alt

চিঠিপত্র

চিঠি : মাদকের বিরুদ্ধে সচেতনতা বৃদ্ধি করতে হবে

: বৃহস্পতিবার, ১১ আগস্ট ২০২২

মতামতের জন্য সম্পাদক দায়ী নন

মাদক বর্তমান সময়ে মারাত্মক ব্যাধি হয়ে দাঁড়িয়েছে। যুব সমাজ দলে দলে ঝুঁকছে মাদকের দিকে। শহর কিংবা গ্রামের রন্ধ্রে রন্ধ্রে পৌঁছে গেছে মাদক। মাদকের থাবায় ঘায়েল হয়ে যাচ্ছে আবেগ প্রবণ যুব সমাজ। তাই মাদক মুক্ত সমাজ গড়াই এখন সবচেয়ে বড় চ্যালেঞ্জে পরিণত হয়েছে। মাদক শুধু একজন মানুষকে ধ্বংস করে না। একটা পরিবারকে বিনষ্ট করে দেয়ে, এই পরিবারে ধস নেমে আসে অচিরেই। পরিবারে অশান্তি হয় রাবণের চিতার মতো। মাদকাশক্ত ব্যক্তিও জীবনে শান্তি বা সুখের দেখা পায় না। মাদকের মাধ্যমে জলন্ত আগুনে নিজেকে জ্বালিয়ে পুড়িয়ে ছারখার করে দেয়। জীবনে অন্ধকার ছাড়া আর কিছুই থাকে না। মাদকের প্রভাব ছড়িয়ে পড়ে পুরো সমাজে।

মানসিক অশান্তি, ব্যক্তিগত জীবনে হতাশা নেমে আসা, প্রিয় মানুষদের দ্বারা প্রতারণার শিকার হওয়া, কোন সম্পর্ক মাঝপথে থেমে যাওয়া ছাড়াও নানা কারণে মানুষ মাদকাসক্ত হয়ে যায়। তাই সবার উচিত একাকিত্ব বা এ কঠিন সময়ে মানুষের পাশে থাকা। সে যাতে ঘুরে দাঁড়ানোর সাহস জোগাতে পারে। পাশাপাশি সমাজের মধ্যে মাদকের বিরুদ্ধে জিরো টলারেন্স ঘোষণা করা, মাদকের বিরুদ্ধে সচেতনতা বৃদ্ধি করা। তবেই সমাজ হবে মাদক মুক্ত। সমাজে ফিরে আসবে শান্তি ও সুখ।

জুবায়েদ মোস্তফা

চিঠি : কুষ্টিয়ায় বিমানবন্দর চাই

চিঠি : যাত্রা পথে দুর্ঘটনা

চিঠি : নিয়োগ পরীক্ষায় মোবাইল ও ব্যাগের নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে হবে

চিঠি : ছাপা কাগজে খাবার বিক্রি বন্ধ হোক

চিঠি : তৃতীয় লিঙ্গের চাঁদাবাজি বন্ধ হোক

চিঠি : শারদীয় দুর্গাপূজা

চিঠি : আন্দোলনের নামে নৈরাজ্য নয়

চিঠি : ফরিদাবাদে স্ট্রিট লাইট সংকট

চিঠি : ডিজিটাল ভূমি জরিপ নির্ভুল করার উপায়

চিঠি : মুগদাপাড়ায় তীব্র গ্যাস সংকট

চিঠি : মামলা জটের কারণ কী?

চিঠি : যাঁতাকলে মধ্যবিত্ত

চিঠি : অব্যবস্থাপনার যাঁতাকল

চিঠি : পাবলিক টয়লেটের সংখ্যা বাড়ান

চিঠি : মহাসড়কের নিরাপত্তাব্যবস্থা

চিঠি : আত্মহত্যা কোন সমাধান নয়

চিঠি : ইবিতে পরিবহন সমস্যা

চিঠি : অবৈধ ফার্মেসির লাগাম টানুন

চিঠি : রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসনে দ্রুত পদক্ষেপ প্রয়োজন

চিঠি : অটোরিকশার লাইসেন্স প্রসঙ্গে

চিঠি : সৌহার্দপূর্ণ সম্পর্ক

চিঠি : নিত্যপণ্যের মূল্যবৃদ্ধি

চিঠি : পানিতে ডুবে শিশুর মৃত্যুহার কমাতে পদক্ষেপ নিন

চিঠি : এশিয়া কাপে টাইগারদের নিয়ে প্রত্যাশা

চিঠি : উচ্চশিক্ষা ও গবেষণার মাধ্যম হোক মাতৃভাষা

চিঠি : সোশ্যাল মিডিয়া ও ব্যক্তিগত জীবন

চিঠি : ইবির আধুনিকায়ন চাই

চিঠি : অগ্রগতির প্রতিবন্ধকতা কুসংস্কার

চিঠি : কাগজের ঠোঙার খাবারের স্বাস্থ্যঝুঁকি

চিঠি : ঝুঁকিপূর্ণ বিলবোর্ড অপসারণ করুন

চিঠি : নারী নির্যাতনের বিরুদ্ধে প্রতিবাদ গড়ে তুলতে হবে

চিঠি : ঢাকা কলেজে নতুন শহীদ মিনার

চিঠি : ডিপ্রেশন এবং আত্মহত্যা!

চিঠি : বন্ধুত্বের যত্ন নিন

চিঠি : ট্রাফিক পুলিশ ও ব্যবস্থাপনা

চিঠি : বিমানবন্দরে প্রবাসীদের হয়রানি

tab

চিঠিপত্র

চিঠি : মাদকের বিরুদ্ধে সচেতনতা বৃদ্ধি করতে হবে

মতামতের জন্য সম্পাদক দায়ী নন

বৃহস্পতিবার, ১১ আগস্ট ২০২২

মাদক বর্তমান সময়ে মারাত্মক ব্যাধি হয়ে দাঁড়িয়েছে। যুব সমাজ দলে দলে ঝুঁকছে মাদকের দিকে। শহর কিংবা গ্রামের রন্ধ্রে রন্ধ্রে পৌঁছে গেছে মাদক। মাদকের থাবায় ঘায়েল হয়ে যাচ্ছে আবেগ প্রবণ যুব সমাজ। তাই মাদক মুক্ত সমাজ গড়াই এখন সবচেয়ে বড় চ্যালেঞ্জে পরিণত হয়েছে। মাদক শুধু একজন মানুষকে ধ্বংস করে না। একটা পরিবারকে বিনষ্ট করে দেয়ে, এই পরিবারে ধস নেমে আসে অচিরেই। পরিবারে অশান্তি হয় রাবণের চিতার মতো। মাদকাশক্ত ব্যক্তিও জীবনে শান্তি বা সুখের দেখা পায় না। মাদকের মাধ্যমে জলন্ত আগুনে নিজেকে জ্বালিয়ে পুড়িয়ে ছারখার করে দেয়। জীবনে অন্ধকার ছাড়া আর কিছুই থাকে না। মাদকের প্রভাব ছড়িয়ে পড়ে পুরো সমাজে।

মানসিক অশান্তি, ব্যক্তিগত জীবনে হতাশা নেমে আসা, প্রিয় মানুষদের দ্বারা প্রতারণার শিকার হওয়া, কোন সম্পর্ক মাঝপথে থেমে যাওয়া ছাড়াও নানা কারণে মানুষ মাদকাসক্ত হয়ে যায়। তাই সবার উচিত একাকিত্ব বা এ কঠিন সময়ে মানুষের পাশে থাকা। সে যাতে ঘুরে দাঁড়ানোর সাহস জোগাতে পারে। পাশাপাশি সমাজের মধ্যে মাদকের বিরুদ্ধে জিরো টলারেন্স ঘোষণা করা, মাদকের বিরুদ্ধে সচেতনতা বৃদ্ধি করা। তবেই সমাজ হবে মাদক মুক্ত। সমাজে ফিরে আসবে শান্তি ও সুখ।

জুবায়েদ মোস্তফা

back to top