alt

চিঠিপত্র

চিঠি : জানি কিন্তু মানি না

: শনিবার, ০৬ মে ২০২৩

মতামতের জন্য সম্পাদক দায়ী নন

তীব্র দাবদাহে পুড়ছে প্রকৃতি। গরমে হাঁসফাঁস করছে শিশু থেকে বৃদ্ধ। অনেকে অসুস্থ হয়ে হাসপাতালেও ছোটাছুটি করছে। আবহাওয়ার এই দশার পেছনে আমরাই অনেকাংশে দায়ী। প্রকৃতির প্রাণ গাছ কেটে প্রতিনিয়ত সাবাড় করছি। ‘গাছ লাগান, পরিবেশ বাঁচান’ বাক্যটির সঙ্গে আমরা সবাইই পরিচিত। এমনকি বাস, লঞ্চ, ট্রাক, সিএনজিতেও এই বাক্যটি প্রায়শই চোখে পড়ে। টেলিভিশন, পত্রিকা, সোশ্যাল মিডিয়া সব জায়গাতেই এই বিজ্ঞাপনে ভরপুর।

আমরা সবাইই জানি গাছ প্রকৃতির ও আমাদের জন্য ঠিক কতখানি উপকারী। সব জেনেও তেমন উদ্যোগ নিতে দেখা যায় না কাউকে। এমনকি যারা সেমিনার-সিম্পোজিয়ামে গাছ লাগানোর ব্যাপারে বড় বড় বক্তব্য দিয়ে আসেন তারাও নিজেরা গাছ লাগানোর ব্যাপারে ততটা সচেতন নন।

বিভিন্ন সংগঠন মাঝেমধ্যে বৃক্ষরোপণ কর্মসূচির নামে গাছ লাগালেও পরবর্তীতে পরিচর্যার অভাবে গাছ মারা যায়। আমরা সহপাঠী, সিনিয়র কিংবা জুনিয়রদের বিভিন্ন উপলক্ষে বিভিন্ন উপহারসামগ্রী প্রদান করি। এসবের পাশাপাশি উপহার হিসেবে আমরা চারাগাছের প্রচলন করতে পারি।

আসুন আমরা প্রকৃতিকে নিজ হাতে মেরে না ফেলে বেশি করে গাছ লাগাই। এতে প্রকৃতির ও আমাদেরই উপকার হবে। কথায় আছে ‘আপন ভালো সবাই চায়’। বৃক্ষরোপণের মাধ্যমে এ প্রবাদের প্রতিফলন ঘটানো এখন সময়ের দাবি।

শ্যামলী খাতুন

চিঠি : শিশুদের মোবাইল ফোন ব্যবহারে সতর্ক হোন

চিঠি : বাজার দরে লাগাম টানতে হবে

চিঠি : লাকসামের গ্রামগুলোতে চুরি বন্ধে ব্যবস্থা নিন

চিঠি : জীববৈচিত্র্য টিকিয়ে রাখতে ব্যবস্থা নিন

চিঠি : ভুতুড়ে বিদ্যুৎ বিল

চিঠি : ডিপ্লোমা ফার্মাসিস্ট নিয়োগ চাই

চিঠি : বিবাহবিচ্ছেদ বাড়ছে কেন

চিঠি : দাঁড়াশ সাপ শত্রু নয়, বরং কৃষকের বন্ধু

চিঠি : অ্যালকোহল সেন্টাল অ্যাব্রেশন পদ্ধতিতে হৃদরোগ চিকিৎসা

চিঠি : প্রকল্প বাস্তবায়নে জটিলতা

চিঠি : দয়ার সাগর বিদ্যাসাগর

চিঠি : কেন বাড়ছে বিবাহ বিচ্ছেদ

চিঠি : মাদক নিয়ন্ত্রণে চাই সম্মিলিত প্রয়াস

চিঠি : ডেঙ্গু রোগীদের চিকিৎসায় চাই সঠিক ব্যবস্থাপনা

চিঠি : ভিক্ষুক মুক্ত দেশ চাই

চিঠি : রাস্তাটি সংস্কার জরুরি

চিঠি : সুখী দেশ

চিঠি : ডিজিটাল মার্কেটিংয়ের অলিগলি

চিঠি : শিশুশ্রম বন্ধ করতে হবে

চিঠি : কর্মসংস্থান ও দারিদ্র্য বিমোচনে মৎস্য খাতের সাফল্য

চিঠি : অনলাইন বিনিয়োগে সতর্ক হোন

চিঠি : গ্রাম ও শহরের স্বাস্থ্যসেবার পার্থক্য ঘুচুক

চিঠি : এলিভেটেড এক্সপ্রেসওয়ে : যাতায়াতে মিলবে স্বস্তি

চিঠি : চুয়েট : গৌরবময় পথচলা

চিঠি : ইভটিজিং প্রতিরোধে প্রয়োজন নৈতিক শিক্ষা

চিঠি : লেজুড়বৃত্তিক ছাত্র রাজনীতি বন্ধ হোক

চিঠি : বিদ্যুৎ খাতে অটোমেশন পদ্ধতি চালু করুন

চিঠি : দক্ষ জাতি গড়তে কারিগরি শিক্ষা জরুরি

চিঠি : সুবিধাবঞ্চিত শিশুরা বোঝা নয়

চিঠি : মাদককে না বলুন

চিঠি : গাছপালা নেই, আছে অট্টালিকা

চিঠি : সিলেটে ক্যান্সারের পেটসিটি মেশিন চাই

চিঠি : ‘নজরুল স্টাডিস’ কোর্স

চিঠি : ঢাকা কলেজের সামনের সড়কে স্পিড ব্রেকার চাই

চিঠি : বানভাসিদের কষ্ট লাঘবে প্রয়োজন সহায়তা

চিঠি : পানিতে ডুবে শিশু মৃত্যু প্রতিরোধে করণীয়

tab

চিঠিপত্র

চিঠি : জানি কিন্তু মানি না

মতামতের জন্য সম্পাদক দায়ী নন

শনিবার, ০৬ মে ২০২৩

তীব্র দাবদাহে পুড়ছে প্রকৃতি। গরমে হাঁসফাঁস করছে শিশু থেকে বৃদ্ধ। অনেকে অসুস্থ হয়ে হাসপাতালেও ছোটাছুটি করছে। আবহাওয়ার এই দশার পেছনে আমরাই অনেকাংশে দায়ী। প্রকৃতির প্রাণ গাছ কেটে প্রতিনিয়ত সাবাড় করছি। ‘গাছ লাগান, পরিবেশ বাঁচান’ বাক্যটির সঙ্গে আমরা সবাইই পরিচিত। এমনকি বাস, লঞ্চ, ট্রাক, সিএনজিতেও এই বাক্যটি প্রায়শই চোখে পড়ে। টেলিভিশন, পত্রিকা, সোশ্যাল মিডিয়া সব জায়গাতেই এই বিজ্ঞাপনে ভরপুর।

আমরা সবাইই জানি গাছ প্রকৃতির ও আমাদের জন্য ঠিক কতখানি উপকারী। সব জেনেও তেমন উদ্যোগ নিতে দেখা যায় না কাউকে। এমনকি যারা সেমিনার-সিম্পোজিয়ামে গাছ লাগানোর ব্যাপারে বড় বড় বক্তব্য দিয়ে আসেন তারাও নিজেরা গাছ লাগানোর ব্যাপারে ততটা সচেতন নন।

বিভিন্ন সংগঠন মাঝেমধ্যে বৃক্ষরোপণ কর্মসূচির নামে গাছ লাগালেও পরবর্তীতে পরিচর্যার অভাবে গাছ মারা যায়। আমরা সহপাঠী, সিনিয়র কিংবা জুনিয়রদের বিভিন্ন উপলক্ষে বিভিন্ন উপহারসামগ্রী প্রদান করি। এসবের পাশাপাশি উপহার হিসেবে আমরা চারাগাছের প্রচলন করতে পারি।

আসুন আমরা প্রকৃতিকে নিজ হাতে মেরে না ফেলে বেশি করে গাছ লাগাই। এতে প্রকৃতির ও আমাদেরই উপকার হবে। কথায় আছে ‘আপন ভালো সবাই চায়’। বৃক্ষরোপণের মাধ্যমে এ প্রবাদের প্রতিফলন ঘটানো এখন সময়ের দাবি।

শ্যামলী খাতুন

back to top