alt

চিঠিপত্র

চিঠি : স্কুলমুখী করতে হবে ঝরে পড়া শিক্ষার্থীদের

: বুধবার, ২৯ সেপ্টেম্বর ২০২১

মতামতের জন্য সম্পাদক দায়ী নন

করোনার প্রভাবে দেড় বছর বন্ধ ছিল দেশের সব শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান। ফলে স্কুল, কলেজ না থাকায় লেখাপড়ায় প্রতি আগ্রহ হারিয়ে বই বিমুখ হয়ে পড়েছিল শিক্ষার্থীরা। এতে করে সারা দেশে ঝরে পড়েছে বহু শিক্ষার্থী। বিশেষ করে গ্রামের দরিদ্র পরিবারে বসবাস করা শিক্ষার্থীরা দূরে সরে গেছে লেখাপড়া থেকে। তারা বাধ্য হয়ে সংসার চালাতে গিয়ে বেঁচে নিয়েছে বিভিন্ন পেশা। কেউ অন্যের ক্ষেতে শ্রম দিচ্ছে কেউবা ভ্যান চালিয়ে রোজগার করে পরিবারে সাহায্য করছে।

সম্প্রতি একটি পরিসংখ্যানে দেখা গেছে, মাধ্যমিকের তুলনায় প্রাথমিক শিক্ষায় অনুপস্থিতি বেশি। এখন পর্যন্ত ২০ শতাংশ শিক্ষার্থীর অনুপস্থিতি পাওয়া গেছে প্রাথমিকে। প্রাথমিক শিক্ষা অধিদপ্তরের কর্মকর্তারা আশঙ্কা করছেন, এদের মধ্যে ১০ শতাংশের বেশি শিক্ষার্থীর ঝরে পড়ার। বিশেষ করে করোনাকালীন দরিদ্র সংসারে থাকা কন্যা সন্তানরা শিকার হয়েছে বাল্যবিবাহের।

স্কুল, কলেজগামী অনেক শিক্ষার্থী আজ বিপথে। তাদেরকে ফিরিয়ে আনতে হবে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের দিকে। লেখাপড়ায় মনোনিবেশ করাতে বন্ধুসুলভ আচরণ করতে হবে এসব শিক্ষার্থীর সাথে। তার জন্য সবচেয়ে বড় ভূমিকা রাখতে হবে এসব শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের শিক্ষকদের এবং সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের। তবে এক্ষেত্রে পিতামাতার সচেতনতা একান্তই কাম্য।

রিয়াদ হোসেন

শিক্ষার্থী, সরকারি বিএল কলেজ

টাকা পাচার বন্ধ করতে হবে

সাকার মাছে বিপদ বাড়ছে

হাইওয়েতে গাড়ি পার্কিং

চিঠি : দুমকিতে বাসস্ট্যান্ড চাই

চিঠি : স্বাস্থ্যবিধি মানার বিকল্প নেই

চিঠি : জন্মসনদে এত ভুল কেন?

চিঠি : স্পিড ব্রেকার প্রসঙ্গে

চিঠি : জাবি শিক্ষার্থীদের স্বাস্থ্যবীমা নিশ্চিত করুন

চিঠি : অসতর্কতায় সড়ক দুর্ঘটনা

চিঠি : তৃতীয় লিঙ্গের মানুষদের মূল ধারায় সম্পৃক্ত করুন

চিঠি : নিরাপদ সড়কের দাবি

চিঠি : বিদেশের কারাগারে আটক বাংলাদেশিদের মুক্তির ব্যবস্থা নিন

চিঠি : শীতার্ত মানুষের সাহায্যে এগিয়ে আসুন

চোরচক্র থকেে সাবধান

প্রিয়জনের চিঠি পেতে গুনতে হয় না প্রহর

চিঠি : গণপরিবহনে যাত্রী ভোগান্তি

চিঠি : হাতিয়া গণহত্যা

চিঠি : আদালতের কর্মচারীদের অবৈধ অর্থ আদায় প্রসঙ্গে

চিঠি : মোটরসাইকেল দুর্ঘটনা

চিঠি : এসেছে হেমন্ত

চিঠি : বিদায় অনুষ্ঠানের একাল-সেকাল

প্লাস্টিকের বিনিময়

বন্যহাতি রক্ষা করতে হবে

চিঠি : ছিন্নমূল মানুষের সহযোগিতায় এগিয়ে আসুন

চিঠি : বিন্নি ধানের খই

চিঠি : অস্থায়ী আবাসনে শিক্ষার্থীদের দুর্ভোগ

চিঠি : বাকৃবির গণরুম সমস্যার সমাধান চাই

চিঠি : পরিবেশবান্ধব বাহন

চিঠি : স্মার্টফোনের দাম কমানো হোক

ফেনীতে পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয় চাই

পনির-এ আছে পুষ্টি

চিঠি : ইপিজেড : সম্ভাবনার নতুন দ্বার

চিঠি : স্বেচ্ছায় রক্তদান

চিঠি : নিরাপদ সড়ক চাই

চিঠি : বাকৃবিতে ছাত্রী হলে নিরাপত্তা সংকট

চিঠি : জানার জন্য পড়তে হবে

tab

চিঠিপত্র

চিঠি : স্কুলমুখী করতে হবে ঝরে পড়া শিক্ষার্থীদের

মতামতের জন্য সম্পাদক দায়ী নন

বুধবার, ২৯ সেপ্টেম্বর ২০২১

করোনার প্রভাবে দেড় বছর বন্ধ ছিল দেশের সব শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান। ফলে স্কুল, কলেজ না থাকায় লেখাপড়ায় প্রতি আগ্রহ হারিয়ে বই বিমুখ হয়ে পড়েছিল শিক্ষার্থীরা। এতে করে সারা দেশে ঝরে পড়েছে বহু শিক্ষার্থী। বিশেষ করে গ্রামের দরিদ্র পরিবারে বসবাস করা শিক্ষার্থীরা দূরে সরে গেছে লেখাপড়া থেকে। তারা বাধ্য হয়ে সংসার চালাতে গিয়ে বেঁচে নিয়েছে বিভিন্ন পেশা। কেউ অন্যের ক্ষেতে শ্রম দিচ্ছে কেউবা ভ্যান চালিয়ে রোজগার করে পরিবারে সাহায্য করছে।

সম্প্রতি একটি পরিসংখ্যানে দেখা গেছে, মাধ্যমিকের তুলনায় প্রাথমিক শিক্ষায় অনুপস্থিতি বেশি। এখন পর্যন্ত ২০ শতাংশ শিক্ষার্থীর অনুপস্থিতি পাওয়া গেছে প্রাথমিকে। প্রাথমিক শিক্ষা অধিদপ্তরের কর্মকর্তারা আশঙ্কা করছেন, এদের মধ্যে ১০ শতাংশের বেশি শিক্ষার্থীর ঝরে পড়ার। বিশেষ করে করোনাকালীন দরিদ্র সংসারে থাকা কন্যা সন্তানরা শিকার হয়েছে বাল্যবিবাহের।

স্কুল, কলেজগামী অনেক শিক্ষার্থী আজ বিপথে। তাদেরকে ফিরিয়ে আনতে হবে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের দিকে। লেখাপড়ায় মনোনিবেশ করাতে বন্ধুসুলভ আচরণ করতে হবে এসব শিক্ষার্থীর সাথে। তার জন্য সবচেয়ে বড় ভূমিকা রাখতে হবে এসব শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের শিক্ষকদের এবং সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের। তবে এক্ষেত্রে পিতামাতার সচেতনতা একান্তই কাম্য।

রিয়াদ হোসেন

শিক্ষার্থী, সরকারি বিএল কলেজ

back to top