alt

অপরাধ ও দুর্নীতি

মিয়ানমারে মানুষ বন্ধক রেখে ইয়াবা কারবার, মাদক সম্রাট জকিরসহ গ্রেপ্তার ২

জেলা বার্তা পরিবেশক, কক্সবাজার : বুধবার, ১৭ মে ২০২৩

মিয়ানমারের ইয়াবা ডিলারের কাছে মানুষ বন্ধক রেখে বাংলাদেশে ইয়াবা আনার মূলহোতাসহ ২জনকে গ্রেপ্তার করেছে র‌্যাব। এ সময় তাদের কাছ থেকে উদ্ধার করা হয়েছে ৪০ হাজার ইয়াবা। বুধবার (১৭ মে) মধ্যরাতে কক্সবাজারের ঈদগাঁও ইউনিয়নে অভিযান চালিয়ে তাদের গ্রেপ্তার করা হয়।

গ্রেপ্তার ব্যক্তিরা হলেন, টেকনাফ সদর ইউনিয়নের হাজমপাড়া এলাকার বাসিন্দা জাকির আহমেদ জকির ও তার সহযোগী ও একই এলাকার বাসিন্দা মো. ইসমাইল।

র‌্যাব ১৫ এর সিনিয়র সহকারি পরিচালক (আইন ও গণমাধ্যম) অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মো. আবু সালাম চৌধুরী বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন, গত ১৫ জানুয়ারি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে জসিম নামক এক বাংলাদেশি নাগরিককে মিয়ানমারের ইয়াবা ডিলারের নির্যাতনের ভিডিও ভাইরাল হয়। ওই ভিডিওতে জসিম জানায়, টেকনাফ হাজম পাড়ার বাসিন্দা জকির নামে এক ইয়াবা কারবারি তাকে মিয়ানমারের ইয়াবা ডিলারের কাছে বন্ধক রেখে ২৫ লাখ টাকার ইয়াবা নিয়ে আসে। ইয়াবার টাকা পরিশোধ না করায় ইয়াবা ডিলাররা জসিমকে শারীরিক নির্যাতন করে। ভিডিও প্রকাশের পরেই মাদক কারবারিরা আত্মগোপনে চলে যায়। র‌্যাবের নজরে আসার পর র‌্যাব-১৫ গোয়েন্দা নজরদারি বৃদ্ধিসহ র‌্যাবের একটি দল অভিযান অব্যাহত রাখে।

তিনি আরও বলেন, একটি সূত্র ধরে র‌্যাব জানতে পারে জাকির হোসেন জকির মিয়ানমার থেকে ইয়াবার চালান নিয়ে সাগর পথে মহেশখালী হয়ে চৌফলদন্ডি ঘাটে আসবে। তারপর ঈদগাঁওতে ইয়াবা চালান পৌঁছে দেবে। র‌্যাব গেল রাতে আল মাছিয়া ফাজিল ডিগ্রি মাদ্রাসার মসজিদের সামনে তল্লাশি অভিযান শুরু করে। একপর্যায়ে একটি সিএনজি অটোরিকশা থেকে নেমে দুজন লোক কৌশলে পালানোর চেষ্টা করে। র‌্যাব তাদের গ্রেপ্তার করে। তাদের কাছ থেকে উদ্ধার করা হয় ৪০ হাজার ইয়াবা। এরপর তাদের জিজ্ঞাসাবাদ করে পরিচয় মেলে।

মো. আবু সালাম চৌধুরী বলেন, প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে জকির জানায়, সে টেকনাফ ও উখিয়া থানা এলাকার ইয়াবা গডফাদার। তার সহযোগীদের সহায়তায় বিভিন্ন সময়ে বিভিন্ন লোককে সীমান্তবর্তী মিয়ানমার এলাকায় বন্ধক রেখে ইয়াবার বড় বড় চালান নিয়ে আসে। জকিরের নামে টেকনাফে থানায় পাঁচটি মামলা রয়েছে। সর্বশেষ দুজনের নামে মামলা করে তাদেরকে কক্সবাজার সদর থানায় দেয়া হয়েছে। তিনি আরও বলেন, বিষয়টি গভীরভাবে পর্যবেক্ষণ করছে র‌্যাব।

হরিণাকুন্ডুতে হত্যা মামলায় দুই জনকে ফাঁসির আদেশ

ছবি

ঝিনাইদহে কৃষক হত্যা মামলায় ২ জনের মৃত্যুদণ্ড

নোয়াখালির এক প্রবাসী দম্পতিকে দক্ষিণ আফ্রিকায় গুলি করে হত্যা

ছবি

ইভ্যালির রাসেল-শামীমার বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা

ছবি

সিরাজগঞ্জে ‘অটোরিকশা ছিনতাই চক্রের’ পাঁচ সদস্য গ্রেপ্তার

ছবি

অর্থ আত্মসাৎ মামলায় ড. ইউনূসের জামিন

ছবি

অর্থ আত্মসাৎ মামলায় জামিন চাইলেন ড. ইউনূস

ছবি

নিষিদ্ধ জঙ্গি সংগঠনের তিন সদস্য গ্রেপ্তার

ছবি

মোবাইল ফোন সেটের আইএমইআই পাল্টানোর ‘কারিগর’ সফটওয়ার ইঞ্জিনিয়ার গ্রেফতার

ছবি

বান্দরবানে পলিথিনে করে ভেজাল মদ বিক্রি, গ্রেফতার ২

ছবি

ভিকারুননিসা স্কুলের সেই শিক্ষকের ল্যাপটপে মিলেছে সংবেদনশীল অডিও ভিডিও

ছবি

জয়পুরহাটে কৃষক নুরুল হক হত্যা মামলায় ৯ জনের যাবজ্জীবন কারাদণ্ড

ছবি

বরখাস্ত ডিআইজি মিজানের ১৪ বছরের কারাদণ্ড বহাল

ছবি

ভিকারুননিসার শিক্ষক মুরাদের দুই দিনের রিমান্ড মঞ্জুর

ছবি

যোগাযোগ মাধ্যমে ঘুস নেওয়ার ভিডিও ভাইরাল, গাজীপুরে ভূমি কর্মকর্তাকে প্রত্যাহার

টাকা ছাড়া কাজ করেন না ভূমি সহকারী কর্মকর্তা, ঘুষ গ্রহণের ভিডিও ভাইরাল

ছবি

তিনদিন আগে অপহরণ, ঢাবির হলে রেখে নির্যাতন, ছাত্রলীগ কর্মীসহ গ্রেপ্তার ৪

ছবি

নাটোরে অপহরণ ও ধর্ষণের অভিযোগে এক যুবককে ৬০ বছরের কারাদণ্ড

শরণখোলায় ৭ম শ্রেণীর শিক্ষার্থীকে ধর্ষনের অভিযোগ

ছবি

রাজধানীতে চাঞ্চল্যকর হত্যা মামলায় ২ আসামী গ্রেপ্তার

ছবি

রাতে সড়কে ওঁৎ পেতে থাকে তারা, অস্ত্রের ভয় দেখিয়ে করতো ছিনতাই

ছবি

সেনজেন ভিসায় লোক পাঠানোর নামে প্রতারণা, বিমান কর্মচারীসহ গ্রেপ্তার ৫

ছবি

যাবজ্জীবন সাজায় দণ্ডিত জি কে শামীমের জামিন বহাল

ছবি

পরীমনির মাদক মামলা চলবে

ছবি

চার বিমানযাত্রীর কাছে মিলল ২ কেজি সোনার বার ও পাউডার

ছবি

শিশু আয়ানের মৃত্যু: তদন্ত প্রতিবেদনে হাইকোর্টের ‘অসন্তুষ্ট, পুন:তদন্তে নতুন কমিটি

ছবি

মোবাইল চুরির পর চোর হয়ে যেতেন প্রবাসী বন্ধু

ছবি

কিশোর গ্যাং-মাদকের বিরুদ্ধে‘অলআউট অ্যাকশনে’ যাবো ঃ র‌্যাব ডিজি

ছবি

আবারো পেছালো ৩৫ বছর আগের সগিরা মোর্শেদ হত্যা মামলার রায়

ছবি

৩৫ বছর আগে খুন হওয়া সগিরা মোর্শেদের মামলার রায় আবার পেছাল

ছবি

দরবেশ বাবা পরিচয়দানকারি নতুন প্রতারক চক্রের সন্ধান ১৯ সদস্য গ্রেফতার,স্বীকারোক্তি : একজন নারী ডাক্তার থেকে ২৫ লাখ টাকা হাতিয়ে নিয়েছে এই চক্র

মাদ্রাসার শিক্ষকদের এমপিওভূক্তির আশ্বাস দিয়ে ৪ কোটি টাকা আত্মসাৎ, গ্রেফতার দুই বাটপারের স্বীকারোক্তি

ছবি

ফরিদপুরে অস্ত্র মামলায় রুবেল ও তার সহযোগীর কারাদণ্ড

ছবি

চার মাদ্রাসার শিক্ষার্থীকে ধর্ষণ, শিক্ষকের মৃত্যুদণ্ড

ছবি

চালক-হেলপারের সহায়তায় বাসে ছিনতাই করে ‘বমি পার্টি’র সদস্যরা

ছবি

সাবেক পুলিশ কর্মকর্তা ফজলুল করিম হত্যায় বিচার কার্যক্রম শুরু

tab

অপরাধ ও দুর্নীতি

মিয়ানমারে মানুষ বন্ধক রেখে ইয়াবা কারবার, মাদক সম্রাট জকিরসহ গ্রেপ্তার ২

জেলা বার্তা পরিবেশক, কক্সবাজার

বুধবার, ১৭ মে ২০২৩

মিয়ানমারের ইয়াবা ডিলারের কাছে মানুষ বন্ধক রেখে বাংলাদেশে ইয়াবা আনার মূলহোতাসহ ২জনকে গ্রেপ্তার করেছে র‌্যাব। এ সময় তাদের কাছ থেকে উদ্ধার করা হয়েছে ৪০ হাজার ইয়াবা। বুধবার (১৭ মে) মধ্যরাতে কক্সবাজারের ঈদগাঁও ইউনিয়নে অভিযান চালিয়ে তাদের গ্রেপ্তার করা হয়।

গ্রেপ্তার ব্যক্তিরা হলেন, টেকনাফ সদর ইউনিয়নের হাজমপাড়া এলাকার বাসিন্দা জাকির আহমেদ জকির ও তার সহযোগী ও একই এলাকার বাসিন্দা মো. ইসমাইল।

র‌্যাব ১৫ এর সিনিয়র সহকারি পরিচালক (আইন ও গণমাধ্যম) অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মো. আবু সালাম চৌধুরী বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন, গত ১৫ জানুয়ারি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে জসিম নামক এক বাংলাদেশি নাগরিককে মিয়ানমারের ইয়াবা ডিলারের নির্যাতনের ভিডিও ভাইরাল হয়। ওই ভিডিওতে জসিম জানায়, টেকনাফ হাজম পাড়ার বাসিন্দা জকির নামে এক ইয়াবা কারবারি তাকে মিয়ানমারের ইয়াবা ডিলারের কাছে বন্ধক রেখে ২৫ লাখ টাকার ইয়াবা নিয়ে আসে। ইয়াবার টাকা পরিশোধ না করায় ইয়াবা ডিলাররা জসিমকে শারীরিক নির্যাতন করে। ভিডিও প্রকাশের পরেই মাদক কারবারিরা আত্মগোপনে চলে যায়। র‌্যাবের নজরে আসার পর র‌্যাব-১৫ গোয়েন্দা নজরদারি বৃদ্ধিসহ র‌্যাবের একটি দল অভিযান অব্যাহত রাখে।

তিনি আরও বলেন, একটি সূত্র ধরে র‌্যাব জানতে পারে জাকির হোসেন জকির মিয়ানমার থেকে ইয়াবার চালান নিয়ে সাগর পথে মহেশখালী হয়ে চৌফলদন্ডি ঘাটে আসবে। তারপর ঈদগাঁওতে ইয়াবা চালান পৌঁছে দেবে। র‌্যাব গেল রাতে আল মাছিয়া ফাজিল ডিগ্রি মাদ্রাসার মসজিদের সামনে তল্লাশি অভিযান শুরু করে। একপর্যায়ে একটি সিএনজি অটোরিকশা থেকে নেমে দুজন লোক কৌশলে পালানোর চেষ্টা করে। র‌্যাব তাদের গ্রেপ্তার করে। তাদের কাছ থেকে উদ্ধার করা হয় ৪০ হাজার ইয়াবা। এরপর তাদের জিজ্ঞাসাবাদ করে পরিচয় মেলে।

মো. আবু সালাম চৌধুরী বলেন, প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে জকির জানায়, সে টেকনাফ ও উখিয়া থানা এলাকার ইয়াবা গডফাদার। তার সহযোগীদের সহায়তায় বিভিন্ন সময়ে বিভিন্ন লোককে সীমান্তবর্তী মিয়ানমার এলাকায় বন্ধক রেখে ইয়াবার বড় বড় চালান নিয়ে আসে। জকিরের নামে টেকনাফে থানায় পাঁচটি মামলা রয়েছে। সর্বশেষ দুজনের নামে মামলা করে তাদেরকে কক্সবাজার সদর থানায় দেয়া হয়েছে। তিনি আরও বলেন, বিষয়টি গভীরভাবে পর্যবেক্ষণ করছে র‌্যাব।

back to top