alt

চিঠিপত্র

চিঠি : বিএসটিআইকে আরও তৎপর হতে হবে

সংবাদ অনলাইন রিপোর্ট : বৃহস্পতিবার, ২০ জানুয়ারী ২০২২

মতামতের জন্য সম্পাদক দায়ী নন

বাংলাদেশে ভোক্তা অধিকার নিশ্চিতে বাজারে প্রচলিত খাবারের মানসহ প্যাকেটজাত খাবারের পরিমাণ, স্বাস্থ্য ঝুঁকি, খাবার তৈরির কারখানাগুলোর সরকারি অনুমোদন যাচাই ইত্যাদি বিষয়গুলো দেখভালের জন্য বাংলাদেশ স্ট্যান্ডার্ড অ্যান্ড টেস্টিং ইনস্টিটিউট (বিএসটিআই) নামে সরকারের একটি প্রতিষ্ঠান রয়েছে। কিন্তু দুঃখের বিষয় বর্তমানে এদেশে অসংখ্য বেকারি খাবার তৈরির ভুঁইফোঁড় কারখানা প্রত্যন্ত অঞ্চলসহ সব জায়গায় ছড়িয়ে ছিটিয়ে রয়েছে।

বিএসটিআইকে এই কারখানাগুলোর বিরুদ্ধে কার্যত কোন পদক্ষেপ নিতে দেখা যায় না। এসব কারখানার অধিকাংশই সরকার অনুমোদিত নয়। বিভিন্ন সময়ে এই কারখানাগুলোর অস্বাস্থ্যকর পরিবেশে নিম্নমানের খাবার তৈরির ঘটনা গণমাধ্যমেও উঠে আসে। সাধারণ মানুষ এসব বেকারি খাবার খেয়ে প্রতিনিয়ত অসুস্থ হয়।

মাঝেমধ্যে বিএসটিআই কর্তৃপক্ষ ভ্রাম্যমাণ আদালতের মাধ্যমে এসব কারখানার বিরুদ্ধে সাময়িক জরিমানাসহ বিভিন্ন শাস্তিমূলক ব্যবস্থা গ্রহণ করলেও, স্থায়ী তেমন কোন ব্যবস্থা গ্রহণ করে না। ফলশ্রুতিতে কারখানাগুলো পরবর্তীতে আবারও নিম্নমানের খাবার তৈরি করে বাজারে সরবরাহ করে। আর সাধারণ মানুষ প্রতিনিয়ত টাকা দিয়ে কিনে এমন অস্বাস্থ্যকর খাবার খেয়ে স্বাস্থ ঝুঁকি বাড়াচ্ছে। তাই জনস্বাস্থ্যের কথা বিবেচনায় ‘বিএসটিআই’ কর্তৃপক্ষকে এই বেকারি খাবার তৈরির কারখানাগুলোর অনিয়মের বিরুদ্ধে জেল-জরিমানা ও প্রয়োজনে কারখানা বন্ধ করাসহ স্থায়ী ও দীর্ঘমেয়াদি পদক্ষেপ গ্রহণ করার জন্য দৃষ্টি আকর্ষণ করছি।

শাহ জাহান

চিঠি : দ্রব্যমূল্যের ঊর্ধ্বগতি, জনগণের নাভিশ্বাস

চিঠি : পদ্মা সেতুর টোল

চিঠি : অনুমোদনহীন ফার্মেসি

চিঠি : বন্যাকবলিত মানুষের পাশে দাঁড়াতে হবে

চিঠি : হালদায় দূষণ ঠেকাতে হবে

চিঠি : ঘূর্ণিঝড়ে উপকূলবাসীদের দুর্ভোগ

চিঠি : সরকারি সহায়তা পেতে ভোগান্তি দূর করুন

চিঠি : ফেসবুক ব্যবহারে সতর্ক হওয়া উচিত

চিঠি : প্রবাসী নারী শ্রমিকের নিরাপত্তা

চিঠি : মানসিক ভারসাম্যহীনদের অধিকার

চিঠি : সন্দ্বীপ নৌপথে দুর্ভোগের স্থায়ী সমাধান চাই

চিঠি : নজর দিতে হবে পর্যটনশিল্পে

চিঠি : পরিবেশ দূষণের কারণে স্বাস্থ্যঝুঁকি

চিঠি :মাদকমুক্ত সুস্থ পরিবেশ চাই

চিঠি : ইডেন কলেজের আবাসন সংকট নিরসনে উদ্যোগ নিন

চিঠি : শিশুদের মোবাইল ফোন আসক্তি

চিঠি : পেরেক ঠুকে গাছে বিজ্ঞাপন টাঙানো বন্ধ হোক

চিঠি : তেলের দামের ঊর্ধ্বগতি : এর শেষ কোথায়

চিঠি : রাস্তায় খড় শুকানোর বিপদ

চিঠি : বজ্রপাত থেকে বাঁচতে করণীয়

চিঠি : লালপোল ক্রসিংয়ে ওভারপাস নির্মাণ করা হোক

চিঠি : সে কথা ভুলে যেও না

চিঠি : রাস্তাটি পাকা করা হোক

চিঠি : গবেষকদের সুযোগ-সুবিধা বাড়াতে হবে

চিঠি : পত্রিকা পাঠের অভ্যাস গড়ে তুলুন

চিঠি : নারীর নিরাপত্তা চাই

চিঠি : অযথা টেস্ট নয়

চিঠি : নবায়নযোগ্য জ্বালানির সঠিক ব্যবহার নিশ্চিত করতে হবে

চিঠি : স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলুন

চিঠি : ঈদযাত্রা

চিঠি : জাকাত মানে শাড়ি-লুঙ্গি কিংবা ঈদ বোনাস নয়

চিঠি : বৃহৎ শক্তির আগ্রাসন

চিঠি : ঈদে সবার মুখে হাসি ফুটুক

চিঠি : ঈদে ঘরমুখো মানুষের ভোগান্তি কমানোর উদ্যোগ নিন

চিঠি : পত্রিকা পাঠের অভ্যাস গড়ে তুলুন

চিঠি : ঈদে সবার মুখে হাসি ফুটুক

tab

চিঠিপত্র

চিঠি : বিএসটিআইকে আরও তৎপর হতে হবে

সংবাদ অনলাইন রিপোর্ট

মতামতের জন্য সম্পাদক দায়ী নন

বৃহস্পতিবার, ২০ জানুয়ারী ২০২২

বাংলাদেশে ভোক্তা অধিকার নিশ্চিতে বাজারে প্রচলিত খাবারের মানসহ প্যাকেটজাত খাবারের পরিমাণ, স্বাস্থ্য ঝুঁকি, খাবার তৈরির কারখানাগুলোর সরকারি অনুমোদন যাচাই ইত্যাদি বিষয়গুলো দেখভালের জন্য বাংলাদেশ স্ট্যান্ডার্ড অ্যান্ড টেস্টিং ইনস্টিটিউট (বিএসটিআই) নামে সরকারের একটি প্রতিষ্ঠান রয়েছে। কিন্তু দুঃখের বিষয় বর্তমানে এদেশে অসংখ্য বেকারি খাবার তৈরির ভুঁইফোঁড় কারখানা প্রত্যন্ত অঞ্চলসহ সব জায়গায় ছড়িয়ে ছিটিয়ে রয়েছে।

বিএসটিআইকে এই কারখানাগুলোর বিরুদ্ধে কার্যত কোন পদক্ষেপ নিতে দেখা যায় না। এসব কারখানার অধিকাংশই সরকার অনুমোদিত নয়। বিভিন্ন সময়ে এই কারখানাগুলোর অস্বাস্থ্যকর পরিবেশে নিম্নমানের খাবার তৈরির ঘটনা গণমাধ্যমেও উঠে আসে। সাধারণ মানুষ এসব বেকারি খাবার খেয়ে প্রতিনিয়ত অসুস্থ হয়।

মাঝেমধ্যে বিএসটিআই কর্তৃপক্ষ ভ্রাম্যমাণ আদালতের মাধ্যমে এসব কারখানার বিরুদ্ধে সাময়িক জরিমানাসহ বিভিন্ন শাস্তিমূলক ব্যবস্থা গ্রহণ করলেও, স্থায়ী তেমন কোন ব্যবস্থা গ্রহণ করে না। ফলশ্রুতিতে কারখানাগুলো পরবর্তীতে আবারও নিম্নমানের খাবার তৈরি করে বাজারে সরবরাহ করে। আর সাধারণ মানুষ প্রতিনিয়ত টাকা দিয়ে কিনে এমন অস্বাস্থ্যকর খাবার খেয়ে স্বাস্থ ঝুঁকি বাড়াচ্ছে। তাই জনস্বাস্থ্যের কথা বিবেচনায় ‘বিএসটিআই’ কর্তৃপক্ষকে এই বেকারি খাবার তৈরির কারখানাগুলোর অনিয়মের বিরুদ্ধে জেল-জরিমানা ও প্রয়োজনে কারখানা বন্ধ করাসহ স্থায়ী ও দীর্ঘমেয়াদি পদক্ষেপ গ্রহণ করার জন্য দৃষ্টি আকর্ষণ করছি।

শাহ জাহান

back to top