alt

অপরাধ ও দুর্নীতি

এমপি স্ত্রীর কানাডায় বাড়ি কেনার খবর

অর্থ পাচারকারীদের তথ্য হলফনামা করে দিতে বললেন: হাইকোর্ট

সংবাদ অনলাইন রিপোর্ট : রোববার, ১২ সেপ্টেম্বর ২০২১

দেশের বাইরে অর্থ পাচারে জড়িতদের বিষয়ে বিশ্বাসযোগ্য তথ্য থাকলে রাষ্ট্র ও দুদককে সব ধরনের প্রয়োজনীয় কাগজপত্র সরবরাহ করতে আবেদনকারীকে আদেশ দিয়েছেন হাইকোর্ট। আদালত বলেছেন, এ-সংক্রান্ত প্রয়োজনীয় তথ্য ও কাগজপত্র হলফনামা আকারে রাষ্ট্র, দুদক ও আদালতে দেওয়ার স্বাধীনতা থাকবে আবেদনকারীর। আবেদনকারী দুদক ও রাষ্ট্রপক্ষকে সহায়তা করবে। সরাসরি পক্ষ হওয়ার দরকার নেই।

নাটোর-২ আসনের সাংসদ শফিকুল ইসলামের স্ত্রী শামীমা সুলতানা জান্নাতীর নামে কানাডায় বাড়ি কেনার খবর নিয়ে সানরাইজ সমাজকল্যাণ সংস্থার সভাপতি মো. রেজাউল চৌধুরীর করা আবেদন নিষ্পত্তি করে বিচারপতি মো. নজরুল ইসলাম তালুকদার ও বিচারপতি এস এম মজিবুর রহমান সমন্বয়ে গঠিত হাইকোর্ট বেঞ্চ রোববার আদেশ দেন।

এর আগে গত ১৮ নভেম্বর এক অনুষ্ঠানে পররাষ্ট্রমন্ত্রী এ কে আব্দুল মোমেন বিদেশে অর্থ পাচার বিষয়ে তার কাছে ২৮টি কেস এসেছে। এর মধ্যে রাজনীতিবিদ হলেন চারজন।

এ বিষয়ে গণমাধ্যমে আসা প্রতিবেদন বিবেচনায় নিয়ে গত ২২ নভেম্বর হাইকোর্ট স্বতঃপ্রণোদিত রুলসহ আদেশ দেন। এর ধারাবাহিকতায় গত ১৭ ডিসেম্বর আদালত দেশের বাইরে অর্থ পাচারে জড়িত ও পাচার করা অর্থে যারা বিদেশে বাড়ি তৈরি করেছেন, তাদের নাম-ঠিকানা ও তাদের বিষয়ে কী পদক্ষেপ নেওয়া হয়েছে, সে বিষয়ে সুনির্দিষ্ট তথ্য জানাতে সময় নির্ধারণ করে দেন।

এরপর চলতি বছরের ৩১ মার্চ পুলিশের বিশেষ শাখার (অভিবাসন) পুলিশ সুপারের এক প্রতিবেদনের বরাত দিয়ে রাষ্ট্রপক্ষ জানায়, দ্বৈত নাগরিকত্ব ও পাসপোর্টধারী ব্যক্তির সংখ্যা ১৩ হাজার ৯৩১। এই মামলায় পক্ষভুক্ত হতে আবেদন করেন রেজাউল।

আবেদনকারীর আইনজীবী মো. আবদুর রাজ্জাক বলেন, পুলিশের বিশেষ শাখার (অভিবাসন) প্রতিবেদনে যারা দেশের বিমানবন্দরগুলো দিয়ে নিয়মিত যাতায়াত করেন, সেই তালিকায় শামীমা সুলতানা জান্নাতীর নাম নেই। অথচ পত্রিকায় আসা প্রতিবেদনে দেখা যায়, জান্নাতীর নামে কানাডায় বাড়িও আছে। সম্পত্তি যে কিনেছেন, সেই দলিলের কপিও আবেদনকারীর কাছে আছে। তারা আদালতকে সহায়তা করতে চান।

শুনানিতে দুদকের আইনজীবী খুরশীদ আলম খান বলেন, যিনি পক্ষভুক্ত হতে এসেছেন, তার কাছে বিশ্বাসযোগ্য তথ্য থাকলে তা আদালতে দিতে পারেন।

এ বিষয়ে ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল আমিন উদ্দিন মানিক বলেন, তদন্ত সংস্থা তদন্ত করছে, সেখানে তথ্য ও কাগজাদি দিতে পারেন। মামলায় পক্ষভুক্ত হওয়ার দরকার নেই। এ রকম হলে অনেকেই পক্ষভুক্ত হতে আসবে, এতে জটিলতা দেখা দেবে। তালিকায় নাম বাদ পড়েছে, দ্বৈত নাগরিক হিসেব তাদের নাম অন্তর্ভুক্ত করতে বলা হবে।

ছবি

ভোলায় এ্যাসিড নিক্ষেপে ছাত্রী হত্যা মামলায় অপু’র আমৃত্যু যাবজ্জীবন

ছবি

রাজারবাগের পীরের বিরুদ্ধে হাইকোর্টে রিট

সাভারে বাসা ভাড়ার নামে শিশু অপহরণ

ছবি

কমিউনিটি মেডিকেল অফিসার রাতারাতি বিশেষজ্ঞ চিকিৎসক!

গ্রাহকের কোটি টাকা হাতিয়ে উধাও স্বপ্ন সঞ্চয় সমবায়

বালিয়াকান্দিতে চাকরির নামে টাকা হাতিয়ে উল্টো মামলা!

ছবি

ইভ্যালির চেয়ারম্যান-এমডির বাসায় র‌্যাবের অভিযান

ছবি

রাজারবাগের পীরের বিরুদ্ধে হাইকোর্টে রিট

আধিপত্য বিস্তার নিয়ে কিশোর গ্যাং-এর উত্থান

ছয় বছরে বিআরটিএ কর্মকর্তার সম্পদের পাহাড়, মামলা দুদকের

ছবি

বিমানের সাবেক ১৭ সিবিএ নেতার দুর্নীতির তদন্ত কেন নয়?

ছবি

শিক্ষার্থীদের কাছ থেকে এ্যাসাইনমেন্ট পরীক্ষার ফি আদায়ের অভিযোগ

বাসা ভাড়ার অভিনব কৌশলে শিশু অপহরণ, আটক: ১

ছবি

চাকরির আট বছরেই বিআরটিএ কর্মকর্তা ১২ কোটি টাকার মালিক

চাকরির প্রলোভনে যৌনপল্লীতে বিক্রি : চাচার বিরুদ্ধে মামলা

ছবি

শরীয়তপুরের ছামাদ মাস্টার হত্যায় ৪ জনের মৃত্যুদণ্ড, ৯ জনের যাবজ্জীবন

ছবি

আদালতে হাজিরা দিলেন পরীমণি

ফুলপুরে ১০ টাকা কেজি ধরের ৪৮ বস্তা চাল উদ্ধার

দুর্গাপুরে সাংবাদিকের ওপর হামলা : থানায় অভিযোগ

মান্দায় বৃদ্ধার মরদেহ উদ্ধার, পুত্রবধূ আটক

শেরপুরে অপহৃত স্কুলছাত্রী উদ্ধার, যুবক গ্রেপ্তার

ছবি

কম্পিউটার অপারেটরের চাকরি থেকে এখন ‘সাড়ে ৪০০ কোটি টাকার’ মালিক

উলিপুরে ন্যায্য মূল্যের চাল কালোবাজারে বিক্রির সময় আটক ২

প্রতিদিন অভিনব কৌশলে দেশে ইয়াবা আনা হচ্ছে

ছবি

জাপানি নারীকে সাবেক স্বামীর ৫ কোটি টাকা ক্ষতিপূরণের নোটিশ

ছবি

আগামীকাল আদালতে হাজিরা দেবেন পরীমণি

জীবন বীমার এমডির নিয়োগ বাণিজ্যসহ সারাদেশে ১০ অভিযোগের তদন্তে দুদক

ছবি

বিদেশ যেতে নিষেধাজ্ঞা: দুদকের পাঁচ আবেদনে রায় ২৭ সেপ্টেম্বর

ছবি

পরিচয়ে টাকা, কাগজপত্র গ্রহণেও টাকা, পরে উধাও

ছবি

জাতীয় প্রেসক্লাবের সভাপতি-সম্পাদকসহ ১১ জনের ব্যাংক হিসাব তলব

ছবি

এহসান গ্রুপের চেয়ারম্যানসহ ৪ জনের ৭ দিনের রিমান্ড

ছবি

স্বাস্থ্য অধিদফতরের গাড়িচালক মালেকের রায় ২০ সেপ্টেম্বর

২৫ মানবপাচার মামলার চার্জশিট

ছবি

রাগীবসহ তার চার ভাইয়ের ৭ দিনের রিমান্ড

অস্ট্রেলিয়াপ্রবাসী নারীর ফাঁদে পড়লেন সুপ্রিম কোর্টের আইনজীবী

ছবি

প্রাইভেট পড়ে বাড়ি ফেরার পথে চতুর্থ শ্রেণির ছাত্রী ধর্ষিত

tab

অপরাধ ও দুর্নীতি

এমপি স্ত্রীর কানাডায় বাড়ি কেনার খবর

অর্থ পাচারকারীদের তথ্য হলফনামা করে দিতে বললেন: হাইকোর্ট

সংবাদ অনলাইন রিপোর্ট

রোববার, ১২ সেপ্টেম্বর ২০২১

দেশের বাইরে অর্থ পাচারে জড়িতদের বিষয়ে বিশ্বাসযোগ্য তথ্য থাকলে রাষ্ট্র ও দুদককে সব ধরনের প্রয়োজনীয় কাগজপত্র সরবরাহ করতে আবেদনকারীকে আদেশ দিয়েছেন হাইকোর্ট। আদালত বলেছেন, এ-সংক্রান্ত প্রয়োজনীয় তথ্য ও কাগজপত্র হলফনামা আকারে রাষ্ট্র, দুদক ও আদালতে দেওয়ার স্বাধীনতা থাকবে আবেদনকারীর। আবেদনকারী দুদক ও রাষ্ট্রপক্ষকে সহায়তা করবে। সরাসরি পক্ষ হওয়ার দরকার নেই।

নাটোর-২ আসনের সাংসদ শফিকুল ইসলামের স্ত্রী শামীমা সুলতানা জান্নাতীর নামে কানাডায় বাড়ি কেনার খবর নিয়ে সানরাইজ সমাজকল্যাণ সংস্থার সভাপতি মো. রেজাউল চৌধুরীর করা আবেদন নিষ্পত্তি করে বিচারপতি মো. নজরুল ইসলাম তালুকদার ও বিচারপতি এস এম মজিবুর রহমান সমন্বয়ে গঠিত হাইকোর্ট বেঞ্চ রোববার আদেশ দেন।

এর আগে গত ১৮ নভেম্বর এক অনুষ্ঠানে পররাষ্ট্রমন্ত্রী এ কে আব্দুল মোমেন বিদেশে অর্থ পাচার বিষয়ে তার কাছে ২৮টি কেস এসেছে। এর মধ্যে রাজনীতিবিদ হলেন চারজন।

এ বিষয়ে গণমাধ্যমে আসা প্রতিবেদন বিবেচনায় নিয়ে গত ২২ নভেম্বর হাইকোর্ট স্বতঃপ্রণোদিত রুলসহ আদেশ দেন। এর ধারাবাহিকতায় গত ১৭ ডিসেম্বর আদালত দেশের বাইরে অর্থ পাচারে জড়িত ও পাচার করা অর্থে যারা বিদেশে বাড়ি তৈরি করেছেন, তাদের নাম-ঠিকানা ও তাদের বিষয়ে কী পদক্ষেপ নেওয়া হয়েছে, সে বিষয়ে সুনির্দিষ্ট তথ্য জানাতে সময় নির্ধারণ করে দেন।

এরপর চলতি বছরের ৩১ মার্চ পুলিশের বিশেষ শাখার (অভিবাসন) পুলিশ সুপারের এক প্রতিবেদনের বরাত দিয়ে রাষ্ট্রপক্ষ জানায়, দ্বৈত নাগরিকত্ব ও পাসপোর্টধারী ব্যক্তির সংখ্যা ১৩ হাজার ৯৩১। এই মামলায় পক্ষভুক্ত হতে আবেদন করেন রেজাউল।

আবেদনকারীর আইনজীবী মো. আবদুর রাজ্জাক বলেন, পুলিশের বিশেষ শাখার (অভিবাসন) প্রতিবেদনে যারা দেশের বিমানবন্দরগুলো দিয়ে নিয়মিত যাতায়াত করেন, সেই তালিকায় শামীমা সুলতানা জান্নাতীর নাম নেই। অথচ পত্রিকায় আসা প্রতিবেদনে দেখা যায়, জান্নাতীর নামে কানাডায় বাড়িও আছে। সম্পত্তি যে কিনেছেন, সেই দলিলের কপিও আবেদনকারীর কাছে আছে। তারা আদালতকে সহায়তা করতে চান।

শুনানিতে দুদকের আইনজীবী খুরশীদ আলম খান বলেন, যিনি পক্ষভুক্ত হতে এসেছেন, তার কাছে বিশ্বাসযোগ্য তথ্য থাকলে তা আদালতে দিতে পারেন।

এ বিষয়ে ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল আমিন উদ্দিন মানিক বলেন, তদন্ত সংস্থা তদন্ত করছে, সেখানে তথ্য ও কাগজাদি দিতে পারেন। মামলায় পক্ষভুক্ত হওয়ার দরকার নেই। এ রকম হলে অনেকেই পক্ষভুক্ত হতে আসবে, এতে জটিলতা দেখা দেবে। তালিকায় নাম বাদ পড়েছে, দ্বৈত নাগরিক হিসেব তাদের নাম অন্তর্ভুক্ত করতে বলা হবে।

back to top