alt

চিঠিপত্র

চিঠি : বিমানবন্দরে প্রবাসীদের হয়রানি

: শনিবার, ১৩ আগস্ট ২০২২

মতামতের জন্য সম্পাদক দায়ী নন

প্রবাসীরা আমাদের দেশের সূর্য সন্তান। তারা হাড়ভাঙা পরিশ্রম করে রেমিট্যান্স পাঠিয়ে দেশের অর্থনীতির ভিতকে মজবুত করছে। বৈদেশিক রিজার্ভকে সমৃদ্ধ করছে। এছাড়াও বিভিন্ন দেশে কর্মরত প্রবাসীদের পাঠানো রেমিট্যান্স বাংলাদেশের অর্থনীতি ও আর্থ-সামাজিক উন্নয়নে অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখছে। দেশের ব্যবসা-বাণিজ্য, শিল্প উৎপাদন, স্কুল-মাদ্রাসা, মসজিদ, হাসপাতাল স্থাপনাসহ বিভিন্ন উন্নয়নমূলক কর্মকান্ডেও এ অর্থ ব্যয় হচ্ছে। দারিদ্র্য বিমোচন ও মানুষের জীবনমান উন্নয়নে প্রবাসীদের রেমিট্যান্সের ভূমিকা ব্যাপক। বাংলাদেশি বিপুলসংখ্যক নাগরিক মধ্যপ্রাচ্য, ইউরোপ, এশিয়া ও আমেরিকার বিভিন্ন দেশে অভিবাসী রয়েছে। তাদের অধিকাংশই শ্রমিক হিসেবে কর্মরত আছেন।

প্রবাসীরা প্রায় সময় নানাভাবে বঞ্চনা, শোষণ, অবহেলা ও নিগ্রহের শিকার হচ্ছেন। কখনো কখনো নির্যাতিত হচ্ছেন আবার অনেকেই ন্যায়বিচার থেকেও বঞ্চিত হচ্ছেন। তবুও নিজ পরিবার ও রাষ্ট্রের কল্যাণে হাসিমুখে সব মেনে নিয়ে দেশে রেমিট্যান্স পাঠাচ্ছেন। কিন্তু পরিতাপের বিষয়, তারা নিজ দেশে এসেও বিমানবন্দরে নানা রকম হয়রানির শিকার হচ্ছেন। মূল ধারার গণমাধ্যমে সে সব ঘটনা প্রায়ই উঠে আসে। এ ব্যাপারে বরাবরই অভিযোগ জানিয়ে আসছে প্রবাসীরা।

সম্প্রতি এক প্রবাসীকে চড় মেরে একজন কাস্টমস কর্মকর্তা বরখাস্ত হয়েছেন, যা বিভিন্ন সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে আলোচনা-সমালোচনার কেন্দ্রবিন্দুতে পরিণত হয়েছে। প্রবাসীদের প্রতি এমন নীতিবহির্ভূত, অমানবিক আচরণ বন্ধে কর্তৃপক্ষের কঠোর সিদ্ধান্ত নেয়া উচিত। মনে রাখতে হবে, প্রবাসীদের প্রেরিত রেমিট্যান্স আমাদের অর্থনীতিতে অক্সিজেনের মতো।

মামুন হোসেন আগুন

চিঠি : শারদীয় দুর্গাপূজা

চিঠি : আন্দোলনের নামে নৈরাজ্য নয়

চিঠি : ফরিদাবাদে স্ট্রিট লাইট সংকট

চিঠি : ডিজিটাল ভূমি জরিপ নির্ভুল করার উপায়

চিঠি : মুগদাপাড়ায় তীব্র গ্যাস সংকট

চিঠি : মামলা জটের কারণ কী?

চিঠি : যাঁতাকলে মধ্যবিত্ত

চিঠি : অব্যবস্থাপনার যাঁতাকল

চিঠি : পাবলিক টয়লেটের সংখ্যা বাড়ান

চিঠি : মহাসড়কের নিরাপত্তাব্যবস্থা

চিঠি : আত্মহত্যা কোন সমাধান নয়

চিঠি : ইবিতে পরিবহন সমস্যা

চিঠি : অবৈধ ফার্মেসির লাগাম টানুন

চিঠি : রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসনে দ্রুত পদক্ষেপ প্রয়োজন

চিঠি : অটোরিকশার লাইসেন্স প্রসঙ্গে

চিঠি : সৌহার্দপূর্ণ সম্পর্ক

চিঠি : নিত্যপণ্যের মূল্যবৃদ্ধি

চিঠি : পানিতে ডুবে শিশুর মৃত্যুহার কমাতে পদক্ষেপ নিন

চিঠি : এশিয়া কাপে টাইগারদের নিয়ে প্রত্যাশা

চিঠি : উচ্চশিক্ষা ও গবেষণার মাধ্যম হোক মাতৃভাষা

চিঠি : সোশ্যাল মিডিয়া ও ব্যক্তিগত জীবন

চিঠি : ইবির আধুনিকায়ন চাই

চিঠি : অগ্রগতির প্রতিবন্ধকতা কুসংস্কার

চিঠি : কাগজের ঠোঙার খাবারের স্বাস্থ্যঝুঁকি

চিঠি : ঝুঁকিপূর্ণ বিলবোর্ড অপসারণ করুন

চিঠি : নারী নির্যাতনের বিরুদ্ধে প্রতিবাদ গড়ে তুলতে হবে

চিঠি : ঢাকা কলেজে নতুন শহীদ মিনার

চিঠি : ডিপ্রেশন এবং আত্মহত্যা!

চিঠি : বন্ধুত্বের যত্ন নিন

চিঠি : ট্রাফিক পুলিশ ও ব্যবস্থাপনা

চিঠি : সাইবার অপরাধ রোধে সতর্কতা জরুরি

চিঠি : প্রতিবন্ধীদের প্রতি অবহেলা নয়

চিঠি : মাদকের বিরুদ্ধে সচেতনতা বৃদ্ধি করতে হবে

চিঠি : পিরিয়ড নিয়ে যত কুসংস্কার

চিঠি : হতাশার অপর নাম বেকারত্ব

চিঠি : রেলস্টেশনে নারীদের টয়লেটের দুরবস্থা

tab

চিঠিপত্র

চিঠি : বিমানবন্দরে প্রবাসীদের হয়রানি

মতামতের জন্য সম্পাদক দায়ী নন

শনিবার, ১৩ আগস্ট ২০২২

প্রবাসীরা আমাদের দেশের সূর্য সন্তান। তারা হাড়ভাঙা পরিশ্রম করে রেমিট্যান্স পাঠিয়ে দেশের অর্থনীতির ভিতকে মজবুত করছে। বৈদেশিক রিজার্ভকে সমৃদ্ধ করছে। এছাড়াও বিভিন্ন দেশে কর্মরত প্রবাসীদের পাঠানো রেমিট্যান্স বাংলাদেশের অর্থনীতি ও আর্থ-সামাজিক উন্নয়নে অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখছে। দেশের ব্যবসা-বাণিজ্য, শিল্প উৎপাদন, স্কুল-মাদ্রাসা, মসজিদ, হাসপাতাল স্থাপনাসহ বিভিন্ন উন্নয়নমূলক কর্মকান্ডেও এ অর্থ ব্যয় হচ্ছে। দারিদ্র্য বিমোচন ও মানুষের জীবনমান উন্নয়নে প্রবাসীদের রেমিট্যান্সের ভূমিকা ব্যাপক। বাংলাদেশি বিপুলসংখ্যক নাগরিক মধ্যপ্রাচ্য, ইউরোপ, এশিয়া ও আমেরিকার বিভিন্ন দেশে অভিবাসী রয়েছে। তাদের অধিকাংশই শ্রমিক হিসেবে কর্মরত আছেন।

প্রবাসীরা প্রায় সময় নানাভাবে বঞ্চনা, শোষণ, অবহেলা ও নিগ্রহের শিকার হচ্ছেন। কখনো কখনো নির্যাতিত হচ্ছেন আবার অনেকেই ন্যায়বিচার থেকেও বঞ্চিত হচ্ছেন। তবুও নিজ পরিবার ও রাষ্ট্রের কল্যাণে হাসিমুখে সব মেনে নিয়ে দেশে রেমিট্যান্স পাঠাচ্ছেন। কিন্তু পরিতাপের বিষয়, তারা নিজ দেশে এসেও বিমানবন্দরে নানা রকম হয়রানির শিকার হচ্ছেন। মূল ধারার গণমাধ্যমে সে সব ঘটনা প্রায়ই উঠে আসে। এ ব্যাপারে বরাবরই অভিযোগ জানিয়ে আসছে প্রবাসীরা।

সম্প্রতি এক প্রবাসীকে চড় মেরে একজন কাস্টমস কর্মকর্তা বরখাস্ত হয়েছেন, যা বিভিন্ন সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে আলোচনা-সমালোচনার কেন্দ্রবিন্দুতে পরিণত হয়েছে। প্রবাসীদের প্রতি এমন নীতিবহির্ভূত, অমানবিক আচরণ বন্ধে কর্তৃপক্ষের কঠোর সিদ্ধান্ত নেয়া উচিত। মনে রাখতে হবে, প্রবাসীদের প্রেরিত রেমিট্যান্স আমাদের অর্থনীতিতে অক্সিজেনের মতো।

মামুন হোসেন আগুন

back to top