alt

চিঠিপত্র

পনির-এ আছে পুষ্টি

: সোমবার, ১৫ নভেম্বর ২০২১

মতামতের জন্য সম্পাদক দায়ী নন

পনিরের সঙ্গে আমরা খুব কমই পরিচিত যতটা না আমরা অন্যান্য দুগ্ধজাত খাদ্যদ্রব্যের সঙ্গে পরিচিত। পনির সাধারণত ভারত উপমহাদেশে বহুল পরিচিত। প্রাণিজ আমিষের এক বৃহৎ উৎস এই পনির। গাভী অথবা মহিষের দুধকে বিশেষ উপায়ে জমাট বাধিয়ে তৈরি করা হয় এই পনির। পনির আমিষ চাহিদার সঙ্গে সঙ্গে ভিটামিন ও মিনারেলস এর ঘাটতি পূরণ করে। তাছাড়া শরীরের ক্ষয়পূরণ ও পেশী গঠনে প্রয়োজনীয় প্রোটিনও পাওয়া যায়।

চিকিৎসকরা প্রতিদিন এক গ্লাস করে দুধ খাওয়ার পরামর্শ দেন। কিন্তু অনেকেই দুধ খেতে পছন্দ করেন না। তবে দুগ্ধজাত পণ্য খেতে ঠিকই পছন্দ করেন। তাদের জন্য পনির এক উপাদেয় ডায়েট রুটিন হতে পারে। কারণ দুধের মতো পনিরেও রয়েছে এই উপকারী উপাদানসমূহ। আবার এতে রয়েছে ভিটামিন বি কমপ্লেক্স, প্যানটোথেনিক অ্যাসিড, থায়ামিন এবং রিবোফ্লাভিন। যা রক্তে শর্করা মাত্রা নিয়ন্ত্রণ, এলডিএল কোলেস্টেরল কমাতে, হজম ক্ষমতা বদ্ধি এবং হার্টের স্বাস্থ্যের উন্নতিতে বিশেষ ভূমিকা পালন করে।

এছাড়াও ওজন নিয়ন্ত্রণে প্রতিদিন খাদ্যাভাসে পনির যুক্ত করা যেতে পারে। এটি ডায়াবেটিসের মতো রোগের প্রতিরোধকও বটে। তাই খাদ্য তালিকায় পনির ও পনির সমৃদ্ধ খাবার যুক্ত করতে হবে। জাতির মেধা বিকাশে ও আমিষ চাহিদা পূরণ করতে পনির উৎপাদন ও এর সহজলভ্যতা করা খুবই প্রয়োজন। এর সঙ্গে পনিরের গুণগতমান সমন্ধে সকলকে সচেতন করতে হবে।

রায়হান আবিদ

চিঠি : দুমকিতে বাসস্ট্যান্ড চাই

চিঠি : স্বাস্থ্যবিধি মানার বিকল্প নেই

চিঠি : জন্মসনদে এত ভুল কেন?

চিঠি : স্পিড ব্রেকার প্রসঙ্গে

চিঠি : জাবি শিক্ষার্থীদের স্বাস্থ্যবীমা নিশ্চিত করুন

চিঠি : অসতর্কতায় সড়ক দুর্ঘটনা

চিঠি : তৃতীয় লিঙ্গের মানুষদের মূল ধারায় সম্পৃক্ত করুন

চিঠি : নিরাপদ সড়কের দাবি

চিঠি : বিদেশের কারাগারে আটক বাংলাদেশিদের মুক্তির ব্যবস্থা নিন

চিঠি : শীতার্ত মানুষের সাহায্যে এগিয়ে আসুন

চোরচক্র থকেে সাবধান

প্রিয়জনের চিঠি পেতে গুনতে হয় না প্রহর

চিঠি : গণপরিবহনে যাত্রী ভোগান্তি

চিঠি : হাতিয়া গণহত্যা

চিঠি : আদালতের কর্মচারীদের অবৈধ অর্থ আদায় প্রসঙ্গে

চিঠি : মোটরসাইকেল দুর্ঘটনা

চিঠি : এসেছে হেমন্ত

চিঠি : বিদায় অনুষ্ঠানের একাল-সেকাল

প্লাস্টিকের বিনিময়

বন্যহাতি রক্ষা করতে হবে

চিঠি : ছিন্নমূল মানুষের সহযোগিতায় এগিয়ে আসুন

চিঠি : বিন্নি ধানের খই

চিঠি : অস্থায়ী আবাসনে শিক্ষার্থীদের দুর্ভোগ

চিঠি : বাকৃবির গণরুম সমস্যার সমাধান চাই

চিঠি : পরিবেশবান্ধব বাহন

চিঠি : স্মার্টফোনের দাম কমানো হোক

ফেনীতে পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয় চাই

চিঠি : ইপিজেড : সম্ভাবনার নতুন দ্বার

চিঠি : স্বেচ্ছায় রক্তদান

চিঠি : নিরাপদ সড়ক চাই

চিঠি : বাকৃবিতে ছাত্রী হলে নিরাপত্তা সংকট

চিঠি : জানার জন্য পড়তে হবে

ডাচণ্ডবাংলা ব্যাংকের শিক্ষাবৃত্তি

নবায়নযোগ্য জ্বালানি

চিঠি : তামাক কোম্পানির প্রচারের কূটকৌশল

চিঠি : কুষ্টিয়া-ঝিনাইদহ মহাসড়কের দুর্দশা

tab

চিঠিপত্র

পনির-এ আছে পুষ্টি

মতামতের জন্য সম্পাদক দায়ী নন

সোমবার, ১৫ নভেম্বর ২০২১

পনিরের সঙ্গে আমরা খুব কমই পরিচিত যতটা না আমরা অন্যান্য দুগ্ধজাত খাদ্যদ্রব্যের সঙ্গে পরিচিত। পনির সাধারণত ভারত উপমহাদেশে বহুল পরিচিত। প্রাণিজ আমিষের এক বৃহৎ উৎস এই পনির। গাভী অথবা মহিষের দুধকে বিশেষ উপায়ে জমাট বাধিয়ে তৈরি করা হয় এই পনির। পনির আমিষ চাহিদার সঙ্গে সঙ্গে ভিটামিন ও মিনারেলস এর ঘাটতি পূরণ করে। তাছাড়া শরীরের ক্ষয়পূরণ ও পেশী গঠনে প্রয়োজনীয় প্রোটিনও পাওয়া যায়।

চিকিৎসকরা প্রতিদিন এক গ্লাস করে দুধ খাওয়ার পরামর্শ দেন। কিন্তু অনেকেই দুধ খেতে পছন্দ করেন না। তবে দুগ্ধজাত পণ্য খেতে ঠিকই পছন্দ করেন। তাদের জন্য পনির এক উপাদেয় ডায়েট রুটিন হতে পারে। কারণ দুধের মতো পনিরেও রয়েছে এই উপকারী উপাদানসমূহ। আবার এতে রয়েছে ভিটামিন বি কমপ্লেক্স, প্যানটোথেনিক অ্যাসিড, থায়ামিন এবং রিবোফ্লাভিন। যা রক্তে শর্করা মাত্রা নিয়ন্ত্রণ, এলডিএল কোলেস্টেরল কমাতে, হজম ক্ষমতা বদ্ধি এবং হার্টের স্বাস্থ্যের উন্নতিতে বিশেষ ভূমিকা পালন করে।

এছাড়াও ওজন নিয়ন্ত্রণে প্রতিদিন খাদ্যাভাসে পনির যুক্ত করা যেতে পারে। এটি ডায়াবেটিসের মতো রোগের প্রতিরোধকও বটে। তাই খাদ্য তালিকায় পনির ও পনির সমৃদ্ধ খাবার যুক্ত করতে হবে। জাতির মেধা বিকাশে ও আমিষ চাহিদা পূরণ করতে পনির উৎপাদন ও এর সহজলভ্যতা করা খুবই প্রয়োজন। এর সঙ্গে পনিরের গুণগতমান সমন্ধে সকলকে সচেতন করতে হবে।

রায়হান আবিদ

back to top