alt

অপরাধ ও দুর্নীতি

নকল হচ্ছে ক্যানসারের ওষুধ, ৫ অভিযুক্তের স্বীকারোক্তি

বিপুল পরিমাণ ওষুধ ও তৈরী সরঞ্জাম উদ্ধার

বাকী বিল্লাহ : রোববার, ১৯ মার্চ ২০২৩

জীবনরক্ষাকারী ক্যানসারের ওষুধ নকল হচ্ছে। সংঘবদ্ধ চক্র পরস্পর যোগসাজশে আমদানি নিষিদ্ধ হেপাটাইটিস-বি টিকা দিয়ে জরায়ু ক্যানসারের নকল ভ্যাকসিন তৈরি করছে। নকলবাজ চক্র প্রতিটি নকল ভ্যাকসিন প্রায় আড়াই হাজার টাকা করে বিক্রি করছে। ইতোমধ্যে প্রায় ৬ হাজার নারীকে নকল ভ্যাকসিন পুশ করা হয়েছে।

গোয়েন্দা তথ্যের ভিত্তিতে রাজধানীর দক্ষিণ খান এলাকা থেকে ওষুধ নকলবাজ চক্রের ৫ সদস্যকে সম্প্রতি গোয়েন্দা পুলিশ গ্রেপ্তার করেছে। তাদের দেয়া তথ্যমতে, নকল ভ্যাকসিন ও ভ্যাকসিন তৈরির সরঞ্জাম উদ্ধার করা হয়েছে।

গ্রেপ্তাররা হলেন, সাইফুল ইসলাম শিপন, ফয়সাল আহমেদ, আল-আমিন, নুরুজ্জামান সাগর ও আতিকুল ইসলাম।

ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের গোয়েন্দা কর্মকর্তারা (ডিবি) জানান, নকলবাজ চক্র আমদানি নিষিদ্ধ হেপাটাইটিস, বি টিকা দিয়ে জরায়ু ক্যানসারের নকল ভ্যাকসিন তৈরি করছে।

ডিবি মিডিয়া শাখা থেকে বলা হয়েছে, আমদানি নিষিদ্ধ হেপাটাইটিস-বি ভ্যাকসিন, যেটি অবৈধ পথে বাংলাদেশে এনে সাইফুল ইসলাম শিপন তার নিজ বাড়িতে মজুত করতো। এরপর ঢাকার কেরানীগঞ্জে একটি কারখানায় নকল ওষুধ তৈরির মেশিন স্থাপন করে হেপাটাইটিস-বি এর জেনি ভ্যাক-বি এ্যাম্পল খুলে জরায়ু ক্যানসারের ভ্যাকসিন সিআর ভ্যাকসিনে প্রতি এ্যাম্পলে এক মিলি করে ঢুকায়। পরে তা জরায়ু ক্যানসারের ভ্যাকসিন হিসেবে বিক্রি করে।

আমদানি নিষিদ্ধ একটি জেনি ভ্যাক ভ্যাকসিন ভারত থেকে চোরাই পথে ৩৫০ টাকা করে কিনে এনে তা দিয়ে ১০টি জরায়ু ক্যানসারের ভ্যাকসিন তৈরি করে। এরপর প্রতিটি আড়াই হাজার টাকায় বিক্রি করে।

এই চক্রের সদস্য আতিকুল ইসলাম, আল-আমিন, ফয়সাল ও সাগরের মাধ্যমে উক্ত জরায়ু ক্যানসারের নকল ভ্যাকসিন ও অবৈধ হেপাটাইসিস-বি ভাইরাস ভ্যাকসিন ইতোমধ্যে গাজীপুরের বিভিন্ন শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে ক্যাম্পেইন করে প্রায় ৬ হাজার মেয়েকে পুশ করা হয়েছে।

গ্রেপ্তারকৃতদের হেফাজত থেকে আমদানি নিষিদ্ধ ২০টি জেনি ভ্যাক-বি ভ্যাকসিন, ১০২৫টি জরায়ু ক্যানসারের নকল ভ্যাকসিন ও ভ্যাকসিন তৈরির মেশিনসহ বিভিন্ন ধরনের সরঞ্জামাদি উদ্ধার করা হয়েছে। গ্রেপ্তারকৃতদের বিরুদ্ধে রাজধানীর দক্ষিণখান খানায় মামলা দায়ের করা হয়েছে।

রাজধানীর দক্ষিণ খান থানার ওসি সংবাদকে মুঠোফোনে জানান, দক্ষিণখান থানা থেকে নকল ক্যানসার ওষুধ উদ্ধারের ঘটনায় মামলা দায়ের করা হয়েছে। আর মামলাটি গোয়েন্দা পুলিশ তদন্ত করছেন। তারা মামলার নেপথ্য উদ্ঘাটনে কাজ করছেন।

বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ের ভিসি ডা. শারফুদ্দিন আহমেদ জানান, যেকোন ধরনের নকল ওষুধ স্বাভাবিক কার্যক্রমকে ব্যাহত করে। ক্যানসার আক্রান্ত রোগীকে এই ওষুধ দিলে তিনি আরও বেশি অসুস্থ হয়ে যাবেন। এমনকি মুত্যুও হতে পারে। যারা নকল ওষুধ তৈরি ও বিক্রি করছে তাদেরকে খুনি হিসেবে চিহ্নিত করা যায়। তাদের বিরুদ্ধে দেশে প্রচলিত আইনে ব্যবস্থা নেয়া উচিত বলে তিনি মন্তব্্য করেন।

এই সম্পর্কে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক ভিসি ডা. কনক কান্তি বড়–য়া সংবাদকে ফোনে জানান, এই ধরনের নকল ওষুধ ব্যবহারে শরীরে অনেক ধরনের ক্ষতি হতে পারে। যে কাজের জন্য ওষুধ সেবন করা হয়েছে। তাতে উপকার তো হবে না। বরং অন্যান্য অঙ্গের সমস্যা হতে পারে। তবে ওষুধের ভিতিরে কি আছে তা পরীক্ষা করলে ক্ষতির পরিমাণ জানা যাবে।

উল্লেখ্য সম্প্রতি ওষুধ প্রশাসন অধিদপ্তর ও র‌্যাবের যৌথ অভিযানে রাজধানীর মিটফোর্ড পাইকারি ওষুধ মার্কেটসহ দেশের বিভিন্ন স্থানে অভিযান চালিয়ে বিভিন্ন ধরনের নকল ভেজাল ওষুধ উদ্ধার করা হয়েছে। একের পর এক অভিযানে নকল ভেজাল ও অরেজিস্ট্রিকৃত ওষুধ উদ্ধার করা হলেও থামছে না নকল ওষুধ তৈরি ও বিক্রি। রাজধানীসহ দেশের বিভিন্ন এলাকায় এখনও সংঘবদ্ধ জালিয়াত চক্র পরস্পর যোগসাজশে নকল ও ভেজাল ওষুধ তৈরি ও বিক্রি করছে। এই সব ঘটনায় আইনি ব্যবস্থা নেয়া হয়েছে। ওষধু প্রশাসন অধিদপ্তর কর্তৃপক্ষ ও গোয়েন্দা পুলিশের নকল ভেজাল ওষুধ উদ্ধারে অভিযান অব্যাহত আছে।

অর্থপাচার: সকল আসামিকে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা

ছবি

ডিবিতে ডাকা হয়েছে কারিগরি বোর্ডের সাবেক চেয়ারম্যানকে

সখীপুরে র‍্যাবের অভিযানে ইয়াবা গাঁজাসহ গ্রেফতার দুই

রাবিতে শহীদ কামারুজ্জামান হল নির্মাণে অনিয়মের অভিযোগে দুদকের অভিযান

ছবি

ড. ইউনূসকে ২৩ মে পর্যন্ত জামিন

ছবি

তথ্য প্রযুক্তি ব্যবহার করে ছিনতাই ও চুরি হওয়া ফোন সেট উদ্ধার

মতলবে ব্যাংকের নৈশপ্রহরী খুনের রহস্য উন্মোচন,মূল আসামী সহ ৩ জন গ্রেফতার

ছবি

লঞ্চে বোরকা পরে ছিনতাই করতেন তারা

বন্ধুর সহায়তায় প্রবাসীর স্ত্রীকে খুন করে ঘরের মালামাল লুট করে আপন ভাই

গাজীপুরে ৩জন ভুয়া ডিবি পুলিশ আটক

ছবি

আইন অমান্য করে ইটভাটা পরিচালনা, সংবাদ প্রকাশের পর অভিযান, ৩ লাখ টাকা জরিমানা

ছবি

দুদকের মামলায় সাবেক এমপি কাদের খানের চার বছরের দন্ড

গাজীপুরে পুত্রকে কুপিয়ে হত্যা, পিতা আটক

ছবি

এবার ভরদুপুরে থানচির দুই ব্যাংকে ডাকাতি

সিলেটে ‘ধর্ষক’ স্বেচ্ছাসেবক লীগ নেতাকে গ্রপ্তার করেছে র‌্যাব

ছবি

ড. ইউনূসসহ ১৪ জনের বিরুদ্ধে চার্জশিট গ্রহণ

ছবি

শেকলে বেঁধে তরুণীকে গণধর্ষণ, রিমান্ডে ৪ আসামি

মুন্সীগঞ্জে ডালিম হ.ত্যা মামলার ৬ আসামি জেলহাজতে

ছবি

শিকলে বেঁধে ২৫ দিন ধরে তরুণীকে দলবদ্ধ ধর্ষণ

ছবি

গেন্ডারিয়ায় ৯৮৩ পিস ভয়াবহ মাদক বুপ্রেনরফিনসহ গ্রেপ্তার কারবারি

ছবি

সিলেটে তরুণীকে আটকে রেখে দিনের পর দিন ধর্ষণ অধরা স্বেচ্ছাসেবক লীগ নেতাসহ অভিযুক্তরা

নারায়ণগঞ্জে প্রেমিকাকে ধর্ষণ ও হত্যা, ৩ জনের যাবজ্জীবন

ছবি

স্ত্রী-শাশুড়িসহ ৬ জনের বিরুদ্ধে ‘জল্লাদ’ শাহজাহানের প্রতারণার মামলা

ছবি

মিতু হত্যা মামলায় সাক্ষ্য দিচ্ছেন দুই ম্যাজিস্ট্রেটসহ ৫ জন

ছবি

দুই বছরের দণ্ড ২৭ বছর পর বাতিল, রায়ের কপি যাচ্ছে সব আদালতে

ছবি

মানিকদির জমি দখল নাজিমের দৌরাত্ম্য থামছেই না, আতঙ্কে এলাকাবাসী

ছবি

পুলিশের সোর্স হত্যা মামলার পলাতক ২ আসামি গ্রেপ্তার

ছবি

বড় মনিরের বিরুদ্ধে এবার ঢাকায় কলেজছাত্রীকে ধর্ষণের অভিযোগ

ছবি

রামুর কচ্ছপিয়ায় ছুরিকাঘাতে ছায়া হত্যার ঘটনায় আটক দুই

ছবি

মহেশখালীর সিরিয়াল কিলার আজরাইল গ্রেফতার

ছবি

মুন্সীগঞ্জে পাইপগান-ফেন্সিডিলসহ দু’জন আটক

ছবি

দুদকের মামলায় ২০ কোটি ২২ লাখ টাকার আত্মসাতের অভিযোগে সাবেক এমপি মান্নান কারাগারে

ছবি

আইএমইআই নম্বর পাল্টে মোবাইল বিক্রি, চক্রের ৩ সদস্য গ্রেপ্তার

চুনারুঘাটে স্ত্রীকে গলা টিপে হত্যা, স্বামী আটক

ছবি

সিরাজগঞ্জে ব্যাংকের ভল্ট থেকে ৫ কোটি টাকা গায়েব, ৩ কর্মকর্তা কারাগারে

শতাধিক শিক্ষা ভবন নির্মাণের নামে বিল ভাগ-বাটোয়ারা

tab

অপরাধ ও দুর্নীতি

নকল হচ্ছে ক্যানসারের ওষুধ, ৫ অভিযুক্তের স্বীকারোক্তি

বিপুল পরিমাণ ওষুধ ও তৈরী সরঞ্জাম উদ্ধার

বাকী বিল্লাহ

রোববার, ১৯ মার্চ ২০২৩

জীবনরক্ষাকারী ক্যানসারের ওষুধ নকল হচ্ছে। সংঘবদ্ধ চক্র পরস্পর যোগসাজশে আমদানি নিষিদ্ধ হেপাটাইটিস-বি টিকা দিয়ে জরায়ু ক্যানসারের নকল ভ্যাকসিন তৈরি করছে। নকলবাজ চক্র প্রতিটি নকল ভ্যাকসিন প্রায় আড়াই হাজার টাকা করে বিক্রি করছে। ইতোমধ্যে প্রায় ৬ হাজার নারীকে নকল ভ্যাকসিন পুশ করা হয়েছে।

গোয়েন্দা তথ্যের ভিত্তিতে রাজধানীর দক্ষিণ খান এলাকা থেকে ওষুধ নকলবাজ চক্রের ৫ সদস্যকে সম্প্রতি গোয়েন্দা পুলিশ গ্রেপ্তার করেছে। তাদের দেয়া তথ্যমতে, নকল ভ্যাকসিন ও ভ্যাকসিন তৈরির সরঞ্জাম উদ্ধার করা হয়েছে।

গ্রেপ্তাররা হলেন, সাইফুল ইসলাম শিপন, ফয়সাল আহমেদ, আল-আমিন, নুরুজ্জামান সাগর ও আতিকুল ইসলাম।

ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের গোয়েন্দা কর্মকর্তারা (ডিবি) জানান, নকলবাজ চক্র আমদানি নিষিদ্ধ হেপাটাইটিস, বি টিকা দিয়ে জরায়ু ক্যানসারের নকল ভ্যাকসিন তৈরি করছে।

ডিবি মিডিয়া শাখা থেকে বলা হয়েছে, আমদানি নিষিদ্ধ হেপাটাইটিস-বি ভ্যাকসিন, যেটি অবৈধ পথে বাংলাদেশে এনে সাইফুল ইসলাম শিপন তার নিজ বাড়িতে মজুত করতো। এরপর ঢাকার কেরানীগঞ্জে একটি কারখানায় নকল ওষুধ তৈরির মেশিন স্থাপন করে হেপাটাইটিস-বি এর জেনি ভ্যাক-বি এ্যাম্পল খুলে জরায়ু ক্যানসারের ভ্যাকসিন সিআর ভ্যাকসিনে প্রতি এ্যাম্পলে এক মিলি করে ঢুকায়। পরে তা জরায়ু ক্যানসারের ভ্যাকসিন হিসেবে বিক্রি করে।

আমদানি নিষিদ্ধ একটি জেনি ভ্যাক ভ্যাকসিন ভারত থেকে চোরাই পথে ৩৫০ টাকা করে কিনে এনে তা দিয়ে ১০টি জরায়ু ক্যানসারের ভ্যাকসিন তৈরি করে। এরপর প্রতিটি আড়াই হাজার টাকায় বিক্রি করে।

এই চক্রের সদস্য আতিকুল ইসলাম, আল-আমিন, ফয়সাল ও সাগরের মাধ্যমে উক্ত জরায়ু ক্যানসারের নকল ভ্যাকসিন ও অবৈধ হেপাটাইসিস-বি ভাইরাস ভ্যাকসিন ইতোমধ্যে গাজীপুরের বিভিন্ন শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে ক্যাম্পেইন করে প্রায় ৬ হাজার মেয়েকে পুশ করা হয়েছে।

গ্রেপ্তারকৃতদের হেফাজত থেকে আমদানি নিষিদ্ধ ২০টি জেনি ভ্যাক-বি ভ্যাকসিন, ১০২৫টি জরায়ু ক্যানসারের নকল ভ্যাকসিন ও ভ্যাকসিন তৈরির মেশিনসহ বিভিন্ন ধরনের সরঞ্জামাদি উদ্ধার করা হয়েছে। গ্রেপ্তারকৃতদের বিরুদ্ধে রাজধানীর দক্ষিণখান খানায় মামলা দায়ের করা হয়েছে।

রাজধানীর দক্ষিণ খান থানার ওসি সংবাদকে মুঠোফোনে জানান, দক্ষিণখান থানা থেকে নকল ক্যানসার ওষুধ উদ্ধারের ঘটনায় মামলা দায়ের করা হয়েছে। আর মামলাটি গোয়েন্দা পুলিশ তদন্ত করছেন। তারা মামলার নেপথ্য উদ্ঘাটনে কাজ করছেন।

বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ের ভিসি ডা. শারফুদ্দিন আহমেদ জানান, যেকোন ধরনের নকল ওষুধ স্বাভাবিক কার্যক্রমকে ব্যাহত করে। ক্যানসার আক্রান্ত রোগীকে এই ওষুধ দিলে তিনি আরও বেশি অসুস্থ হয়ে যাবেন। এমনকি মুত্যুও হতে পারে। যারা নকল ওষুধ তৈরি ও বিক্রি করছে তাদেরকে খুনি হিসেবে চিহ্নিত করা যায়। তাদের বিরুদ্ধে দেশে প্রচলিত আইনে ব্যবস্থা নেয়া উচিত বলে তিনি মন্তব্্য করেন।

এই সম্পর্কে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক ভিসি ডা. কনক কান্তি বড়–য়া সংবাদকে ফোনে জানান, এই ধরনের নকল ওষুধ ব্যবহারে শরীরে অনেক ধরনের ক্ষতি হতে পারে। যে কাজের জন্য ওষুধ সেবন করা হয়েছে। তাতে উপকার তো হবে না। বরং অন্যান্য অঙ্গের সমস্যা হতে পারে। তবে ওষুধের ভিতিরে কি আছে তা পরীক্ষা করলে ক্ষতির পরিমাণ জানা যাবে।

উল্লেখ্য সম্প্রতি ওষুধ প্রশাসন অধিদপ্তর ও র‌্যাবের যৌথ অভিযানে রাজধানীর মিটফোর্ড পাইকারি ওষুধ মার্কেটসহ দেশের বিভিন্ন স্থানে অভিযান চালিয়ে বিভিন্ন ধরনের নকল ভেজাল ওষুধ উদ্ধার করা হয়েছে। একের পর এক অভিযানে নকল ভেজাল ও অরেজিস্ট্রিকৃত ওষুধ উদ্ধার করা হলেও থামছে না নকল ওষুধ তৈরি ও বিক্রি। রাজধানীসহ দেশের বিভিন্ন এলাকায় এখনও সংঘবদ্ধ জালিয়াত চক্র পরস্পর যোগসাজশে নকল ও ভেজাল ওষুধ তৈরি ও বিক্রি করছে। এই সব ঘটনায় আইনি ব্যবস্থা নেয়া হয়েছে। ওষধু প্রশাসন অধিদপ্তর কর্তৃপক্ষ ও গোয়েন্দা পুলিশের নকল ভেজাল ওষুধ উদ্ধারে অভিযান অব্যাহত আছে।

back to top