alt

চিঠিপত্র

চিঠি : সাইবার অপরাধ রোধে সতর্কতা জরুরি

: শুক্রবার, ১২ আগস্ট ২০২২

মতামতের জন্য সম্পাদক দায়ী নন

বিশ্বের সঙ্গে তাল মিলিয়ে আমরাও ১৯৯৬ সাল থেকে ইন্টারনেট ব্যবহার শুরু করি। ক্রমান্বয়ে এর ব্যবহার বাড়তে থাকে। ইন্টারনেটের কল্যাণে জাদুর মতোই হাতের মুঠোয়ে পৃথিবী! কিন্তু প্রতিটা সুবিধারই কিছু অসুবিধা রয়েছে। বর্তমানে দেশে ইন্টারনেটভিত্তিক নানান অপরাধ বা সাইবার অপরাধ বাড়ছে। এসব অপরাধ দমনে দেশের ৮টি বিভাগে সাইবার ট্রাইব্যুনাল গঠিত হয়েছে। এসব ট্রাইবুনালে বিচার্য অপরাধসমূহ তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি আইন, ২০০৬ (সংশোধিত-২০১৩)-এ সংযোজিত ধারায় বিচার করা হলেও বর্তমানে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন, ২০১৮ দ্বারা পরিচালিত হচ্ছে। নতুন এই আইনে অপরাধের শাস্তি অনধিক ১০ বছরের কারাদন্ড বা অনধিক ৩ লাখ টাকা জরিমানা বা উভয়দন্ডের বিধান রাখা হয়েছে।

তবে দ্বিতীয়বার বা পুনঃপুন অপরাধের জন্য যাবজ্জীবন কারাদন্ড ও এক কোটি টাকা জরিমানা বা উভয়দন্ডের বিধান রাখা হয়েছে। সাইবার অপরাধ যখন ঊর্ধ্বমুখী, তখন জানা-অজানায় বিভিন্ন বয়সের লোকজন বিশেষ করে কিশোররা এ অপরাধে সবচেয়ে বেশি জড়িয়ে পড়ছে। ফলে ইন্টারনেট ব্যবহারে আমাদের অনেক সতর্ক থাকা দরকার।

মো. রায়হান আলী

আইনজীবী, খুলনা জজ কোর্ট

চিঠি : ফরিদাবাদে স্ট্রিট লাইট সংকট

চিঠি : ডিজিটাল ভূমি জরিপ নির্ভুল করার উপায়

চিঠি : মুগদাপাড়ায় তীব্র গ্যাস সংকট

চিঠি : মামলা জটের কারণ কী?

চিঠি : যাঁতাকলে মধ্যবিত্ত

চিঠি : অব্যবস্থাপনার যাঁতাকল

চিঠি : পাবলিক টয়লেটের সংখ্যা বাড়ান

চিঠি : মহাসড়কের নিরাপত্তাব্যবস্থা

চিঠি : আত্মহত্যা কোন সমাধান নয়

চিঠি : ইবিতে পরিবহন সমস্যা

চিঠি : অবৈধ ফার্মেসির লাগাম টানুন

চিঠি : রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসনে দ্রুত পদক্ষেপ প্রয়োজন

চিঠি : অটোরিকশার লাইসেন্স প্রসঙ্গে

চিঠি : সৌহার্দপূর্ণ সম্পর্ক

চিঠি : নিত্যপণ্যের মূল্যবৃদ্ধি

চিঠি : পানিতে ডুবে শিশুর মৃত্যুহার কমাতে পদক্ষেপ নিন

চিঠি : এশিয়া কাপে টাইগারদের নিয়ে প্রত্যাশা

চিঠি : উচ্চশিক্ষা ও গবেষণার মাধ্যম হোক মাতৃভাষা

চিঠি : সোশ্যাল মিডিয়া ও ব্যক্তিগত জীবন

চিঠি : ইবির আধুনিকায়ন চাই

চিঠি : অগ্রগতির প্রতিবন্ধকতা কুসংস্কার

চিঠি : কাগজের ঠোঙার খাবারের স্বাস্থ্যঝুঁকি

চিঠি : ঝুঁকিপূর্ণ বিলবোর্ড অপসারণ করুন

চিঠি : নারী নির্যাতনের বিরুদ্ধে প্রতিবাদ গড়ে তুলতে হবে

চিঠি : ঢাকা কলেজে নতুন শহীদ মিনার

চিঠি : ডিপ্রেশন এবং আত্মহত্যা!

চিঠি : বন্ধুত্বের যত্ন নিন

চিঠি : ট্রাফিক পুলিশ ও ব্যবস্থাপনা

চিঠি : বিমানবন্দরে প্রবাসীদের হয়রানি

চিঠি : প্রতিবন্ধীদের প্রতি অবহেলা নয়

চিঠি : মাদকের বিরুদ্ধে সচেতনতা বৃদ্ধি করতে হবে

চিঠি : পিরিয়ড নিয়ে যত কুসংস্কার

চিঠি : হতাশার অপর নাম বেকারত্ব

চিঠি : রেলস্টেশনে নারীদের টয়লেটের দুরবস্থা

চিঠি : জনশুমারি : বাদ পড়াদের অন্তর্ভুক্ত করার দাবি

চিঠি : বিশ্ববিদ্যালয়ে নিরাপত্তা ব্যবস্থা জোরদার করতে হবে

tab

চিঠিপত্র

চিঠি : সাইবার অপরাধ রোধে সতর্কতা জরুরি

মতামতের জন্য সম্পাদক দায়ী নন

শুক্রবার, ১২ আগস্ট ২০২২

বিশ্বের সঙ্গে তাল মিলিয়ে আমরাও ১৯৯৬ সাল থেকে ইন্টারনেট ব্যবহার শুরু করি। ক্রমান্বয়ে এর ব্যবহার বাড়তে থাকে। ইন্টারনেটের কল্যাণে জাদুর মতোই হাতের মুঠোয়ে পৃথিবী! কিন্তু প্রতিটা সুবিধারই কিছু অসুবিধা রয়েছে। বর্তমানে দেশে ইন্টারনেটভিত্তিক নানান অপরাধ বা সাইবার অপরাধ বাড়ছে। এসব অপরাধ দমনে দেশের ৮টি বিভাগে সাইবার ট্রাইব্যুনাল গঠিত হয়েছে। এসব ট্রাইবুনালে বিচার্য অপরাধসমূহ তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি আইন, ২০০৬ (সংশোধিত-২০১৩)-এ সংযোজিত ধারায় বিচার করা হলেও বর্তমানে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন, ২০১৮ দ্বারা পরিচালিত হচ্ছে। নতুন এই আইনে অপরাধের শাস্তি অনধিক ১০ বছরের কারাদন্ড বা অনধিক ৩ লাখ টাকা জরিমানা বা উভয়দন্ডের বিধান রাখা হয়েছে।

তবে দ্বিতীয়বার বা পুনঃপুন অপরাধের জন্য যাবজ্জীবন কারাদন্ড ও এক কোটি টাকা জরিমানা বা উভয়দন্ডের বিধান রাখা হয়েছে। সাইবার অপরাধ যখন ঊর্ধ্বমুখী, তখন জানা-অজানায় বিভিন্ন বয়সের লোকজন বিশেষ করে কিশোররা এ অপরাধে সবচেয়ে বেশি জড়িয়ে পড়ছে। ফলে ইন্টারনেট ব্যবহারে আমাদের অনেক সতর্ক থাকা দরকার।

মো. রায়হান আলী

আইনজীবী, খুলনা জজ কোর্ট

back to top