মানুষকে। স্বপ্ন দেখি এমন একটি নিরাপদ দেশের, যেখানে কোন নারীকে সম্ভ্রম হারাতে হবে না।

এমন একটি দেশের স্বপ্ন দেখি, যেখানে নিশ্চিত হবে নিরাপদ ইন্টারনেটের ব্যবহার। ইন্টারনেটে যেন কাউকে হয়রানির শিকার হতে না হয়, কোন ধরনের সাম্প্রদায়িক উসকানি কিংবা সহিংসতার সূত্রপাত যেন না হয় সেই বিষয়েও লক্ষ্য রাখা হবে।

চাই আমাদের সমাজে কোন সুবিধাবঞ্চিত মানুষ থাকবে না, একটি সুন্দর সমৃদ্ধ দারিদ্র্যমুক্ত সুখী দেশের স্বপ্ন আমি দেখি যেখানে কোন বেকার থাকবে না, কোন মানুষকে তার অধিকারের জন্য মার খেতে হবে না, কোন বিচার প্রার্থীকে বিচারের আশার আদালতের প্রাঙ্গণে দৌড়াদৌড়ি করতে হবে না, শিক্ষা গবেষণায় আমরা এগিয়ে যাব সমৃদ্ধির এক অনন্য উচ্চতায়।

দেশকে এমন ভাবে দেখতে চাই, যেখানে সবাই মন খুলে, যুক্তি দিয়ে দেশের রাজনৈতিক, অর্থনৈতিক, সামাজিক, সাংস্কৃতিকসহ সব বিষয় নিয়ে আলোচনা করতে পারবে। চলুন নিজেদের সততা, মূল্যবোধ ও দক্ষতা দিয়ে গড়ে তুলি আমাদের স্বপ্নের বাংলাদেশ।

আরএস মাহমুদ হাসান

তারুণ্যের জয় হোক

নতুন বছরে তারুণ্যের চোখে ভাসছে নতুন নতুন পরিকল্পনা। গত বছরের পাওয়া না-পাওয়ার স্মৃতি ঝেড়ে ফেলে নতুন আশায় বুক বেঁধেছে সবাই। অসম্ভবকে সম্ভব করতে ঝুঁকি নিতে পারে শুধু তারুণ্য। নওজোয়ানদের অসাধ্য কিছু নেই। প্রথা ভাঙায় দুঃসাহস দেখাতে পারে শুধু তরুণেরাই। স্থলে, পানিতে ও মহাকাশে-যে কোন অভিযানে অভিযাত্রী হওয়ার যোগ্য শুধু তরুণেরাই।

শিক্ষা খাতের অব্যবস্থাপনা নিয়ে তরুণদের উদ্বেগ অনেক বেশি। প্রশ্নপত্র ফাঁসের ঘটনায় লেখাপড়ার মান কমে গেছে, শিক্ষার্থীদের চাকরি পাওয়ার সুযোগ কমিয়ে দিয়েছে। তরুণেরা বলছেন, ধুলা, যানবাহনের ধোঁয়া, গাছপালা না থাকা ঢাকাকে পৃথিবীর অন্যতম বসবাস অযোগ্য শহরে পরিণত করেছে। সড়ক ও নৌপথের দুর্ঘটনায় নিয়মিত প্রাণহানি ঘটছে। এ কারণে ভ্রমণও ভীতিকর হয়ে উঠেছে।

বাংলাদেশের জনসংখ্যার তিন ভাগের এক ভাগের বয়স ১৫ থেকে ৩৫ বছর। আগামী ১৫ বছর পর তারাই রাষ্ট্র ও সমাজের দায়িত্ব পালন করবেন। তরুণ সমাজই উদ্ভাবনের, মানবিক স্পন্দনের ও সামাজিক সমস্যা সমাধানের বিকল্প শক্তি।

সুস্থ সবল, নির্ভীক, সৎ, নিরপেক্ষ, স্বপ্নচারী তারুণ্যের জয় হোক।

মুকুল

শিক্ষার্থী,

বাবুগঞ্জ পাইলট স্কুল অ্যান্ড কলেজ

back to top