alt

চিঠিপত্র

চিঠি : পদ্মা সেতু : সাহসী ভূমিকায় অনন্য অর্জন

: রোববার, ২৬ জুন ২০২২

মতামতের জন্য সম্পাদক দায়ী নন

১৯৯৯ সালে প্রাক-সম্ভাব্যতা যাচাই সমীক্ষার মাধ্যমে প্রকল্পের সূত্রপাত হয় স্বপ্নের পদ্মা সেতুর। সূচনার প্রায় দুই দশক পর আজ তা বাস্তবায়ন হয়েছে। এক সময়ের স্বপ্নের সেতু এখন দৃষ্টিসীমায় দিগন্তজুড়ে দাঁড়িয়ে। পদ্মার তীর থেকে দেখা যাচ্ছে পিলারের দীর্ঘ সারি।

উদ্বোধনের পর থেকেই শুরু হয়েছে স্বপ্নকে ছাড়িয়ে যাওয়ার প্রতিযোগিতা। সেতুটি সম্পূর্ণ রূপে চালু হওয়ায় দেশের দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলের সঙ্গে রাজধানীর যোগাযোগ ব্যবস্থায় বৈপ্লবিক পরিবর্তন আসবে। সময়কে উপেক্ষা করে সেতু দিয়ে ছুটবে বাস, ট্রাক। এক সময় চলবে ট্রেনও।

পদ্মা সেতু শুধু রড, সিমেন্ট ও পাথরের সেতু নয়, এর সঙ্গে জড়িয়ে আছে ১৭ কোটিরও বেশি মানুষের আবেগ। সব দেশি-বিদেশি ষড়যন্ত্র উজিয়ে সম্পূর্ণ দেশের অর্থায়নে মাথা তুলে দাঁড়িয়েছে এই স্বপ্নের পদ্মা সেতু। ষড়যন্ত্রকারীরা পদ্মা সেতু নির্মাণ বন্ধ করার জন্য চেষ্টা করে ব্যর্থ হয়ে সেতু সম্বন্ধে নানা রকম মিথ্যা, ভিত্তিহীন তথ্য ও গুজব ছড়িয়ে দিয়ে সাধারণ মানুষকে বিভ্রান্ত করার চেষ্টা করেছে।

কিন্তু তাতে সফল হতে পারেনি তারা। দেশবাসীর ভালোবাসা আর বর্তমান সরকারের সাহসী ভূমিকায় নিজ দেশের অর্থায়নে মাথা তুলে দাঁড়িয়েছে এই সেতু। বিশ্ব দরবারে এই সেতু দারুণ এক বিস্ময়।

মাসুদ হোসেন

চাঁদপুর সদর

চিঠি : মাদকের বিরুদ্ধে সচেতনতা বৃদ্ধি করতে হবে

চিঠি : পিরিয়ড নিয়ে যত কুসংস্কার

চিঠি : হতাশার অপর নাম বেকারত্ব

চিঠি : রেলস্টেশনে নারীদের টয়লেটের দুরবস্থা

চিঠি : জনশুমারি : বাদ পড়াদের অন্তর্ভুক্ত করার দাবি

চিঠি : বিশ্ববিদ্যালয়ে নিরাপত্তা ব্যবস্থা জোরদার করতে হবে

চিঠি : পুরোহিত প্রশিক্ষণ একাডেমি প্রয়োজন

চিঠি : শিক্ষার্থীর মানসিক স্বাস্থ্য

চিঠি : টেলিটকের নেটওয়ার্ক ভোগান্তি দূর করুন

চিঠি : অভিভাবকদের প্রত্যাশা

চিঠি : রেলের ঘুম কি ভাঙবে না

চিঠি : মোমবাতি ও হারিকেনের যুগে ফিরছে শিক্ষার্থীরা

চিঠি : মাদকেই সর্বনাশ

চিঠি : ভাষার সৌন্দর্য

চিঠি : ধর্ষণ বন্ধে পুরুষকেই জাগতে হবে সবার আগে

চিঠি : পড়াশোনা হোক আনন্দময়

চিঠি : মানসম্মত হেলমেট

চিঠি : বিদ্যুৎ অপচয় বন্ধ করুন

চিঠি : বিদ্যুৎ অপচয় করছে অটোরিকশা

চিঠি : শিক্ষকদের নিরাপত্তা নিশ্চিত হোক

চিঠি : প্রতিবন্ধীদের প্রতি সামাজিক দায়িত্ব

চিঠি : নৈতিকতার অবক্ষয় রোধে সামাজিক মূল্যবোধ

চিঠি : মৌসুমি জ্বরে সতর্কতা অবলম্বন করুন

চিঠি : টিকটক নামক সামাজিক ব্যাধি

চিঠি : আমাদের গর্ব

চিঠি : বাড়ছে করোনার সংক্রমণ, সতর্ক হোন

চিঠি : বাড়ছে করোনার সংক্রমণ, সতর্ক হোন

চিঠি : ওয়ানডে বিশ্বকাপ নিয়ে পরিকল্পনা জরুরি

চিঠি : চামড়া সংরক্ষণে নজর দিন

চিঠি : কাজ হারানো নারীদের প্রতি সুদৃষ্টি দিন

চিঠি : শিক্ষক-শিক্ষার্থীর সম্পর্ক হোক মধুর

চিঠি : শতবর্ষী খেলার মাঠটি বাঁচান

চিঠি : অবহেলিত ঢাবি অধিভুক্ত সাত কলেজের শিক্ষার্থীরা

চিঠি : ট্রেনে হিজড়াদের উৎপাত

চিঠি : এ কেমন আচরণ!

চিঠি : নিরাপদ হোক এবারের বাড়িফেরা

tab

চিঠিপত্র

চিঠি : পদ্মা সেতু : সাহসী ভূমিকায় অনন্য অর্জন

মতামতের জন্য সম্পাদক দায়ী নন

রোববার, ২৬ জুন ২০২২

১৯৯৯ সালে প্রাক-সম্ভাব্যতা যাচাই সমীক্ষার মাধ্যমে প্রকল্পের সূত্রপাত হয় স্বপ্নের পদ্মা সেতুর। সূচনার প্রায় দুই দশক পর আজ তা বাস্তবায়ন হয়েছে। এক সময়ের স্বপ্নের সেতু এখন দৃষ্টিসীমায় দিগন্তজুড়ে দাঁড়িয়ে। পদ্মার তীর থেকে দেখা যাচ্ছে পিলারের দীর্ঘ সারি।

উদ্বোধনের পর থেকেই শুরু হয়েছে স্বপ্নকে ছাড়িয়ে যাওয়ার প্রতিযোগিতা। সেতুটি সম্পূর্ণ রূপে চালু হওয়ায় দেশের দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলের সঙ্গে রাজধানীর যোগাযোগ ব্যবস্থায় বৈপ্লবিক পরিবর্তন আসবে। সময়কে উপেক্ষা করে সেতু দিয়ে ছুটবে বাস, ট্রাক। এক সময় চলবে ট্রেনও।

পদ্মা সেতু শুধু রড, সিমেন্ট ও পাথরের সেতু নয়, এর সঙ্গে জড়িয়ে আছে ১৭ কোটিরও বেশি মানুষের আবেগ। সব দেশি-বিদেশি ষড়যন্ত্র উজিয়ে সম্পূর্ণ দেশের অর্থায়নে মাথা তুলে দাঁড়িয়েছে এই স্বপ্নের পদ্মা সেতু। ষড়যন্ত্রকারীরা পদ্মা সেতু নির্মাণ বন্ধ করার জন্য চেষ্টা করে ব্যর্থ হয়ে সেতু সম্বন্ধে নানা রকম মিথ্যা, ভিত্তিহীন তথ্য ও গুজব ছড়িয়ে দিয়ে সাধারণ মানুষকে বিভ্রান্ত করার চেষ্টা করেছে।

কিন্তু তাতে সফল হতে পারেনি তারা। দেশবাসীর ভালোবাসা আর বর্তমান সরকারের সাহসী ভূমিকায় নিজ দেশের অর্থায়নে মাথা তুলে দাঁড়িয়েছে এই সেতু। বিশ্ব দরবারে এই সেতু দারুণ এক বিস্ময়।

মাসুদ হোসেন

চাঁদপুর সদর

back to top