alt

চিঠিপত্র

চিঠি : দায়িত্বটা নিজেকেই নিতে হবে

: শনিবার, ২৫ জুন ২০২২

মতামতের জন্য সম্পাদক দায়ী নন

পরিবেশ দূষণ একটি বৈশ্বিক সমস্যা। যার ভয়াবহ পরিণাম বিশ্ব প্রত্যক্ষ করছে। সৃষ্ট সমস্যাটি আমাদের দ্বারাই সংঘটিত হয়েছে। তাই আমাদেরই সমাধান করতে হবে। গভীরভাবে লক্ষ্য করলে দেখা যায়- পরিছন্ন ও দূষণমুক্ত নগরী গড়ে ওঠার পেছনে নগরীর সর্বস্তরের মানুষের অবদান রয়েছে। বিশেষত তাদের জীবনের প্রতি ভালবাসা, অন্যের সমস্যাটা নিজের মনে করে দেখা ও পুরো নগরটাকেই নিজের বাগানের ন্যায় পরিছন্ন রাখার মন মানসিকতা রাখা ও সচেতনতাই অসাধ্য সাধনে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রেখেছে। প্রতিকারের চেয়ে প্রতিরোধ ভাল। সমস্যা যেন সৃষ্টি না হয় পূর্ব থেকেই সেদিকে লক্ষ্য রাখতে হয়। তাহলে সমাধানের উপায় খুঁজতে হবে না, আর দুর্ভোগেও পড়তে হবে না।

নগর পরিষ্কার-পরিচ্ছন্ন রাখতে হলে আবর্জনা যেখানে সেখানে না ফেলানো ও পতিত কোন ময়লা দেখলে পরিচ্ছন্ন কর্মীর অপেক্ষা না করে নিজেই পরিষ্কার করা। এ কাজে সর্বস্তরের মানুষকে সম্পৃক্ত করতে উৎসাহ প্রদান করা, প্রয়োজনবোধে বিভিন্ন স্থানে ক্যাম্পিং করা। যারা দায়িত্ব নিয়ে নিজেদের শহরটাকে পরিচ্ছন্ন রাখতে নানামুখী উদ্যোগ গ্রহণ করেছে তাদের পুরস্কৃত করা, যাতে তারা কাজের উদ্দীপনা পায়। তাছাড়া সবার উচিত যেখানে-সেখানে আবর্জনা ফেলতে না দেওয়া। সুরক্ষিত থাকতে চাইলে দায়িত্বটা আমদেরই নিতে হবে- সবাইকে সচেতন হতে হবে।

হুমায়ূন বিন বাসার

চিঠি : ট্রাফিক পুলিশ ও ব্যবস্থাপনা

চিঠি : বিমানবন্দরে প্রবাসীদের হয়রানি

চিঠি : সাইবার অপরাধ রোধে সতর্কতা জরুরি

চিঠি : প্রতিবন্ধীদের প্রতি অবহেলা নয়

চিঠি : মাদকের বিরুদ্ধে সচেতনতা বৃদ্ধি করতে হবে

চিঠি : পিরিয়ড নিয়ে যত কুসংস্কার

চিঠি : হতাশার অপর নাম বেকারত্ব

চিঠি : রেলস্টেশনে নারীদের টয়লেটের দুরবস্থা

চিঠি : জনশুমারি : বাদ পড়াদের অন্তর্ভুক্ত করার দাবি

চিঠি : বিশ্ববিদ্যালয়ে নিরাপত্তা ব্যবস্থা জোরদার করতে হবে

চিঠি : পুরোহিত প্রশিক্ষণ একাডেমি প্রয়োজন

চিঠি : শিক্ষার্থীর মানসিক স্বাস্থ্য

চিঠি : টেলিটকের নেটওয়ার্ক ভোগান্তি দূর করুন

চিঠি : অভিভাবকদের প্রত্যাশা

চিঠি : রেলের ঘুম কি ভাঙবে না

চিঠি : মোমবাতি ও হারিকেনের যুগে ফিরছে শিক্ষার্থীরা

চিঠি : মাদকেই সর্বনাশ

চিঠি : ভাষার সৌন্দর্য

চিঠি : ধর্ষণ বন্ধে পুরুষকেই জাগতে হবে সবার আগে

চিঠি : পড়াশোনা হোক আনন্দময়

চিঠি : মানসম্মত হেলমেট

চিঠি : বিদ্যুৎ অপচয় বন্ধ করুন

চিঠি : বিদ্যুৎ অপচয় করছে অটোরিকশা

চিঠি : শিক্ষকদের নিরাপত্তা নিশ্চিত হোক

চিঠি : প্রতিবন্ধীদের প্রতি সামাজিক দায়িত্ব

চিঠি : নৈতিকতার অবক্ষয় রোধে সামাজিক মূল্যবোধ

চিঠি : মৌসুমি জ্বরে সতর্কতা অবলম্বন করুন

চিঠি : টিকটক নামক সামাজিক ব্যাধি

চিঠি : আমাদের গর্ব

চিঠি : বাড়ছে করোনার সংক্রমণ, সতর্ক হোন

চিঠি : বাড়ছে করোনার সংক্রমণ, সতর্ক হোন

চিঠি : ওয়ানডে বিশ্বকাপ নিয়ে পরিকল্পনা জরুরি

চিঠি : চামড়া সংরক্ষণে নজর দিন

চিঠি : কাজ হারানো নারীদের প্রতি সুদৃষ্টি দিন

চিঠি : শিক্ষক-শিক্ষার্থীর সম্পর্ক হোক মধুর

চিঠি : শতবর্ষী খেলার মাঠটি বাঁচান

tab

চিঠিপত্র

চিঠি : দায়িত্বটা নিজেকেই নিতে হবে

মতামতের জন্য সম্পাদক দায়ী নন

শনিবার, ২৫ জুন ২০২২

পরিবেশ দূষণ একটি বৈশ্বিক সমস্যা। যার ভয়াবহ পরিণাম বিশ্ব প্রত্যক্ষ করছে। সৃষ্ট সমস্যাটি আমাদের দ্বারাই সংঘটিত হয়েছে। তাই আমাদেরই সমাধান করতে হবে। গভীরভাবে লক্ষ্য করলে দেখা যায়- পরিছন্ন ও দূষণমুক্ত নগরী গড়ে ওঠার পেছনে নগরীর সর্বস্তরের মানুষের অবদান রয়েছে। বিশেষত তাদের জীবনের প্রতি ভালবাসা, অন্যের সমস্যাটা নিজের মনে করে দেখা ও পুরো নগরটাকেই নিজের বাগানের ন্যায় পরিছন্ন রাখার মন মানসিকতা রাখা ও সচেতনতাই অসাধ্য সাধনে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রেখেছে। প্রতিকারের চেয়ে প্রতিরোধ ভাল। সমস্যা যেন সৃষ্টি না হয় পূর্ব থেকেই সেদিকে লক্ষ্য রাখতে হয়। তাহলে সমাধানের উপায় খুঁজতে হবে না, আর দুর্ভোগেও পড়তে হবে না।

নগর পরিষ্কার-পরিচ্ছন্ন রাখতে হলে আবর্জনা যেখানে সেখানে না ফেলানো ও পতিত কোন ময়লা দেখলে পরিচ্ছন্ন কর্মীর অপেক্ষা না করে নিজেই পরিষ্কার করা। এ কাজে সর্বস্তরের মানুষকে সম্পৃক্ত করতে উৎসাহ প্রদান করা, প্রয়োজনবোধে বিভিন্ন স্থানে ক্যাম্পিং করা। যারা দায়িত্ব নিয়ে নিজেদের শহরটাকে পরিচ্ছন্ন রাখতে নানামুখী উদ্যোগ গ্রহণ করেছে তাদের পুরস্কৃত করা, যাতে তারা কাজের উদ্দীপনা পায়। তাছাড়া সবার উচিত যেখানে-সেখানে আবর্জনা ফেলতে না দেওয়া। সুরক্ষিত থাকতে চাইলে দায়িত্বটা আমদেরই নিতে হবে- সবাইকে সচেতন হতে হবে।

হুমায়ূন বিন বাসার

back to top